নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত করলো ইংল্যান্ড
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত করলো ইংল্যান্ড

আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ষষ্ঠ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে ৮৭ রানে হারিয়েছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। ইংলিশদের দেওয়া ৩১১ রানের জবাবে ২২৩ রানেই অলআউট হয় কিউইরা। এতে টানা দুই ম্যাচ জিতে টুর্নামেন্টের প্রথম দল হিসেবে সেমি-ফাইনালের টিকেট নিশ্চিত করলো স্বাগতিকরা।

কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন্সে বাংলাদেশ সময় গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ৩টায় ম্যাচটি শুরু হয়। টস জিতে ইংল্যান্ডকে প্রথমে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে অনেকটা সতর্ক শুরু করেন দুই ইংলিশ ওপেনার জেসন রয় এবং অ্যালেক্স হেলস। তবে ৪০ রান পেরুবার আগেই ভেঙ্গে যায় তাদের জুটি। দলীয় ৩৭ রানে ইনিংসের অষ্টম ওভারে আউট হন জেসন রয় (১৩)। দ্বিতীয় উইকেটে জো রুটের সঙ্গে ৮১ রানের জুটির পর সাজঘরে ফেরেন হেলস (৫৬)। ৪ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ভালো করতে পারেননি অধিনায়ক ইয়ান মরগান। স্কোরবোর্ডে মাত্র ১৩ রান যোগ করার পর ইনিংসের ২৪.৩ ওভারে দলীয় ১৩৪ রানে আউট হন তিনি।

Jos Buttler England

অপরাজিত ৬১ রানের ইনিংসে জস বাটলারের একটি শট।

চতুর্থ উইকেটে ৫৪ রানের জুটিতে গড়েন রুট এবং বেন স্টোকস। ইনিংসের ৩৩.৩ ওভারে দলীয় ১৮৮ রানে সাজঘরে ফেরার আগে ৬৪ রান করেন রুট। ৩৭.৩ ওভারে আউট হওয়ার আগে ৪৮ রান করেন স্টোকস। দলীয় ২১০ রানে ৫ম উইকেট পতনের পর ইংল্যান্ডের বড় স্কোর করা অনেকটাই কঠিন হয়ে যায়। তবে শেষ দিকের ৫ উইকেট পতনের আগে দলকে ভালো অবস্থানে নিতে দারুণ ভূমিকা রাখেন ৬ নম্বরে ব্যাট করতে নামা জশ বাটলার।

স্টোকস আউট হওয়ার পর অনেকটা ধারাবাহিক বিরতিতে ইংল্যান্ডের উইকেট পতন হতে থাকে। তবে এক প্রান্ত আগলে রাখেন বাটলার। অপর প্রান্তে একের পর এক উইকেট পতন হতে থাকে। ইনিংসের ২৩০ রানে মঈন আলী (১২) এবং দলীয় ২৬০ রানে আদিল রশিদ (১২) আউট হন। এরপর অষ্টম উইকেটে ৪৯ রানের জুটি গড়েন বাটলার ও লিয়াম প্লানকেট। ৪৯তম ওভারে আউট হন প্লানকেট (১৫)। ৪৯.২ এবং ৪৯.৩ ওভারে যথাক্রমে আউট হন মাক উড (০) এবং জ্যাক বল (০)। এতে নির্ধারিত ৫০ ওভারের ৩ বল বাকি থাকতে অলআউট হয় ইংল্যান্ড। আর ৩১০ রানে থামে ইংলিশদের ব্যাটিং ইনিংস।

নিউজিল্যান্ডের পক্ষে এডাম মিলনে ও কোরি এন্ডারসন ৩টি করে উইকেট নেন। এছাড়া টিম সাউদী ২টি এবং ট্রেন্ট বোল্ট ও মিশেল স্যান্টনার একটি করে উইকেট নেন।

৩১১ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম ওভারের চতুর্থ বলে দলীয় ১ রানে আউট হন কিউই দলের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান লুক রঞ্চি (০)। দ্বিতীয় উইকেটে ৬২ রানের জুটির পর ইনিংসের ১৩.৩ ওভারে সাজঘরে ফেরেন মার্টিন গাপটিল (২৭)। তৃতীয় উইকেটে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের সঙ্গে ৯৫ রানের জুটি গড়েন রস টেইলর। ইনিংসের ৩০.২ ওভারে দলীয় ১৫৮ রানে আউট হন উইলিয়ামসন (৮৭)। দলীয় ১৬৮ রানের সাজঘরে ফেরেন টেইলর (৩৯)।

Jos Buttler & Adil Rashid England

উইকেট নেওয়ার পর আদিল রশিদকে স্বাগত জানাচ্ছেন জস বাটলার।

উইলিয়ামসন ও টেইলরের বিদায়ের পর নিউজিল্যান্ড শিবিরে উইকেট পতনের হাওয়া লাগে। ধারাবাহিক বিরতিতে সাজঘরে ফিরতে থাকেন একের পর এক ব্যাটসম্যান। দলীয় ১৯১ রানে জেমস নিশাম (১৮), দলীয় ১৩৪ রানে নেইল ব্রুম (১১), ২০৫ রানে কোরি স্যান্টনার (৩), ২১১ রানে অ্যান্ডারসন (১০), ২২৩ রানে অ্যাডাম মিলনে (১০) এবং টিম সাউদী (২) আউট হন। এতে ইনিংসের ৩৩ বল বাকি থাকতেই ইংলিশদের জয় নিশ্চিত হয়।

ইংল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট নিয়েছেন প্লানকেট। এছাড়া জ্যাক বল ও আদিল রশিদ ২টি করে এবং মার্ক উড ও বেন স্টোকস একটি করে উইকেট নেন।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ