মুখ জীবানুমুক্ত রাখার কিছু উপায়
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

মুখ জীবানুমুক্ত রাখার কিছু উপায়

শরীর পরিষ্কার রাখার জন্য এর প্রয়োজনীয়তার কথা আমরা জানি। কিন্তু শরীর এর মতোই প্রতি দিন মুখের ভিতর থেকেও টক্সিন (দূষণ)  দূর করাও প্রয়োজন। হজম শক্তি বাড়ানোর জন্য শরীর জীবানুমুক্ত রাখা প্রয়োজন। আর হজমের প্রথম ধাপ শুরু হয় মুখ থেকেই। মুখ ঠিক মতো পরিস্কার না করলে দাঁতে হলুদ ছোপ, নিশ্বাসে দুর্গন্ধের মতো সমস্যা হতে পারে। তাই জেনে নিন মুখ জীবানুমুক্ত করতে রোজ কী করবেন।

নারকেল তেলের অনেক ব্যবহার।

তেল

মুখে ১ টেবিল চামচ নারকেল তেল ২০ মিনিট রেখে দিন। এই তেল যেমন ব্যাক্টেরিয়া দূর করতে সাহায্য করে, তেমনই দাঁত থেকে টক্সিন দূর করে হলুদ ছোপও তুলে দেবে। শুধু মুখ নয়, শরীর দূষণমুক্ত করতেও সাহায্য করে নারকেল তেল। প্রথমেই ২০ মিনিট মুখে রাখা সম্ভব হবে না। শুরু করুন ২ মিনিট দিয়ে। ধীরে ধীরে সময় বাড়ান। তেল মুখ থেকে ফেলার পর গরম পানিতে মুখ ধুয়ে নিন। সপ্তাহে এক দিন করুন।

নিয়মমতো জিহ্বা পরিস্কার করা উচিত।

জিভ পরিষ্কার

নিয়মিত জিহ্বা পরিষ্কার করলে ব্যাক্টেরিয়া, খাবারের টুকরো, মরা কোষ দূর হয়। টক্সিন দূর করার পাশাপাশি নিয়মিত জিভ পরিষ্কার মেটাবলিজমেও সাহায্য করে।

ম্যাসাজ

টি ট্রি অয়েলের অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল, অ্যান্টিফাংগাল, অ্যান্টিভাইরাল, অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট  গুণ রয়েছে। ঠিক তেমনই নিম তেল মাড়ি থেকে রক্তপাত রুখতে পারে। এই দুই তেল কয়েক ফোঁটা করে মিশিয়ে মাড়িতে মাসাজ করুন কয়েক মিনিট। সারা রাত রেখেও দিতে পারেন বা ২ ঘণ্টা পর পানি দিয়ে কুলকুচি করে মুখ ধুয়ে নিন।

মাউথ ওয়াশ। ফাইল ছবি।

মাউথ ওয়াশ

লবঙ্গ, পুদিনা ও পার্সলের অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল গুণ রয়েছে। যা নিশ্বাসে দুর্গন্ধ দূর করতে সাহায্য করে। তিনটি লবঙ্গ, একমুঠো পুদিনা ও কয়েকটা পার্সলে পাতা এক সঙ্গে ২ কাপ পানিতে সিদ্ধ করে নিন। এই পানি দিয়ে দিনে দুই বার ভালো করে কুলকুচি করুন।

অর্থসূচক/তাবাচ্ছুম/কাঙাল মিঠুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ