আবাসন খাতে ১৫% ভ্যাট না নেওয়ার সুপারিশ মন্ত্রীর
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

আবাসন খাতে ১৫% ভ্যাট না নেওয়ার সুপারিশ মন্ত্রীর

আবাসন ব্যবসায় ১৫ শতাংশ ভ্যাট আদায় করা হলে এ খাতের ব্যবসা গুটিয়ে ফেলতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন  গৃহায়ন ও গণপূ্র্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

তিনি বলেন, এ খাতের ব্যবসা ধরে রাখতে হলে ঢালাওভাবে ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ না করে বিকল্প চিন্তা করতে হবে।

আজ রোববার ঢাকা ক্লাবে সেন্টার ফর কমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক (সিসিএন) আয়োজিত ‘জাতীয় অর্থনীতিতে আবাসন খাত’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছেন গৃহায়ন ও গণপূ্র্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। ছবি মহুবার রহমান

আজ রোববার ঢাকা ক্লাবে সেন্টার ফর কমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক (সিসিএন) আয়োজিত ‘জাতীয় অর্থনীতিতে আবাসন খাত’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি দেশ আবাসন খাতকে প্রাধান্য দিয়েছে। অনেক দেশে এ খাতে ৩০ বছরের জন্য ৩ শতাংশ সুদে ঋণ দেওয়া হয়। তারা পারলে আমরা পারবো না কেন? আমি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করবো, যাতে এ খাতে সিঙ্গেল ডিজিটে ঋণ দেওয়া যায়। সোনালী ব্যাংক ইতোমধ্যে এ খাতে ঋণের সুদ ৫ শতাংশে নামিয়েছে।

তিনি বলেন, ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে আয়কর দাতা মাত্র ১২ লাখ। ট্যাক্সের আওতা না বাড়িয়ে শুধু তাদের থেকেই ট্যাক্স নেবেন; আর বাকিদের ফ্রি সুবিধা দেবেন- এটা হতে পারে না। ১৬ কোটির মধ্যে কমপক্ষে ৮ কোটি লোকের ট্যাক্স দেওয়ার ক্ষমতা আছে। এনবিআর যদি বন্ধুসুলভ ব্যবহার করে, গ্রামেগঞ্জে গিয়ে মানুষকে হয়রানি না করে তাহলে সবাই ট্যাক্স দেবে।

মন্ত্রী বলেন, ব্যবসায় শুধু লাভ নয়; লোকসানও হয়- এটা এনবিআরকে মানতে হবে। ট্যাক্সনেট বাড়ানোর উপায় খুঁজে নিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আগামীতে শুধু বহুতল ভবনই নির্মাণ করবে রাজউক, সিডিএ, কেডিএ, আরডিএ। বড়লোক-গরীব সবার জন্য অ্যাপার্টমেন্ট হবে।

গৃহায়ন ও গণপূ্র্তমন্ত্রী এ সময় বস্তিবাসীদের জন্য বহুতল ভবন নির্মাণের ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য ভাড়াভিত্তিক ১০ হাজার বহুতল ভবন নির্মাণ করা হবে। সাড়ে ৫০০ স্কয়ার ফিটের ফ্ল্যাটে ১ বেডরুম, ড্রয়িং রুম, কিচেন, বাথরুম থাকবে। এগুলো ১৬ থেকে ১৮ তলার ভবন হবে। দৈনিক ২৭০ টাকা ভাড়ায় এসব অ্যাপার্টমেন্টে ৪-৫ জন্য কর্মঠ ব্যক্তি থাকবে।

তিনি বলেন, আমাদের টার্গেট ১০ হাজার অ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণ করা। তবে প্রাথমিকভাবে ৫০০ অ্যাপার্টমেন্ট নির্মাণ করা হবে। এতে ২০ হাজার পরিবার বসবাসের সুযোগ পাবে।

সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান।

অর্থসূচক/রহমত/এসএম

এই বিভাগের আরো সংবাদ