ভৈরবে অটোরিক্সা-কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে নিহত ১
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ভৈরবে অটোরিক্সা-কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে নিহত ১

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে সিএনজি চালিত অটোরিক্সা ও কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক যুবক নিহত হয়েছে। এতে আহত হয়েছে অন্তত ৪ জন।

আজ বুধবার দুপুরে ঢাকা-ভৈরব-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভৈরবের কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়নের গাজীরটেক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত যুবকের নাম হানিফ মিয়া (৩০)। হানিফ মিয়া কুলিয়ারচর উপজেলার ছয়সূতি গ্রামের মৃত মুসলিম মিয়ার ছেলে।

আহতদের মধ্যে কুলিয়ারচরের ডুমড়াকান্দা এলাকার পিয়ারা বেগম (২০), একই এলাকার লীনা বেগম (৩০), ছয়সূতির রেহেনা (৩০) ও সিএনজি অটোরিক্সা চালক ভৈরবের কালিকাপ্রসাদ এলাকার হাদিস মিয়াকে (৩০) কে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা:একেএম জাহাঙ্গীর জানান, আহতদের সবাই আশংকামুক্ত।

পুলিশ জানিয়েছে, হতাহত ব্যক্তিরা সবাই সিএনজি অটোরিক্সার যাত্রী। দূর্ঘটনার পর কাভার্ডভ্যানটি ফেলে চালক পালিয়ে যায়।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানায়, আজ দুপুর আড়াইটার দিকে ভৈরবের কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়নের গাজীরটেক এলাকায় ভৈরব থেকে কুলিয়ারচরগামী একটি যাত্রীবাহী সিএনজি চালিত অটোরিক্সা এবং বিপরীত দিক থেকে আসা ভৈরব অভিমুখী একটি কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষ হয়। এ সময় যাত্রীবাহী সিএনজি অটোরিক্সাটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। দূর্ঘটনার পর আহত যাত্রীদের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে নেওয়ার পর হানিফ মিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেবার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। পরে ঢাকার নেওয়ার জন্য অ্যাম্বুলেন্সে ওঠানোর পরপরেই মারা যান হানিফ মিয়া।

খবর পেয়ে ভৈরব হাইওয়ে থানা পুলিশ নিহতের লাশসহ দূর্ঘটনা কবলিত অটোরিক্সা ও কাভার্ডভ্যানটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে রাতে নিহত হানিফ মিয়ার স্বজনরা হাইওয়ে থানায় এসে লিখিত আবেদনের মাধ্যমে ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ নিয়ে যায় বলে জানিয়েছেন ভৈরব হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম মিজানুল হক।

এ বিষয়ে নিহত হানিফ মিয়ার বড়ভাই খায়ের মিয়া বাদী হয়ে ভৈরব থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মোস্তাফিজ/এসএম

এই বিভাগের আরো সংবাদ