রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা বাড়ছে ৩৫%
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা বাড়ছে ৩৫%

বিকেলে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য অনুসারে এবারের বাজেটের আকার হবে ৪ লাখ ২৬৬ কোটি টাকা। বিশাল আকারের এই বাজেটে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা রাখা হতে পারে দুই লাখ ৮৮ হাজার কোটি টাকা।  ভ্যাটের দিকে নজর রেখে করা এই রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা ২০১৬-১৭ অর্থবছরের রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রার চাইতে ৩৫ শতাংশ  বেশি করা হয়েছে।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড। ছবি সংগৃহীত

২০১৬-১৭ অর্থবছরে লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ২ লাখ ৫২ হাজার কোটি টাকা। পরবর্তিতে তা কমিয়ে দুই লাখ ৩ হাজার ১৫২ কোটি টাকা করে বাজেট পাশ হয়। তবে অর্থবছরের শেষ দিকে সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রা এক লাখ ৮৩ হাজার ১৫২ কোটি টাকায় নিয়ে আসা হয়।

গত ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরের মূল বাজেটে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় এক লাখ ৭৬ হাজার ৩৭০ কোটি টাকা। পরে তা কমিয়ে এক লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকায় নামিয়ে আনা হয়। কিন্তু অর্থবছর শেষে সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫ হাজার ৫২৮ কোটি টাকা বেশি রাজস্ব আদায় হয়।

এদিকে ২ লাখ ৮৮ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে ২ লাখ ৪৮ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আয় করতে হবে কেবল জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এনবিআরকেই।

সংশ্লিষ্টদের মতে, নতুন ভ্যাট আইনের কারণেই সরকার বেশি রাজস্বিআদায়ের আশা করছে। এনবিআরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গত কয়েক বছর রাজস্ব আদায়ের যে চিত্র তাতে অর্থমন্ত্রীর এই লক্ষ্য পূরণ হতে পারে। তাদের মতে, চলতি বছরের কাঙ্ক্ষিত রাজস্ব প্রবৃদ্ধি অধরা থাকলেও এবার অর্থমন্ত্রীর হাতে আছে ভ্যাট আইনের মোক্ষম অস্ত্র। আর তাতে উতরে যেতে পারেন মুহিত।

এবারও ভ্যাট খাতে ৩৫ শতাংশ বেশি আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা রাখা হচ্ছে। এই খাত থেকে আয়ের লক্ষ্যমাত্র ২০১৬-১৭ অর্থবছরের ৬৫ হাজার কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮৮ হাজার কোটি টাকা করা হচ্ছে।

এছাড়া আয়কর খাত থেকে রাজস্বের লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়েছে ৮৭ হাজার কোটি টাকা। আর শুল্ক খাতে ৭৩ হাজার কোটি টাকা আদায়ের লক্ষ্য রাখা হচ্ছে।

এছাড়া কয়েকটি আয়কর, সারচার্জ, উৎসে করও বাড়তে পারে কয়েক খাতে। আর এই সব মিলিয়েই মুহিতের এই রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হতে পারে।

টি

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ