৩০ জুনের মধ্যে অগ্রিম ভ্যাট ফেরত দেওয়ার নির্দেশ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

৩০ জুনের মধ্যে অগ্রিম ভ্যাট ফেরত দেওয়ার নির্দেশ

টোব্যাকো ছাড়া অন্য সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে নেওয়া অগ্রিম ভ্যাট (মূসক) ৩০ জুনের মধ্যে ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। অগ্রিম ভ্যাট ফেরত দেওয়ার মাধ্যমে নতুন অর্থবছরে শূন্য থেকে যাত্রা শুরু করতে চায় এনবিআর। ১ জুলাই থেকে নতুন ‘মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২’ বাস্তবায়িত ও নতুন ভ্যাট আহরণ শুরু হবে।

সম্প্রতি সব ভ্যাট কমিশনারেটের প্রতি নির্দেশনা জারি করে একটি চিঠি দিয়েছেন এনবিআর চেয়ারম্যান। চিঠিতে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়নে করণীয় সম্পর্কে ২০টি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

Vat Online Photo (1)

ভ্যাট দিতে দেশে ব্যবসায়ীদের উৎসাহিত করতে নানা ভাবে প্রচার চালাচ্ছে এনবিআর।

এনবিআর সূত্র জানায়, ১৯৯১ সালের ভ্যাট আইনে ব্যবসায়ীদের প্রতি মাসে চলতি হিসাবে অগ্রিম ভ্যাট পরিশোধ করতো হতো। পরিশোধিত ভ্যাট মাস শেষে চলতি হিসাব রেজিস্ট্রার অনুযায়ী সমন্বয় করা হতো।

গত ২৭ বছর ধরে এই ব্যবস্থা চালু রয়েছে। ফলে অনেক সময় ব্যবসায়ীদের সরকারের পাওনার চেয়ে অতিরিক্ত ভ্যাট পরিশোধ এবং তা সমন্বয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়।

ব্যবসায়ীদের সময় বাঁচানো ও ভোগান্তি দূর করতে নতুন ভ্যাট আইনে চলতি হিসাবে অগ্রিম ভ্যাট পরিশোধের ব্যবস্থা রাখা হয়নি। মাস শেষে ক্রয়-বিক্রয় হিসাব শেষে পাওনা ভ্যাট পরিশোধ করতে হবে।

সূত্র অনুযায়ী, চলতি বছরের জানুয়ারি পর্যন্ত বৃহৎ করদাতা ইউনিট (এলটিইউ) মূসকসহ দেশের ১২টি কমিশনারেটের আওতায় ব্যবসায়ীরা চলতি হিসাবে ১৮ হাজার কোটি টাকা জমা দিয়েছেন। ৩০ জুনের মধ্যে টোব্যাকা কোম্পানি ব্যতীত সব ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে চলতি হিসাবে ভ্যাটের টাকা ফেরত দেওয়ার মাধ্যমে হিসাব শূন্য করার ব্যবস্থা গ্রহণে কমিশনারেটগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এনবিআরের হিসাব অনুযায়ী, ৮ লাখ ৬৪ হাজার প্রতিষ্ঠানের ভ্যাট নিবন্ধন রয়েছে। এলটিইউসহ ১২টি ভ্যাট কমিশনারেটে ৩৬ হাজার ৮৫৮টি প্রতিষ্ঠান নিয়মিত ভ্যাট রিটার্ন (দাখিলপত্র) জমা দেয়; যা নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠানের মাত্র ৪.২৭ শতাংশ।

এর মধ্যে বৃহৎ করদাতা ইউনিট (এলটিইউ) মূসক এর আওতায় ১৫৬টি প্রতিষ্ঠান, কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট রাজশাহীর আওতায় ১ হাজার ২৭৬টি, ঢাকা পশ্চিম ভ্যাট কমিশনারেট ৩ হাজার ৬১৭টি, চট্টগ্রাম ভ্যাট কমিশনারেট ২ হাজার ৬০০টি, যশোর ভ্যাট কমিশনারেট ১ হাজার ৫২১টি, ঢাকা উত্তর ভ্যাট কমিশনারেট ৮ হাজার ৯৯০টি, রংপুর ভ্যাট কমিশনারেট ৫৫০টি, ঢাকা পূর্ব ভ্যাট কমিশনারেট ৪ হাজার ৪৫৬টি, ঢাকা দক্ষিণ ভ্যাট কমিশনারেট ৯ হাজার ৮৭৮টি, খুলনা ভ্যাট কমিশনারেট ৮৩৯টি, সিলেট ভ্যাট কমিশনারেট ২ হাজার ২৮৪টি ও কুমিল্লা ভ্যাট কমিশনারেটের আওতায় ৬৯১টি প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

Vat Online Photo (5)

ভ্যাট দিতে দেশে ব্যবসায়ীদের উৎসাহিত করতে নানা ভাবে প্রচার চালাচ্ছে এনবিআর।

সূত্র আরও জানায়, চলতি বছরের ২৩ মার্চ অনলাইনে ভ্যাট নিবন্ধন উদ্বোধন করা হয়। ৬ জুন পর্যন্ত সারাদেশে ২৫ হাজার ৯৮৩টি প্রতিষ্ঠান অনলাইনে ভ্যাট নিবন্ধন নিয়েছে। এর মধ্যে ভ্যাট পুনঃনিবন্ধন নেওয়া প্রতিষ্ঠানের চেয়ে নতুন নিবন্ধন নেওয়া প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বেশি। সার্বিক বিবেচনায় দাখিলপত্র প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ও অনলাইনে পুনঃনিবন্ধন গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা সন্তোষজনক নয় বলে মনে করছে এনবিআর। সেজন্য আগামী ১৫ জুনের মধ্যে ভ্যাট কমিশনারেটগুলোর তালিকা অনুযায়ী নিয়মিত ভ্যাট রিটার্ন প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ও রিটার্ন প্রদান করেনি এমন নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠানকে পুনঃনিবন্ধনে উৎসাহিতকরণে ব্যবস্থা নিতে কমিশনারদের নির্দেশ দিয়েছে এনবিআর। নিবন্ধন নিশ্চিত করতে বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকের সমন্বয়ে গঠিত সহায়ক কমিটির মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়ারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সূত্র জানায়, আগামী ১ জুলাই থেকে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন হবে। এর আগে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান অনলাইনে পুনঃনিবন্ধন না নিলে নতুন আইন বাস্তবায়ন, ভ্যাট আদায়সহ করদাতাদের ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনায় সমস্যা হতে পারে। সেজন্য ১৫ জুনের মধ্যে পুনঃনিবন্ধন কার্যক্রমে শেষ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেজন্য কমিশনারদের ভ্যাট মেলার আয়োজনসহ প্রয়োজনীয় সব কার্যক্রম শেষ করতে বলা হয়েছে।

এনবিআর চেয়ারম্যানের চিঠিতে বলা হয়েছে, ভ্যাট নিবন্ধন ও পুনঃনিবন্ধনের আপডেট প্রতিদিন ই-মেইলে জানাতে হবে। নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়নে কমিশনারেটগুলোর করণীয় বিষয়ে এনবিআর একটি চেকলিস্ট প্রস্তুত করেছে। চেকলিস্ট বাস্তবায়ন হচ্ছে কি না- তা মনিটরিংয়ের জন্য এনবিআর সদস্য (মূসক নিরীক্ষা ও গোয়েন্দা) খন্দকার মুহাম্মহ আমিনুর রহমানকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন এনবিআরের প্রথম সচিব (মূসক) ড.মো. আব্দুর রউফ ও ভ্যাট অনলাইন প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক মুহম্মদ জাকির হোসেন। চেকলিস্টে কমিশনারেটের ২০টি করণীয় নির্ধারণ করা হয়েছে।

এর মধ্যে রয়েছে- ১৫ জুনের মধ্যে প্রত্যেক কমিশনারেটে নিয়মিত রিটার্ন দাখিলকারী প্রতিষ্ঠানকে বাধ্যতামূলকভাবে অনলাইনে পুনঃনিবন্ধনের আওতায় আনা। দ্রুত পুনঃনিবন্ধনের জন্য ভ্যাট কমিশনারেট ও বিভাগীয় দপ্তরে ৭ জুনের মধ্যে দল গঠন করা। ১০ জুনের মধ্যে হার্ডওয়ার ভ্যাট অনলাইন থেকে বুঝে নেওয়া, ৭ জুনের মধ্যে আধুনিক অবয়বে অফিস প্রস্তুত করা। ৭ জুনের মধ্যে প্রতিটি কমিশনারেটে ভ্যাট হেল্প ডেস্ক স্থাপন, প্রয়োজনীয় লিফলেট, ব্যানার, ফেস্টুন ও অন্যান্য জিনিস দিয়ে হেল্প ডেস্ক সাজানো। ১০ জুনের মধ্যে কাস্টমস হাউজে ভ্যাট হেল্প ডেস্ক স্থাপন, আমদানি-রপ্তানিকারকদের ভ্যাট নিবন্ধন ও পুনঃনিবন্ধনে সহযোগিতা করতে একাধিক বুথ স্থাপন। ১০ জুনের মধ্যে অভ্যর্থনা কক্ষ সাজানো, নিবন্ধন আবেদন ও দাখিলপত্র হার্ড কপি নেওয়া, প্রাপ্তিস্বীকারপত্র দেওয়ার জন্য আলমারির ব্যবস্থা করা। ৩০ জুনের মধ্যে নিবন্ধন ও রিটার্ন গ্রহণের জন্য কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ ও তাদের কর্মবণ্টন করে দেওয়া। উৎসে ভ্যাট কর্তনকারী ১০টি মন্ত্রণালয় ও তাদের আওতাধীন সংস্থা (স্থানীয় সরকার, সড়ক ও জনপথ, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, গৃহায়ন ও গণপূর্ত, রেলওয়ে, পাট ও বস্ত্র, ভূমি ও পানিসম্পদ), প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ সংস্থাকে প্রশিক্ষণ দেওয়া।

অন্যদিকে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের ১ জুলাই থেকে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়নের ঘোষণা দিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেছেন, দেশে সাড়ে ৮ লাখ ভ্যাট নিবন্ধিত শিল্প ও প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এর মধ্যে মাত্র ৩২ হাজার ভ্যাট রিটার্ন দেয়। আগামী দুই বছরের মধ্যে এ সংখ্যা ৬০ হাজারে উন্নীত করা হবে।

এ বিষয়ে ভ্যাট অনলাইন প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক মুহম্মদ জাকির হোসেন অর্থসূচকে জানান, অগ্রিম ভ্যাট ফেরত দিলে ভ্যাট দেওয়া সহজ হবে। সে জন্য অগ্রিম ভ্যাট ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আশা করি. জুনের মধ্যে সব ফেরত দেওয়া সম্ভব হবে।

তিনি আরও বলেন, এখন অনলাইনে প্রতিদিন গড়ে ১১০০ থেকে ১২০০ ভ্যাট নিবন্ধন ও পুনঃনিবন্ধন হচ্ছে। বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। জুলাই থেকে প্রতিদিন গড়ে ৫ হাজার নিবন্ধন হবে। অর্থমন্ত্রী দুই বছরের মধ্যে যে ৬০ হাজার প্রতিষ্ঠানকে ভ্যাট রিটার্নের আওতায় আনার ঘোষণা দিয়েছেন- তা চলতি জুনের মধ্যেই পূরণ করতে পারবো।

অর্থসূচক/রহমত/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ