পুঁজিবাজারে কিস্তিতে বিনিয়োগ করতে পারেন ইবিএল ইনভেস্টমেন্টসের ‘সঞ্চয়ে’
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

পুঁজিবাজারে কিস্তিতে বিনিয়োগ করতে পারেন ইবিএল ইনভেস্টমেন্টসের ‘সঞ্চয়ে’

বিনিয়োগের নতুন দিগন্ত- এই স্লোগান নিয়ে বিনিয়োগকারীদের জন্য ইবিএল ইনভেস্টমেন্টস্ লিমিটেড নিয়ে এলো মাসিক বিনিয়োগ স্কিম ‘সঞ্চয়’। পুঁজিবাজারে নতুন বিনিয়োগকারী আকৃষ্ট করতে প্রতিষ্ঠানটির এই উদ্যোগ।

প্রতিষ্ঠানটির উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ করে জানা যায়, স্বল্প ফির মাধ্যমে হিসাব খোলা, বিমা কাভারেজ ও কোম্পানির তথ্য বিশ্লেষণ করে বিনিয়োগের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের হাতে ভালো মুনাফা তুলে দিতে চান তারা।

ইতোমধ্যে কোম্পানির নিজস্ব পোর্টফোলিওর টাকা বাজারে বিনিয়োগের মাধ্যমে এই সফলতা অর্জন করেছে প্রতিষ্ঠানটি। ওই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে সঞ্চয়ের বিনিয়োগকারীদের হাতেও ভালো লভ্যাংশ তুলে দিতে চান তারা।

বিনিয়োগের বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বলা হয়, এই পণ্যটি দেখাশোনা করার জন্য রয়েছে ইবিএলআইএলের দক্ষ গবেষণা সেল। তাদের বিশ্লেষণ অনুযায়ী, ব্লুচিপস বা প্রবৃদ্ধিমূলক কোম্পানিগুলোতে সুপরিকল্পিত ও দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগের মাধ্যমে ন্যূনতম ১৬ থেকে ২০ শতাংশ হারে মুনাফা অর্জন করা সম্ভব; যা ব্যক্তিগত বিনিয়োগে মূলধনী লাভের উপর সম্পূর্ণ করমুক্ত। সুতরাং, পুঁজিবাজারে ভালো শেয়ারে ধীরে ধীরে বিনিয়োগের মাধ্যমে পোর্টফোলিও গঠন করে ব্যাংকের এফডিআরের চেয়ে অনেক বেশি মুনাফা অর্জন করা যায়।

কী আছে সঞ্চয়ে

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে প্রতিষ্ঠানটির প্রাইমারি মার্কেটের প্রধান পংকজ কুমার মুৎসুদ্দী অর্থসূচককে বলেন, এটি মাসিক ডিপিএসের মতো একটি আর্থিক পণ্য/ সেবা। বিনিয়োগকারীরা মাত্র ৪০০ টাকা ফি দিয়ে হিসাব খুলতে পারবেন। একজন বিনিয়োগকারী সর্বনিম্ম ১ হাজার টাকা থেকে শুরু করে যেকোনো গুণিতক পরিমানে প্রতিমাসে বিনিয়োগ করে তার সঞ্চয়কে সমৃদ্ধ করতে পারবেন।

তিনি বলেন, যা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ বাড়াতে সহায়তা করবে। এই বিনিয়োগের মেয়াদ হবে ৩, ৫ ও ৭ বছর। বিনিয়োগকারীরা চাইলে বিনা খরচে মেয়াদ বৃদ্ধি করতে পারবেন অথবা অন্য প্রকল্পে পুঁজি পরিবর্তন করতে পারবেন। বিনিয়োগকারীরা চাইলে বছরে সর্বনিম্ম ৩৩ হাজার টাকা থেকে সর্ব্বোচ ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত বিমা কাভারেজ নিতে পারবেন।

পংকজ কুমার আরও বলেন, এই কাভারেজ স্বাভাবিক ও দুর্ঘটনাজনিত মুত্যু, স্থায়ী শারীরিক অক্ষমতার জন্য হতে পারে; যা ভবিষ্যতে পরিবারের আর্থিক নিশ্চয়তা ও সঞ্চয়ের নতুন মাত্রা সৃষ্টি করবে। আর বিনিয়োগকারীদের সুবিধার কথা চিন্তা করে টাকা জমা দেওয়ার জন্য রাখা হয়েছে অটো ডেবিট/ ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফারের সুবিধা। এতে করে বিনিয়োগকারীকে প্রতিষ্ঠানের কাছে স্বশরীরে না আসলেও হবে।

প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মইনুল হোসেন আসিফ অর্থসূচককে বলেন, সুপরিকল্পিত ও সহজভাবে তহবিল ব্যবস্থাপনার সুযোগ না থাকায় অনেকের আগ্রহ থাকা সত্ত্বেও পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের আগ্রহ হারাচ্ছে। আগ্রহী নতুন ও ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের কথা চিন্তা করে আমরা সঞ্চয় নামে মাসিক বিনিয়োগ স্কিম চালু করতে যাচ্ছি। আমরা মনে করি এই পণ্যের মাধ্যমে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের নতুন দিগন্ত সৃষ্টি করবে।

প্রতিষ্ঠানটির তহবিল ব্যবস্থাপকের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত ৩ বছরের টালমাটাল বাজারেও কোম্পানি তার নিজস্ব বিনিয়োগে আশানুরূপ মুনাফা অর্জন করেছে। সুতরাং, দীর্ঘমেয়াদী সুপরিকল্পিত বিনিয়োগে আশানুরূপ মুনাফা অর্জন করা সম্ভব বলে বিশ্বাস করি।

স্কিমটি সর্ম্পকে বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুন: ইফতেখার আহমদ, অফিসার, ইবিএলআইএল, ০১৭১৯-০১০৩৩৩।

অর্থসূচক/গিয়াস/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ