সৌদির সঙ্গে ট্রাম্পের ১১ হাজার কোটি ডলারের অস্ত্র চুক্তি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

সৌদির সঙ্গে ট্রাম্পের ১১ হাজার কোটি ডলারের অস্ত্র চুক্তি

সৌদি আরব সফরের প্রথম দিন গতকাল শনিবার মোট ৩৫ হাজার কোটি ডলারের চুক্তি সই করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর মধ্যে রয়েছে ১১ হাজার কোটি ডলারের অস্ত্র চুক্তি; একে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় একক অস্ত্র চুক্তি বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ।

আজ রোববার বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে আরও জানানো হয়েছে, সৌদি আরবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সফরের প্রথম দিনটি অসাধারণ কেটেছে। সফরের দ্বিতীয় দিন আজ রোববার রিয়াদে আরব ইসলামিক আমেরিকান সম্মেলনে শান্তিপূর্ণ ইসলামের আশাবাদ বিষয়ে বক্তব্য রাখবেন তিনি। সেখানে ৪০টি মুসলিম দেশের নেতা উপস্থিত থাকবেন।

Trump at Saudi Arab

সৌদি আরবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সৌদি আরবের সঙ্গে চুক্তি সইয়ের পর হোয়াইট হাউজের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দেশটির সঙ্গে করা চুক্তিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল একটি অস্ত্র চুক্তি। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় একক অস্ত্র চুক্তি এটি।

অস্ত্র চুক্তির প্রসঙ্গে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন বলেন, সৌদির আঞ্চলিক প্রতিদ্বন্দ্বী এবং ইরানের হুমকি মোকাবেলার উদ্দেশ্যে এই চুক্তি করা হয়েছে। প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম এবং অন্যান্য সহযোগিতা সৌদি আরব এবং পুরো উপসাগরীয় অঞ্চলকে নিরাপত্তা দেবে। ইরানের ক্ষতিকর প্রভাবের মুখে এবং ইরান সম্পর্কিত যে সব হুমকি সৌদি আরব সীমান্তের চারদিকে অবস্থান করছে- সেই বিষয়ে নিরাপত্তায় বিশেষ ভূমিকা রাখবে এই চুক্তি।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই সফরকে যুক্তরাষ্ট্র এবং আরব ইসলামী দেশগুলোর মধ্যে বর্তমান সম্পর্কের একটি নতুন অধ্যায়ের সূচনা হিসেবে বর্ণনা করেছেন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল জুবায়ের।

এর আগে গতকাল শনিবার ডোনাল্ড ট্রাম্প সৌদি আরবে পৌঁছানোর পর তাকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানিয়েছিলেন বাদশাহ সালমান। একই গাড়িতে চড়ে বিমানবন্দর ত্যাগ করেন তারা। দিনের বেশিরভাগ সময় একইসঙ্গে ছিলেন বাদশাহ সালমান এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ক্ষমতাগ্রহণের পর ট্রাম্পের প্রথম বিদেশ সফর এটি। এই সফরে তার সঙ্গে আছেন ফার্স্ট লেডি মেলেনিয়া ট্রাম্প; মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্প; জামাতা জ্যারেড কুশনার এবং প্রশাসনের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তা। সৌদি আরব সফর শেষে ইসরায়েল, ফিলিস্তিন, ব্রাসেলস, ভ্যাটিকান এবং সিসিলি সফর করবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

প্রসঙ্গত, নির্বাচনী প্রচারণার সময় যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিমদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার আহ্বান জানিয়ে বিতর্কিত হয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ক্ষমতাগ্রহণের পর ৭টি মুসলিম প্রধান দেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন তিনি। তবে তার সেই নিষেধাজ্ঞা আটকে দিয়েছে আদালত।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ