ঢাকার ভেতরেই যেখানে ঈদের আনন্দ দ্বিগুণ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ঢাকার ভেতরেই যেখানে ঈদের আনন্দ দ্বিগুণ

ঈদ মানে আনন্দ। ঈদ মানে হুল্লোড়। আনন্দ আর হৈ হুল্লোড়ের সেই দিনটি আর বেশি দূরে নেই। রোজা শুরু হতে হতেই তিন ভাগের একভাগ প্রায় শেষ।

তাই আসন্ন আনন্দের দিনটিতে কী করবেন, কোথায় বেড়াবেন তার একটা পরিকল্পনা করার সময় এখনই। ঈদের ছুটিতে হাতে একটু বেশি সময় থাকলে সাগড়, পাহাড় বা হাওর এলাকায় বেড়িয়ে আসতে পারেন। আবার সময় কম থাকলে রাজধানীর ভেতরেই কয়েকটি বিনোদন কেন্দ্রে গিয়ে আনন্দ ভাগ করে নিতে পরিজনের সঙ্গে। দেখবেন সেইসব জায়গায় আপনার পরিবাবরে সদস্যদের ঈদ আনন্দ দ্বিগুণ হয়ে উঠেছে।

আসুন এক নজরে জেনে নেই ঢাকার কোথায় কোথায় আপনার ঈদ আরও আনন্দময় হয়ে উঠবে-

লালবাগ কেল্লা: ঢাকার ঐতিহ্যবাহী একটি নিদর্শন হলো লালবাগ কেল্লা। কেল্লার চত্বরে তিনটি স্থাপনা রয়েছে, কেন্দ্রস্থলের দরবার ও হাম্মামখানা, পরীবিবির সমাধি এবং উত্তর-পশ্চিমাংশের শাহি মসজিদ। লাল সবুজে ঘেরা এই লালবাগ কেল্লা হতে পারে ঈদের দিন ঘোরার চমৎকার জায়গা।

আহসান মঞ্জিল: আহসান মঞ্জিল পুরনো ঢাকার ইসলামপুরে বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে অবস্থিত। এটি ছিল ঢাকার নবাবদের প্রাসাদ। বর্তমানে জাদুঘর। নির্মাণ করা হয় ১৮৫৯ সালে। প্রাসাদের ছাদের সুদৃশ্য গম্বুজটি একসময় ছিল ঢাকার সর্বোচ্চ গম্বুজ। মূল ভবনের বাইরে ত্রি-তোরণবিশিষ্ট প্রবেশদ্বারও দেখতে সুন্দর। সিঁড়িগুলো সবার দৃষ্টি কেড়ে নেয়। কর্মব্যস্ত জীবনে বাংলার ইতিহাসকে আর একবার মনে করার জন্য ঈদের দিন হতে পারে আপনার উপযুক্ত সময় সাথে চিত্তবিনোদনও থাকবে আপনার সঙ্গে।

জাতীয় জাদুঘর: ঈদের ছুড়িতে বেড়িয়ে আসতে পারেন শাহাবাগে অবস্থিত জাতীয় জাদুঘর থেকে। বাড়ির সবাইকে নিয়ে অনায়াসে যাওয়া যায় এখানে। এখানে গেলে এক সাথে ঘুরে আসতে পারেন পাবলিক লাইব্রেরি, ছবির হাট, সোহরার্দী উদ্যান, কার্জন হল, মৃৎশিল্পের বাজার।

শিশুপার্ক: শিশুদের বিনোদনের জন্য শিশুপার্ক অন্যতম। ঈদের দিন পরিবার নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন এখান থেকে।

চিড়িয়াখানা: মিরপুরে জাতীয় চিড়িয়াখানার ভেতরে দেখা মিলবে নানা ধরনের পশুপাখির। এ ছাড়া ভেতরে রয়েছে বসার ভালো স্থান। লেক আর সবুজের দেখা পাবেন এখানটায়। ঈদের দিন চলে পারেন বাড়ির কনিষ্ঠ সদস্যদের নিয়ে।

বোটানিক্যাল গার্ডেন: চিড়িয়াখানার পাশেই বোটানিক্যাল গার্ডেন অবস্থিত। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের কারণে বোটানিক্যাল গার্ডেনের সবুজ প্রকৃতির মধ্যে সময় কাটাতে চলে আসেন। তবে ঈদের দিন খোলা হাওয়ায় বেড়াতে আসতে পারেন এখানে।

নভোথিয়েটার: রাজধানীর বিজয় সরণিতে অবস্থিত এ নভোথিয়েটার। নভোথিয়েটারে দুটি ফিল্ম প্রদর্শিত হয়। মহাকাশ বিষয়ক শো দুটোই। যারা বিজ্ঞান বিষয়ে আগ্রহী তাদের জন্য নভোথিয়েটার ঘোরার জন্য অন্যতম। ঈদের দিন হাতে সময় নিয়ে চলে যেতে পারেন নভোথিয়েটারে।

যমুনা ফিউচার পার্ক: যমুনা ফিউচার পার্কে ছোট বড় সবাই যেতে পারেন। ছোটদের জন্য রয়েছে বিভিন্ন রাইডের ব্যবস্থা। ফুড কোর্টে রয়েছে বিভিন্ন খাবারের ব্যবস্থা। আর ব্লকবাস্টারে চলবে বেশ কিছু সিনেমা।

ফ্যান্টাসি কিংডম: ঢাকার অদূরে অবস্থিত বিনোদনের স্বর্গরাজ্য বলে খ্যাত ফ্যান্টাসি কিংডম বিনোদনপ্রিয় বাঙালীদের কাছে একটি জনপ্রিয় নাম। বিশ্বমানের বিনোদন সেবা, চমৎকার ল্যান্ড স্কেপিং ও উত্তেজনাকর সব রাইডস্ নিয়ে তৈরি ফ্যান্টাসি কিংডম, যা এরই মধ্যে বিনোদনপিপাসু ছোট-বড় সকলের কাছে বিনোদনের স্বর্গরাজ্য হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। দুরন্ত গতিতে ছুটে চলা রোমাঞ্চকর অনুভূতি ও শিহরণ জাগানো রাইড রোলার কোস্টার এই পার্কের সবচেয়ে জনপ্রিয় রাইডগুলোর মধ্যে অন্যতম। বিনোদনের স্বর্গরাজ্য এই ফ্যান্টাসি কিংডমের রাজা আশু ও রানী লিয়া। বিশ্বমানের আদলে তৈরি এই পার্কের সবকিছুর মধ্যে রয়েছে রাজা-রানীর সেই হারানো রাজ্যের সুর। এ ছাড়া রয়েছে জায়ান্ট ফেরিস হুইল, জুজু ট্রেন, হ্যাপি ক্যাঙ্গার, বাম্পারকার, ম্যাজিক কার্পেট, সান্তা মারিয়া, জায়ান্ট স্প্ল্যাশ, জিপ এ্যারাউন্ড, পনি এ্যাডভেঞ্চার, ইজি ডিজিসহ ছোট-বড় সকলের জন্য মজাদার সব রাইডস্।

বসুন্ধরা সিটি: বসুন্ধরা সিটিতেও টপ ফ্লোরের সব গুলো খাবারের দোকান থাকছে ঈদের দিনও খোলা। সেই সঙ্গে স্টার সিনেপ্লেক্স এ ঈদ উপলক্ষে চলবে বেশ কিছু নতুন ছবি। পরিবার পরিজন নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন বসুন্ধরা সিটিতে।

টি

এই বিভাগের আরো সংবাদ