মায়ের ধাত্রী ১২ বছরের কিশোরী!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

মায়ের ধাত্রী ১২ বছরের কিশোরী!

‘আমি খুবই অপ্রস্তুত ছিলাম, আমার মনে হচ্ছিল আমি সব ভণ্ডুল করে দিতে পারি। কিন্তু এটি ছিল আমার জীবনের অন্যতম সেরা মূহুর্তের মধ্যে একটি। আমি কাঁদতে শুরু করেছিলাম কারণ আমার মনে হচ্ছিল আমি ছোট হওয়ায় তার জন্মটা দেখতে পারবো না।’

বিবিসির কাছে এভাবেই নিজের অনুভূতি বলছিল মিসিসিপির ১২ বছরের কিশোরী জেসি ডিল্লাপেনা। তার মা প্রসব ব্যথায় হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর সেই তার মায়ের ধাত্রীর কাজ করেছে। সাহায্য করেছে তার ভাইয়ের জন্ম হতে। অপারেশন থিয়েটারে ডাক্তারের সাথে সেও উপস্থিত ছিল।

ছবিতে জেসিকে অ্যাপ্রন ও মোজা পরে কাজ করার প্রস্তুতি নিতে দেখা গেছে।

‘ডাক্তাররা আমাকে সাহায্য করেছে। তারা দেখিয়েছে কিভাবে বাচ্চাকে টেনে বের করতে হয়। এর আগেও আমি খেলাচ্ছলে ডাক্তার হয়েছি; কিন্তু এটা ছিল সত্যিকারের, আমি ভড়কে গিয়েছিলাম।’ প্রায় সাড়ে তিনকেজি ওজনের ভাই ক্যাসি ক্যারাওয়ের জন্মের পর তাকে কোলে নিয়ে এগুলো বলছিল জেসি।

তাদের পারিবারিক বন্ধু নিক্কি স্মিথের সামাজিক যোগাযোগ সাইট ফেসবুকে শেয়ার করা কিছু ছবিতে দেখা গেছে জেসিকে ডাক্তারদের অ্যাপ্রন ও হাত মোজা পরে কাজ করার প্রস্তুতি নিতে।

তবে কিছু ফেসবুকার এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধতার কথা উল্লেখ করলে নিক্কি, এখানে খারাপ কিছুই ছিল না।  যদিও এটা সবার জন্য নয় তবুও জেসি বেশ সাহসিকতার সাথেই কাজটি সম্পাদন করেছে।

তার পারিবারিক এক মনোরোগ বিশেষজ্ঞ জানান, সন্তান জন্মদানে বিশেষ করে নিজের ভাইয়ের জন্ম নিজের চোখে দেখা এটি জেসির একটি চমৎকার অভিজ্ঞতার পাশাপাশি তার ভাইয়ের সাথে এক ভালো বন্ধন ঘটতে পারে।

অর্থসূচক/কে এম

এই বিভাগের আরো সংবাদ