'মধ্যম আয়ের দেশ গড়তে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন দরকার'
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘মধ্যম আয়ের দেশ গড়তে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন দরকার’

দেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত করতে আগামী ১ জুলাই থেকে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন কাস্টমস, এক্সাইজ এন্ড ভ্যাট কমিশনারেট ঢাকা পূর্ব কমিশনার ড. একেএম নুরুজ্জামান।

তিনি বলেন, নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়িত হলে অভ্যন্তরীণ রাজস্ব বৃদ্ধি পাবে। যার ফলে মাথাপিছু আয় বাড়বে। যুগোপযুগী এ আইন বাস্তবায়নে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

আজ সোমবার রাজধানীর রমনা পার্কে ইউরো এশিয়ানো রেস্টুরেন্টে ঢাকা (পূর্ব) কমিশনারেটের সূত্রাপুর এবং রূপগঞ্জ বিভাগের সহযোগিতা অনলাইন ভিত্তিক ভ্যাট ব্যবস্থার বিষয়ে সচেতনতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইনের উপর আমাদের অংশীজন,  এফবিসিসিআই এর প্রতিনিধি, স্থানীয় চেম্বারের প্রতিনিধি এবং ব্যবসায়ীদের অংশীদারীত্বের ভিত্তিতে এ প্রশিক্ষণ কর্মশালা  অনুষ্ঠিত হয়।

প্রশিক্ষণ কর্মশালায় নতুন ভ্যাট আইনের ধারা ও বিধিমালার বিস্তারিত আলোচনায় সকল করদাতা ও ব্যবসায়ীরা অংশগ্রহণ করেন।

একেএম নুরুজ্জামান বলেন, দেশের উন্নয়নের জন্য প্রত্যেককে কর প্রদানের সক্ষমতা অনুযায়ী কর দেওয়া প্রয়োজন।আমাদের দেশে পদ্মা সেতুর মতো বড় বড় উন্নয়নমূলক কাজ হচ্ছে, আর এজন্য প্রয়োজন সকলকে সক্ষমতা অনুযায়ী কর প্রদান করা।

কমিশনার উপস্থিত সকলের বক্তব্যের সাথে একমত পোষণ করে বলেন, সকলের বক্তব্য থেকে এটা স্পষ্ট যে, দেশ গঠনে সকলে কর ও ভ্যাট প্রদানে আগ্রহী।

“সকলের জানা আছে, এসডিজি বাস্তবায়নের লক্ষে বর্তমান বিশ্বয়াযনের যুগে জলবায়ু মোকাবিলা করা অতি জরুরি, তার চেয়ে বেশি জরুরি অভ্যন্তরীণ সম্পদ সংগ্রহ করা।”

নতুন ভ্যাট আইনে বহুবিধ সুবিধার কথা কর্মকর্তাগণ ইতোমধ্যে ব্যাখ্যা করেছেন। তিনি তাদের বক্তব্যের সাথে একমত পোষন করে বলেন, নতুন ভ্যাট আইন অনেক বেশি ব্যবসাবান্ধব, বিনিয়োগবান্ধব, করবান্ধব হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মোহাম্মদ আলী মিয়া বলেন, বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়ন ব্যতীত আজ স্বপ্নের পদ্মা সেতুর কাজ প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। আর এই এগিয়ে চলার পেছনে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব বহন করছে এ দেশের ব্যবসায়ীগণ। যত বেশি কর দেবে তত বেশি দেশের উন্নয়ন হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এফবিসিসিআই পরিচালক হেলেনা জাহাঙ্গীর বলেন, ব্যবস্যাবান্ধব পরিবেশ তৈরির লক্ষে ভ্যাট এর হার কমিয়ে  নতুন মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন ২০১২ সংশোধন দরকার।

অর্থসূচক/রহমত/এস

এই বিভাগের আরো সংবাদ