'অন্যের সাহায্য ছাড়া চলতে ভ্যাট দিতে হবে'
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘অন্যের সাহায্য ছাড়া চলতে ভ্যাট দিতে হবে’

নতুন ভ্যাট আইনে কোন ভীতি নয়। এটি বাস্তবায়নে ব্যবসায়ীদের ভূমিকা রাখতে হবে। অন্যের সাহায্য না নিয়ে চলতে চাইলে ভ্যাট আইনের বাস্তবায়ন জরুরি; সবাইকে ভ্যাট দিতে হবে।

ভ্যাট আইন বিষয়ক সচেতনতা সৃষ্টি ও প্রশিক্ষণ কর্মশালায় এসব কথা বলেন অতিরিক্ত সচিব ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী খান মোহাম্মদ বিলাল। কাস্টমস এক্সাইজ অ্যান্ড ভ্যাট কমিশনারেট (ঢাকা পূর্ব) এই কর্মশালার আয়োজন করে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ বিলাল আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছি। যার চালিকা শক্তি অর্থ; এর প্রধান যোগানদার এনবিআর। আগে জাতীয় বাজেট হতো ঋণ নির্ভর; এখন হয় অভ্যন্তরীণ সম্পদের উপর। এনবিআরের সহযোগিতায় ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ বাস্তবায়নের কাজ চলছে।

VAT

কাস্টমস এক্সাইজ অ্যান্ড ভ্যাট কমিশনারেট আয়োজিত ভ্যাট আইন বিষয়ক সচেতনতা সৃষ্টি ও প্রশিক্ষণ কর্মশালা।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক খন্দকার মঈনুর রহমান জুয়েল বলেন, ব্যবসায়ীরা ভ্যাট প্রদানে সহজ পদ্ধতি চায়। ব্যবসায়ীদের সমস্যা অনেক। তবে ভ্যাট আদায়ে এফবিসিসিআইয়ের সর্বাত্মক সহযোগিতা থাকবে। ভ্যাট আদায়ে ভোক্তা শ্রেণিকে উদ্ভুদ্ধ করতে হবে। আমরা ব্যবসাবান্ধব সরকারের সঙ্গে আছি।

পুলিশ হেডকোয়ার্টারের অতিরিক্ত ডিআইজি হাবিবুর রহমান বলেন, দেশের উন্নয়নে কর ব্যবস্থা একটি গুরুত্বপূর্ণ নিয়ামক। আইন বাস্তবায়নে এনবিআর যে ভূমিকা নিয়েছে তা অভাবনীয়।

সভাপতির বক্তব্যে ঢাকা পূর্ব কমিশনার ড.এ.কে.এম. নুরুজ্জামান বলেন, পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনাসহ বিভিন্ন উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে সরকার। সরকারি কর্মকর্তা এবং ব্যবসায়ীদের মধ্যে শক্তিশালী পার্টনারশিপ রয়েছে বলেই সেগুলো বাস্তবায়ন সহজতর হচ্ছে।

তিনি বলেন, ১ জুলাই থেকে নতুন ভ্যাট আইন চালু হচ্ছে। সে জন্য ব্যবসায়ীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। ব্যবসায়ীদের সঙ্গে অংশীদারীত্বের ভিত্তিতে কাজ করছে ভ্যাট কর্মকর্তারা।

ড.এ.কে.এম. নুরুজ্জামান বলেন, এসডিজি বাস্তবায়নে জলবায়ু মোকাবিলা জরুরি; তেমনি অভ্যন্তরীণ রাজস্ব আহরণ বাড়ানোও গুরুত্বপূর্ণ। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে পদ্মা সেতুর মতো বড় প্রকল্পের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। এনবিআরের বহুমুখী পদক্ষেপের ফলে এটা সম্ভব হয়েছে। উন্নয়নের মহাসড়কে আছে দেশ। উন্নয়নের স্বার্থেই অভ্যন্তরীণ রাজস্ব সংগ্রহ বাড়াতে হবে।

অর্থসূচক/রহমত/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ