জ্বালানি ও বিদ্যুতে বরাদ্দ ৫.২৮%
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

জ্বালানি ও বিদ্যুতে বরাদ্দ ৫.২৮%

আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে মোট ২১ হাজার ১১৮ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত; যা মোট প্রস্তাবিত বাজেটের ৫ দশমিক ২৮ শতাংশ।

আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে উত্থাপিত ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটে এই প্রস্তাব করেন তিনি।

power

বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন।

জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে মোট বরাদ্দের মধ্যে শুধু বিদ্যুৎ বিভাগের জন্য ১৮ হাজার ৮৯৪ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। এর মধ্যে অনুন্নয়ন খাতে ৪৯ কোটি টাকা এবং উন্নয়ন খাতে ১৮ হাজার ৮৪৫ কোটি টাকা।

চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে বিদ্যুৎ খাতে মোট ১৩ হাজার ৬৩ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছিল। এর মধ্যে অনুন্নয়ন খাতে ২৩ কোটি টাকা এবং উন্নয়ন খাতে ১৩ হাজার ৪০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছিল।

এই হিসাবে চলতি অর্থবছরের তুলনায় আগামী অর্থবছরে বিদ্যুৎ খাতের বরাদ্দ ৫ হাজার ৮৩১ কোটি টাকা বাড়ানো হয়েছে।

২০১৬-১৭ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে বিদ্যুৎ খাতে মোট ব্যয় দেখানো হয়েছে ১৩ হাজার ৪৫০ কোটি টাকা। এর মধ্যে অনুন্নয়ন খাতে ২৯ কোটি টাকা এবং উন্নয়ন খাতে ১৩ হাজার ৪২১ কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে।

অন্যদিকে আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটে জ্বালানি খাতে ২ হাজার ২২৪ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এর আগে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে জ্বালানি খাতে ১ হাজার ৯৭৩ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছিল। তবে চলতি অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে এই খাতে ব্যয় হয়েছে ১ হাজার ১১১ কোটি টাকা।

অর্থমন্ত্রী জাতীয় সংসদকে বলেন, বিদ্যুৎ উৎপাদন ও বিতরণ ব্যবস্থার টেকসই উন্নয়নকে অগ্রাধিকার দেয় আমাদের সরকার। ‘শেখ হাসিনা উদ্যোগ, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’- এ শ্লোগানকে সামনে রেখে বিদ্যুৎ খাতে গৃহীত মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে আমরা কাজ করছি। দেশবাসী ইতোমধ্যে এর সুফল পাচ্ছেন।

তিনি আরও বলেন, বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উল্লেখযোগ্য হারে লোডশেডিং কমেছে। দেশের ৮০ শতাংশ মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় এসেছে। অবশিষ্ট ২০ শতাংশ আগামী ২০২১ সালের আগেই বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আসবে বলে আমি দৃঢ়ভাবে আশা করছি।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ