অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদে বাতিল হওয়া পরীক্ষা অনুষ্ঠিত
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদে বাতিল হওয়া পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদের প্রশ্নপত্র ফাঁসের কারণে বাতিল হওয়া নিয়োগ পরীক্ষা আবার নেওয়া হয়েছে। আজ শুক্রবার আজ সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত পরীক্ষাটি হয়। এবারও প্রশ্ন ফাঁসের গুজব উঠেছিল। তবে এর প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

পরীক্ষা শুরুর আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদের প্রশ্নপত্র ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে এর কোনো ভিত্তি নেই বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্টরা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া প্রশ্নের সঙ্গে মূল প্রশ্নের কোনো মিলও পাওয়া যায়নি।

Agrani Bank

অগ্রণী ব্যাংকের লোগো।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির মাধ্যমে আয়োজিত এই নিয়োগ পরীক্ষার সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং ও ইন্স্যুরেন্স বিভাগ। এর তদারকি করেন ওই বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান এবং ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম।

তিনি বলেন, এবার পুরো প্রক্রিয়ায় আমি ছিলাম। প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রশ্ন ছড়িয়ে পড়ার যে অভিযোগ উঠেছে- তা মোটেও সত্য নয়।

অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম বলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস স্থায়ীভাবে বন্ধ করা দরকার। প্রশ্ন ছাপা ও বাঁধাইয়ের কাছে বাইরের লোকে নিয়োগ দেওয়া হয়। তাই প্রশ্ন ফাঁসের ভয় থাকে। প্রশ্ন তৈরি করে পেন ড্রাইভে দিলে ছাপা হয়ে যাবে- যুক্তরাষ্ট্রে এমন একটি যন্ত্র আবিষ্কার করা হয়েছে। যন্ত্রটি কেনা হলে প্রশ্ন ফাঁস হওয়া বন্ধ করা সম্ভব।

গত ১৯ মে অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদে নিয়োগের বাছাইপর্বের পরীক্ষা ছিল। ২৬২টি পদের বিপরীতে দুই লাখের বেশি পরীক্ষার্থী থাকায় সকাল-বিকেল দুই ভাগে এই পরীক্ষার সূচি নির্ধারণ ছিল। সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত পরীক্ষার পর প্রশ্ন ফাঁসের প্রমাণ পাওয়া বিকেলের পরীক্ষা স্থগিত হয়। পরে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে সকালের পরীক্ষাও বাতিল করা হয়।

কয়েক বছর আগেও রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোতে নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে নানা অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ ওঠে। এসব বন্ধ করে স্বচ্ছতা আনতে এবং একই মান রাখতে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরকে চেয়ারম্যান করে ২০১৫ সালের শেষে গঠিত হয় ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি (বিএসসি)।

এরপর গত বছর সোনালী, জনতা, অগ্রণী, কৃষি, রূপালীসহ রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকে ৭ হাজার পদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। এতে আবেদন পড়েছে প্রায় ৩০ লাখ। এখন এসব পরীক্ষা চলছে।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ