চট্টগ্রামের হোটেল-রেস্টুরেন্টে বাহারি ইফতার আয়োজন
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

চট্টগ্রামের হোটেল-রেস্টুরেন্টে বাহারি ইফতার আয়োজন

রোজাদারদের জন্য বাহারি ও রকমারি ইফতারের আয়োজন করেছে চট্টগ্রামের অভিজাত হোটেল ও রেস্টুরেন্টগুলো। ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের খাবার নিয়ে বিশেষ প্যাকেজ তৈরি করেছে তারা। পাশাপাশি ইফতার পার্টির জন্য বিভিন্ন হল ভাড়ায়ও প্যাকেজ ঘোষণা করেছে হোটেল ও রেস্টুরেন্টগুলো।

নগরীর বড় ও অভিজাত হোটেল-রেস্টুরেন্ট ছাড়াও ইফতারির পসরা সাজিয়েছে ছোট দোকান এবং ফুটপাতের ব্যবসায়ীরা। গতকাল রোববার রমজান মাসের প্রথম দিন থেকেই এসব দোকানে ভিড় করছেন রোজাদাররা। আজ সোমবার দ্বিতীয় রমজানের ইফতারির জন্যও এসব দোকানে ক্রেতার ভিড় দেখা যাচ্ছে।

দ্য অ্যামব্রোসিয়া

চট্টগ্রামে খাবারের ঐতিহ্যে অন্যতম সেরা নাম দি অ্যামব্রোসিয়া। নগরীর আগ্রাবাদের বনানীতে এই রেস্টুরেন্টের ইফতারে পার্সিয়ান হালিম, তার্কিজ শর্মা, অ্যারাবিয়ান কাবাব, গোল্ডেন ফ্রাইড প্রণ, বাস্কেট চিকেনসহ বেশ কিছু আকর্ষণীয় খাবারের ব্যবস্থা রয়েছে। গ্রাহক টানতে প্রতিবারের মতো এবারও ব্যুফে ইফতারের আয়োজন করেছে রেস্টুরেন্টটি। ঝালের পাশাপাশি আছে দই, ফিরনি, দইবড়া, রেশমী জিলাপি, পাটিসাপটা, ছানামঞ্জরী, লালমোহন ইত্যাদি সুস্বাদু খাবার।

Radisson blu chittagong bay view

র‍্যাডিসন ব্লু চিটাগাং বে ভিউ।

রেডিসন ব্লু চিটাগং বে ভিউ

নগরীর একমাত্র পাঁচ তারকা হোটেল ‘রেডিসন ব্লু চিটাগং বে ভিউ’ তে রমজানে ব্যুফে ইফতারে রয়েছে দক্ষিণপূর্ব এশিয়ান, পাকিস্তানি, মধ্যপ্রাচ্যসহ অঞ্চলভিত্তিক ভোজন সামগ্রী ও ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশি ইফতারসামগ্রী। মাসব্যাপী সুস্বাদু খাবারের সমাহারে নৈশ ভোজসহ ইফতারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে জনপ্রতি ২ হাজার ৯৫০ টাকা। রেডিসন ব্লু চিটাগংয়ে এবার মূল আকর্ষণ ‘দ্য রয়্যাল আরাবিয়ান ফাতুর’।

কর্পোরেট ইফতার পার্টির জন্য রয়েছে আটটি বিভিন্ন লাইফ স্টাইলের ইফতার মেন্যু। পার্টির জন্য বলরুম, মেজবান ও মোহনা হল সংরক্ষিত থাকবে। কর্পোরেট ইফতার মেন্যুর মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে জনপ্রতি ১ হাজার ২০০ টাকা। এছাড়া এই হোটেলের লবিতে রাখা হয়েছে বিশেষ ইফতার আয়োজন।

আফগান রেস্টুরেন্ট

নগরীর দুই নম্বর গেটের আফগান রেস্টুরেন্টে রয়েছে আফগানি বিশেষ হালিম। এছাড়া রয়েছে বিভিন্ন প্যাকেজের ফ্যামেলি ইফতার। এক হাজার ৬০০ টাকা থেকে শুরু করে তিন হাজার ১০০ টাকা পর্যন্ত রয়েছে কয়েকটি প্যাকেজে। ইফতার মেন্যুতে রয়েছে আফগানি শরবত, জুস, হালিম, ফিরনি, ছোলা, বেগুনি, মুড়ি, পেঁয়াজু, পানি ইত্যাদি।

হোটেল দ্য পেনিনসুলা চিটাগং। ছবি সংগৃহীত

হোটেল পেনিনসুলা দ্য চিটাগং

আকর্ষণীয় আয়োজনের ইফতার মানেই হোটেল পেনিনসুলা চিটাগং। এবারের ইফতার মেন্যুতে কিউকাম্বার স্লাইস, ফিরনি, প্রণ ও চিকেন ললিপপ, চিকেন স্প্রিং রোল, হালিম, শ্রীলঙ্কান রোল, শাম্মী কাবাব, চিকেন কাটি পরটা, চিকেন কাটলেটসহ বিভিন্ন ধরনের আইটেমে ঠাঁই পেয়েছে। হোটেলের পঞ্চম তলার লেগুনা রেস্টুরেন্টে রয়েছে বুফে ইফতারের সঙ্গে বুফে ডিনার। এর জন্য প্রতিজনের খরচ পড়বে ৩ হাজার টাকা। প্রতি প্যাকেজে ৩টি করে ফ্রি পাবেন ডাচ-বাংলা ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডধারীরা।

হোটেল আগ্রাবাদ।

হোটেল আগ্রাবাদ

৬০ রকমের সুস্বাদু আইটেমের পাশাপাশি ব্যুফে ইফতারের আয়োজন করেছে হোটেল আগ্রাবাদ। এই হোটেলের বিশেষ আইটেমের মধ্যে রয়েছে জিরা পানি, দই জিরা পানি, জুস, হালিম, আখনি, ল্যাম্ব শর্মা, চিকেন শর্মা, বিফ মেজবানি কারি ইত্যাদি।

 

 

পিটস্টপ হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট

নগরীর লালখান বাজার মোড়ের পিটস্টপের ইফতারে থাকছে ৩১টি পদ। এবার টেক অ্যাওয়েতে মাটন হালিম ৫৫০ টাকা, চিকেন হালিম ৪৫০ টাকা, আখনি বিরিয়ানি (বিফ) প্রতি বাক্স ৩০০ টাকা। ব্যুফে ইফতারের জন্য ব্যয় হবে জনপ্রতি ৮৫০ টাকা।

ওয়েস্ট রেস্টুরেন্ট জিইসি

নগরীর জিইসি মোড়ের ওয়েস্ট রেস্টুরেন্টে এবার থাকছে তিন ধরনের ইফতার প্যাকেজ। ৬৩১ টাকায় বাংলা, কন্টিনেন্টাল ও এশিয়ান ইফতারের স্বাদ পাওয়া যাবে। এছাড়া রমজান উপলক্ষে খোলা হয়েছে টেক এওয়ে ইফতার শপ। সেখান থেকে নানা ধরনের ইফতার সামগ্রী কিনতে পারবেন।

এছাড়া চিটাগং ক্লাব লিমিটেড, এস.এ. ফুড, বোম্বাইওয়ালা, হ্যান্ডি, হ্যান্ডি বাংলা, ওয়েল ফুড, হোটেল জামান, ভরদ্রাজ ক্যাফে, ফিনলে স্কয়ার, সানমার, দমফুক, সিনিয়রস ক্লাব, ম্যান্ডারিন, বাসমতি, প্যাভিলিয়ন, মেরিডিয়ান, এমএফসি, ইম্পালা, ওরিয়েন্ট রেস্টুরেন্ট, লর্ডস ইন, ব্রোস্ট ক্যাফে, দ্য গ্যালারি, রয়েল বাংলা সুইটস, কুটুমবাড়ি, কড়াই, রয়েল হাট, রেড চিলি, সিলভার স্পুনসহ অনেক রেস্টুরেন্টে বাহারি ইফতারের আয়োজন করা হয়েছে।

অর্থসূচক/দেবব্রত/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ