রাষ্ট্রায়ত্ত ১১ প্রতিষ্ঠানকে পুঁজিবাজারে আনছে ভারত
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

রাষ্ট্রায়ত্ত ১১ প্রতিষ্ঠানকে পুঁজিবাজারে আনছে ভারত

ভারতে রাষ্ট্রায়ত্ত ১১টি প্রতিষ্ঠানের পুঁজিবাজারে আসার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের মাধ্যমে পুঁজিবাজারে শেয়ার ছেড়ে স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত হবে কোম্পানিগুলো। এ প্রক্রিয়ায় কোম্পানিগুলোর ২৫ শতাংশ পর্যন্ত মালিকানা বেসরকারি খাতে ছেড়ে দেওয়া হবে।

চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরের (১ এপ্রিল, ২০১৭-৩১ মার্চ, ২০১৮) মধ্যে কোম্পানিগুলো পুঁজিবাজারে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ছবি সংগৃহীত

গত মাসে দেশটির অর্থনৈতিক বিষয়ক মন্ত্রীসভা কমিটি আলোচিত কোম্পানিগুলোকে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ওই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।

সবগুলো কোম্পানি কেন্দ্রীয় সরকারের নিয়ন্ত্রণাধীন। এর মধ্যে রেলওয়ের পাঁচটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান রয়েছে। কোম্পানিগুলো হচ্ছে- রেল বিকাশ নিগম লিমিটেড, ইরকন ইন্টারন্যাশনাল, ইন্ডিয়ান রেলওয়ে ফাইন্যান্স করপোরেশন, ইন্ডিয়ান রেলওয়ে ক্যাটারিং অ্যান্ড ট্যুরিজম করপোরেশন (আইআরসিটিসি) লিমিটেড, ভারত ডাইনামিকস লিমিটেড, গার্ডেন রিচ শিপবিল্ডার্স এবং ইঞ্জিনিয়ারস (জিআরএসই), মাজাগন ডক শিপবিল্ডার্স (এমডিএসএল), নর্থ ইস্টার্ন ইলেক্ট্রিক পাওয়ার করপোরেশন (এনইইপিসিও), এমএসটিসি, মিশ্র ধাতু নিগম লিমিটেড।

বিধি অনুসারে, প্রতিটি কোম্পানির আইপিওতে কর্মকর্তা-কর্মচারিদের জন্য কোটা থাকবে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে যে দামে শেয়ার বিক্রি করা হবে তার চেয়ে ৫ শতাংশ কম দামে তারা শেয়ার পাবেন। রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানির প্রতি ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বাড়াতে তাদের জন্যেও ৫ শতাংশ মূল্য-ছাড় থাকবে।

প্রসিডিওর অনুযায়ী বিনিয়োগ ও পাবলিক অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট বিভাগ ১৬৫ দিনের মধ্যে স্টক এক্সচেঞ্জে কোম্পানিগুলোকে তালিকাভুক্ত করাবে।

বুক ভ্যালুর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর তালিকাভুক্তির প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে। উত্তোলিত অর্থ দিয়ে কোম্পানিগুলোর ব্যবসা সম্প্রসারণ ও বহুমুখীকরণ করা হবে।

২০১৭-১৮ সালের বাজেটে সরকারের পরিকল্পনা হচ্ছে ৪৬ হাজার ৫০০ কোটি রূপি ক্ষুদ্র অংশ বিক্রি এবং ১৫ হাজার কোটি বিলগ্নিকৃত বিনিয়োগ থেকে উত্তোলন করা।

এই বিভাগের আরো সংবাদ