২০১৮ সালেই 'গোল্ডেন রাইসের' বাণিজ্যিক চাষ শুরু
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

২০১৮ সালেই ‘গোল্ডেন রাইসের’ বাণিজ্যিক চাষ শুরু

কয়েক বছরের ধারাবাহিক গবেষণার পর এবার জেনটিক্যালি মোডিফাইয়েড গোল্ডেন রাইসের উৎপাদন বাণিজ্যিকভাবে শুরু করবে বাংলাদেশ। কৃত্রিমভাবে ভিটামিন এ ও ডি সমৃদ্ধ এই ধানের চাষ ২০১৮ সালের মধ্যেই শুরু হবে বলে জেনেটিক লিটারেসি প্রজেক্ট ডট ওআরজির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কৃষির এই জৈব প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে বাংলাদেশে ভিটিমিন সমৃদ্ধ এই ধান চাষে এক ধরনের বিপ্লব আসবে। বাংলাদেশের অনেক গবেষক ও বিজ্ঞানী নতুন জাতের এই ধান চাষে বিশেষ সাফল্য পেয়েছেন।

তবে কোনো কোনো গবেষক এই ধানকে বিজ্ঞানের আশীর্বাদ বলে মনে করলেও অনেক বিশেষজ্ঞের মতে, জিএম প্রযুক্তির এক নতুন আগ্রাসন এই ধান। এটিতে অভ্যস্ত হওয়া মানে বীজ ও কৃষি সরঞ্জামের কোম্পানিগুলোর হাতে কৃষক জিম্মি হয়ে যাওয়া।

গোল্ডেন রাইস হলো বিটা ক্যারোটিন সমৃদ্ধ জিএম প্রযুক্তির মাধ্যমে দেশি জাতের রূপান্তরিত ধান। গোল্ডেন রাইসের মূল আবিষ্কারক হলেন সুইস ফেডারেল ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির প্ল্যান্ট সায়েন্স ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানী ইনগো পোত্রিকাস এবং জার্মানির ফ্রেইবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক পিটার বেয়ার।

গোল্ডেন রাইস তৈরি করা হয়েছে ধানের জিনোমে ভুট্টা অথবা ড্যাফোডিল ফুল থেকে নেওয়া ‘ফাইটোন সিনথেজ’ জিন ও মাটির ‘অ্যারওইনিয়া ইউরেদোভোরা’ নামক ব্যাকটেরিয়া থেকে নেওয়া ‘ক্যারোটিন ডিস্যাচুরেজ’ জিন প্রবেশ করানোর মাধ্যমে। এই দুটি জিন ধানের এন্ডোস্পার্মে বিটা ক্যারোটিন তৈরিতে কাজ করে। বিটা ক্যারোটিন হলো ভিটামিন ‘এ’-এর আগের অবস্থা।

প্রায় এক যুগ আগে বাংলাদেশি বিজ্ঞানী সাবেক আইআরআরআই বায়োটেকনোলজিস্ট স্বপন কে দত্ত সর্বপ্রথম বাংলাদেশে সুপরিচিত বিআর-২৯ জাতের ধানে জিএম প্রযুক্তির মাধ্যমে জিন প্রতিস্থাপন করেন। কৃষকদের কাছে অত্যন্ত সুপরিচিত ধানের জাতগুলোকে গোল্ডেন রাইস প্রযুক্তি ব্যবহারের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশে গোল্ডেন রাইস প্রবর্তনের জন্য বহুজাতিক কোম্পানি সিনজেনটা এবং বাংলাদেশ ধান গবেষণা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এর ভিত্তিতেই বাংলাদেশের বিআর-২৯ জাতের ধানটি জেনেটিক্যালি মোডিফাই করার জন্য সিনজেনটা কোম্পানিকে দায়ত্ব দেওয়া হয়েছে।

বিআরআরআই ২০১৩ সালের এপ্রিলে দেশে গোল্ডেন রাইস গবেষণার জন্য কৃষি মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন পায় এবং ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে নির্দিষ্ট পরিসরে পরীক্ষামূলকভাবে গোল্ডেন রাইস চাষ করার জন্য পরিবেশ মন্ত্রণালয় ছাড়পত্র দেয়।

বাংলাদেশ, ফিলিপাইনের মতো দেশগুলোতে রাতকানা দূর করার মতো মানবিক প্রকল্পের মাধ্যমে কৃষিতে জিএম প্রযুক্তির ভালো দিকটিকে তুলে ধরার চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে আন্দোলনকারীরা এখনও এর বিরোধীতা করে যাচ্ছেন।

টি

এই বিভাগের আরো সংবাদ