চটি পায়ে ম্যারাথন জয়!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

চটি পায়ে ম্যারাথন জয়!

ইরানের প্রখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক মাজিদ মাজিদির ‘চিলড্রেন অফ হ্যাভেন (১৯৯৭)’ ছবিটির কথা মনে আছে অনেকেরই। প্রথম পুরস্কার নগদ টাকা আর দ্বিতীয় পুরস্কার একজোড়া জুতা। বোনের জুতা দরকার, তাই ভাইটি দৌড়ে প্রথম না হয়ে দ্বিতীয় হতে চায়। কারণ তার জুতার দরকার। বোন সেই জুতা পরে দৌড়াবে বলে।

মেক্সিকোর তরুণী মারিয়া লোরেনা রামিরেজের পায়ে দৌড়ানোর জুতা নেই, নেই পেশাদারি প্রশিক্ষণ; তবুও ম্যারাথন জিতে সবার আলোচনায় চলে এসেছে। মেক্সিকোর তারাহুমারা আদিবাসী সম্প্রদায়ের ২২ বছরের এই তরুণী পুরনো টায়ারের বানানো চটি পায়ে দিয়ে ৫০ কিলোমিটার ম্যারাথন জিতে নিয়েছে। এতে তার সময় লেগেছে ৭ ঘণ্টা ৩ মিনিট।

কোনো পেশাদারি প্রশিক্ষণ ছারাই ম্যারাথন জিতেছে মারিয়া লোরেনা রামিরেজ।

তবে এজন্য ১২টি দেশের ৫০০ প্রতিযোগীকে হারাতে হয়েছে বলে বিবিসি বাংলার এক প্রতিবেদনে জানা গেছে। দৌড়টি অনুষ্ঠিত হয়েছে মেক্সিকোর পুয়েবলায়।

দৌড়ানোতে অসামান্য দক্ষতার জন্য বিশ্বজুড়ে তারাহুমারা সম্প্রদায়ের মানুষের বিশেষ খ্যাতি রয়েছে। তাদের ধর্মীয় বা সাংস্কৃতিক আচার অনুষ্ঠানের একটা অংশে দৌড়কে এমন প্রতিযোগিতা হিসাবে তুলে ধরা, যেখানে নারী, পুরুষ ও শিশুরা সমানভাবে অংশ নিয়ে থাকে। তাছাড়া এ গোষ্ঠীর লোকজন প্রথাগতভাবেই ছড়িয়ে ছিটিয়ে বাস করে। পাশের গ্রামে যেতে বা শিকার ও ব্যবসা বাণিজ্যের কারণে তাদের অনেক দূরে দূরে যেতে হয়। ফলে প্রাকৃতিকভাবেই এরা বেশ পরিশ্রমী। তাছাড়া ভুট্টা থেকে স্থানীয় পদ্ধতিতে বানানো উচ্চ মাত্রার কার্বোহাইড্রেটযুক্ত এক ধরনের বিয়ারও তাদেরকে বেশ শক্তি দিয়ে থাকে।

পেশায় ছাগল আর গবাদি পশু চরানো মারিয়াকে প্রতিদিন ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার হাঁটতে হয়। ম্যারাথনের পুরস্কার হিসেবে তাকে মেক্সিকান মুদ্রায় নগদ ৬ হাজার পেসো (৩২০ ডলার) দেওয়া হয়েছে।

তবে এ অর্থ দিয়ে কি তিনি ভালো জুতা কিনবেন না ঘরের কাজে লাগাবেন, তা জানা যায়নি।

অর্থসূচক/কাঙাল মিঠুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ