দুই মাসেও সন্ধান মেলেনি জেরিনের
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

দুই মাসেও সন্ধান মেলেনি জেরিনের

রাজধানীর ভাটারা এলাকা থেকে গত ২৭ মার্চে জান্নাতুল আলম জেরিন (১৩) নামে কিশোরী নিখোঁজ হয়। এর প্রায় দুই মাস পর গত ১৯ মে ভাটারা থানায় অপহরণ মামলা করেন ওই কিশোরীর মা জাহেদা বেগম। তবে ওই কিশোরীর সন্ধান এখনও পাওয়া যায়নি।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ভাটারার আলেসা বিবি মেমোরিয়াল হাই স্কুলের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী জান্নাতুল আলম জেরিন। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ২৭ মার্চ তার স্কুলের সামনে থেকে তাকে অপহরণ করা হয়।

Jannatul Alam Xerin

ভাটারার আলেসা বিবি মেমোরিয়াল হাই স্কুলের সামনে থেকে গত ২৭ মার্চ নিখোঁজ কিশোরী জান্নাতুল আলম জেরিন।

জাহেদা বেগমের করা অপহরণ মামলায় ৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। তারা হলো- মোস্তাফিজুর রহমান বাপ্পি (২৪); তার মা আয়েশা বেগম (৫৫); ছোট ভাই আশিকুর রহমান (২০); বন্ধু রায়হান (২৩); খালা রাশি বেগম (৩৫) এবং জাহেদার চাচা মো. সিরাজুল ইসলাম (৪০)।

জাহেদা বেগম অর্থসূচককে বলেন, মোস্তাফিজুর রহমান বাপ্পি দীর্ঘ দিন ধরে জান্নাতকে উত্যক্ত করে আসছিল। এক সময় সে জেরিনকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এলাকায় তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ থাকায় ওই প্রস্তাবে আমরা রাজি হইনি। এরপর গত ২৭ মে তাকে অপহরণ করা হয়।

তিনি আরও বলেন, মেয়েকে অপহরণ করা হয়েছে- এই মামলা করতে আমাদের অনেক ঝামেলা পোহাতে হয়েছে। এখন মেয়ের সন্ধানে বার বার থানায় ধরণা দিতে হচ্ছে। মেয়ের কোনো সন্ধান নেই; আসামীরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

আলেসা বিবি মেমোরিয়াল হাই স্কুলের হিসাবরক্ষক শফিকুল ইসলাম বলেন, জেরিন ভালো ও মেধাবী শিক্ষার্থী। ২৬ মার্চ স্কুলের একটা অনুষ্ঠানের পর থেকে তাকে আর স্কুলে দেখা যাচ্ছে না। শুনেছি, তাকে অপহরণ করা হয়েছে।

ভাটারা থানার ওসি নুরুল মোস্তাকীন বলেন, অপহরণের মামলায় আয়েশা বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। তখন পুলিশ জানতে পারে, তার ছেলে বাপ্পিকেও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। জেরিন ও বাপ্পি কোথায় আছে- তার সন্ধান করছে পুলিশ।

মোবাইলে ফোন করে বাপ্পি ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে করা মামলা তুলে নিতে জেরিন তার পরিবারকে চাপ দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন ওসি নুরুল মোস্তাকীন।

অন্যদিকে জাবেদা বেগম বলেন, আমার মেয়ে আমার সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করছে না। শুক্রবার রাতে বাপ্পি মোবাইলে ফোন করে তার বিরুদ্ধে মামলা তুলে নিতে হুমকি দেয়। মামলা তুলে না নিলে কোনোদিন জেরিনের মুখ দেখতে পারবো না বলেও ভয়ভীতি দেখায়।

অর্থসূচক/মুন্নাফ/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ