রোজা, ঈদ, ক্রিকেট ঘিরে ওয়ালটন টিভি বিক্রির ধুম
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » কর্পোরেট সংবাদ

রোজা, ঈদ, ক্রিকেট ঘিরে ওয়ালটন টিভি বিক্রির ধুম

চলছে রমজান। অফিস সময়ে এসেছে পরিবর্তন। কমে এসেছে অফিসের কর্মঘণ্টা। বাইরে গরম। মানুষ ঘরেই বেশিরভাগ সময় কাটাতে পারছেন। এদিকে ইংল্যান্ডে শুরু হচ্ছে চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ক্রিকেট উৎসব। আসছে ঈদ। ফলে বিনোদন পিপাসুদের কাছে বেড়েছে টেলিভিশনের কদর। আর এ উপলক্ষ্যে বেড়েছে ওয়ালটনের টেলিভিশন বিক্রি।

গত রোববার থেকে শুরু হয়েছে রোজা। রমজানে অফিস সময় ৯টা থেকে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত। ফলে মানুষ ঘরে থাকতেই বেশি পছন্দ করছেন। ইসলামী অনুষ্ঠান, খবর এবং রোজার সেহরি ও ইফতারের জন্য সময়সূচি জানতে প্রায় সবাই টেলিভিশন চালু রাখছেন। এদিকে ১ জুন শুরু হচ্ছে ক্রিকেটের অন্যতম বড় আসর চ্যাম্পিয়নস ট্রফি। যেখানে খেলছে বাংলাদেশসহ বিশ্ব ক্রিকেটের সেরা ৮টি দল। উদ্বোধনী ম্যাচেই বাংলাদেশ মুখোমুখি হচ্ছে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের। লন্ডনের কেসিংটন ওভালে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৩টায় শুরু হচ্ছে ম্যাচটি। টুর্নামেন্টের পরবর্তী ম্যাচগুলোর বেশিরভাগের শুরুর সময়ও একই। ফলে অফিস শেষে মানুষ বাসায় ফিরে বেশ ভালোভাবেই উপভোগ করতে পারবেন এসব খেলা। ঘরে বসেই মাঠে খেলা দেখার স্বাদ পেতে প্রয়োজন এমন টেলিভিশনের, যা দেয় ঝকঝকে ও নিখুঁত ছবি ও স্পষ্ট শব্দ। আর এক্ষেত্রে ক্রীড়াপ্রেমি ক্রেতাদের প্রথম পছন্দ ওয়ালটনের এলইডি টিভি।

রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিং মলের ওয়ালটন প্লাজায় টেলিভিশন কিনতে এসেছিলেন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত মারুফ রায়হান। তিনি বলেন, রমজানে অফিস শেষ হচ্ছে তাড়াতাড়ি। এদিকে বিকেল থেকে শুরু হচ্ছে চ্যাম্পিয়নস ট্রফির খেলা। মাশরাফি-সাকিবদের ভক্ত মারুফ বাংলাদেশের খেলা মিস করতে চান না। তাই বাসায় পুরনো সিআরটি টিভি থাকলেও একটি ৩২ ইঞ্চি এলইডি টিভি কিনতে এসেছেন। ‘আমি শুনেছি, দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটনের এলইডি টিভি অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও উচ্চমানসম্পন্ন এবং দামেও সাশ্রয়ী। তাই ওয়ালটন থেকেই কিনলাম।’

সম্প্রতি আয়ারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজে দারুণ পারফর্ম করেছে বাংলাদেশ। সিরিজের শেষ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো আইসিসির ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে ৬ষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছে টাইগাররা। গত কয়েক বছর ধরে তামিম-সাকিব-মাশরাফি-মুশফিকদের ধারাবাহিক পারফরমেন্স চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে বাংলাদেশকে অন্যতম সেরা দলে পরিণত করেছে। ফলে এই টুর্নামেন্ট নিয়ে ক্রীড়াপ্রেমিদের আগ্রহ তুঙ্গে। আর সে কারণেই তারা ছুঁটছেন ভালো মানের টিভি কিনতে। এদিকে রমজান ও ঈদ উপলক্ষ্যেও বেড়েছে টেলিভিশনের চাহিদা ও বিক্রি।

ওয়ালটন টেলিভিশন সোর্সিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের এ্যাডিশনাল ডিরেক্টর মোস্তফা নাহিদ হোসেন বলেন, টেলিভিশন প্রযুক্তি খাতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে ওয়ালটন। ক্রেতাদের চাহিদা ও আগ্রহ অনুযায়ী নিত্য নতুন প্রযুক্তি, বিভিন্ন কালার ও ডিজাইনের ওয়ালটন এলইডি টিভি বাজারে সরবরাহ করা হচ্ছে। ব্যাপক বিনিয়োগ করে আধুনিকায়ন করা হয়েছে ওয়ালটন টিভি কারখানার। দেশেই বিশ্বের লেটেস্ট প্রযুক্তি ও মেশিনারিজের সমন্বয়ে আন্তর্জাতিকমান সম্পন্ন এলইডি টেলিভিশন প্রস্তুত হচ্ছে। এছাড়াও বসানো হয়েছে জার্মান প্রযুক্তির এলজিপি-এলডিপি প্রস্তুতকারক মেশিন। যা এলইডি টিভির পিকচার কোয়ালিটি করবে আরো উন্নত।

তিনি জানান, অভ্যন্তরীণ ও বিদেশের বাজারে ওয়ালটন এলইডি টেলিভিশনের ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটানোর জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। আদ্রতা, তাপ ও ধূলারোধী আইএসও ক্লাস ৭:১০০০০ রুম স্থাপন করা হয়েছে। বসানো হয়েছে উচ্চগতির এসএমটি মেশিন। ফলে বেড়েছে উৎপাদন। বর্তমানে ওয়ালটন কারখানায় বার্ষিক ১.৩ মিলিয়ন এলইডি টেলিভিশন তৈরি হচ্ছে। এ বছরের মধ্যেই বার্ষিক উৎপাদন ২ মিলিয়নে উন্নীত করার জন্য সব রকম প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

মোস্তফা নাহিদ হোসেন বলেন, সম্প্রতি চীনে অনুষ্ঠিত বিশ্বের সর্ববৃহৎ বাণিজ্য মেলা ক্যান্টন ফেয়ারে ব্যাপক প্রসংশিত হয়েছে ওয়ালটন টিভি। বিশেষ করে ওয়ালটন টিভির আউটলুক ও ডিজাইন বিদেশি ক্রেতাদের কাছে সমাদৃত হওয়ায় রপ্তানির বিশাল সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। দেশীয় চাহিদা মিটিয়ে ওয়ালটন এলইডি টিভি এখন রপ্তানি হচ্ছে ভারত, নাইজেরিয়া, ভুটান ও নেপালে। ইতোমধ্যে ওয়ালটন অর্জন করেছে বিআইএস (ব্যুরো অব ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ডস) এবং এসওএনসিএপি (স্ট্যান্ডার্ডস অর্গানাইজেশন অব নাইজেরিয়া) সনদ। এছাড়াও, পূর্ব তিমুর, শ্রীলঙ্কা ও সোমালিয়ায় রপ্তানির জন্য কার্যক্রম চলছে।

ওয়ালটনের বিপণন বিভাগের নির্বাহী পরিচালক এমদাদুল হক সরকার জানান, গত বছরের তুলনায় এবারের রমজানে ৪০-৫০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। বিগত কয়েক দিনের বিক্রির ধারা থেকে টার্গেটের চেয়েও বেশি বিক্রির আশা করা হচ্ছে। এছাড়া, নিজস্ব কারখানায় মৌলিক কাঁচামাল থেকে প্রয়োজনীয় সকল যন্ত্রাংশ তৈরি করায় উৎপাদন খরচ কমে এসেছে বহুলাংশে। কমেছে বিদ্যুৎ খরচও। যার সুফল ভোগ করছেন ক্রেতারা।

ওয়ালটন টেলিভিশন বিপণন বিভাগের প্রধান আব্দুল বারি জানান, ঈদকে কেন্দ্র করে ৩২ ইঞ্চির নতুন ৬টি মডেলের এলইডি টিভি এনেছে ওয়ালটন। এর বাইরে বাজারে ব্যাপক চাহিদার কারণে ২৪ ইঞ্চি ও ৩২ ইঞ্চি এলইডি টিভির উৎপাদন বাড়ানো হয়েছে। বর্তমানে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ১৯ ইঞ্চি থেকে শুরু করে ৫৫ ইঞ্চি পর্যন্ত ৬৬টি মডেলের এলইডি টিভি। এর মধ্যে আছে ৩২ থেকে ৫৫ ইঞ্চি পর্যন্ত ৮ মডেলের স্মার্ট টিভি।

তিনি আরো জানান, ১৯ ইঞ্চি এলইডি টিভি বিক্রি হচ্ছে মাত্র ৮,৯৯০ টাকায়। ২৪ ইঞ্চি এলইডি টেলিভিশন ক্রেতারা পাচ্ছেন মাত্র ১৩,৭০০ টাকায়। উন্নতমানের পিকচার কোয়ালিটি সম্পন্ন ২৮ ইঞ্চি, ৩২ ইঞ্চি এলইডি টিভি বাজারে পাওয়া যাচ্ছে যথাক্রমে ১৬,৯০০ টাকা ও ১৮,৮০০ টাকায়। এছাড়া ওয়ালটন মাত্র ২৩,৯০০ টাকায় দিচ্ছে ৩২ ইঞ্চি ইন্টারনেট ভিত্তিক স্মার্ট টিভি।
ওয়ালটন এলইডি টিভিতে দেয়া হচ্ছে ৬ মাসের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি। এলইডি প্যানেল ও খুচরা যন্ত্রাংশের জন্য ২ বছরের ওয়ারেন্টির সঙ্গে থাকছে ৫ বছরের বিক্রয়োত্তর সেবা।

উল্লেখ, দ্রুত বিক্রয়োত্তর সেবা পৌঁছে দিতে বাংলাদেশে একমাত্র ওয়ালটনেরই আছে আইএসও স্ট্যান্ডার্ড সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। দেশব্যাপী রয়েছে ৬৫টি সার্ভিস সেন্টার ও ৩ শতাধিক সার্ভিস পয়েন্ট। যেখানে কাজ করছেন প্রায় ৩ হাজার প্রকৌশলী ও টেকনিশিয়ান।

বিজ্ঞপ্তি/এসএম

এই বিভাগের আরো সংবাদ