রংপুরে সর্বাত্মক অবরোধ চলছে: কাল হরতাল

Rangpur_08-12-13উত্তরের বিভাগীয় নগরী রংপুরে তৃতীয় দফা অবরোধের দ্বিতীয় দিনে শান্তিপূর্ণভাবে অবরোধ চলছে।  এটাকে নগরবাসী স্বতস্ফুতভাবে সর্বাত্মক অবরোধ পালন করছে বলে দাবী করেছে আঠারো দলীয় জোট নেতৃবৃন্দ।

পুলিশ সাতমাথা এলাকা থেকে মোটরসাইকেল সহ একজনকে গ্রেফতার করেছে। এদিকে আগামিকাল রংপুর বিভাগের আট জেলায় সকাল সন্ধ্যা হরতালের সমর্থনে দুপুরে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ছাত্রদল। যুবদলও হরতালে সমর্থন দিয়েছে।

সকাল থেকেই রংপুর মহানগরীর সাতমাথায় আঠারো দলীয় জোটের আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর হোসেনের নেতৃত্বে মঞ্চে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে। এতে বিএনপি, জামায়াত, জাগপা, যুবদল, ছাত্রদল, শিবির, স্বেচ্ছাসেবকদল সহ আঠারো দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

সকাল ১০ টার দিকে পুলিশ অবরোধ মঞ্চের কাছ থেকে ফরিদ উদ্দিন নামে একজনকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায়। ভোরের দিকে পায়রা চত্বরে শিবির নেতাকর্মীরা রাস্তায় আগুন দিয়ে বিক্ষোভ করে।

অন্যদিকে দুপুরে কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতাদের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে সোমবার রংপুর বিভাগের আট জেলায় ডাকা হরতালের সমর্থনে বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ করেছে রংপুর জেলা যুবদল ও ছাত্রদল।

দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি মাহফুজ উন নবী ডন, সোমবার রংপুর বিভাগের আট জেলা ও আটান্ন উপজেলার মানুষকে সর্বাত্মকভাবে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের আহবান জানান।

এদিকে যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নাজমুল আলম নাজু হরতালের প্রতি সমর্থণ জানিয়ে যুবদল সভাপতি রইচ আহমেদ, সেক্রেটারী আনিছুর রহমান লাকুসহ অন্যান্য নেতাদের মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানান।

জেলা গোয়েন্দা বিভাগের উপ পরিদর্শক শরিফুল ইসলাম জানান, অবরোধের সময় সাতমাথা থেকে ফরিদ উদ্দিন নামেন জামায়াত কর্মীকে আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

রংপুর জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক সামসুজ্জামান সামু দাবী করেছেন, রংপুর মহানগরীসহ পুরো জেলায় জনগন একাত্ম হয়ে স্বতস্ফুর্তভাবে সর্বাত্মক অবরোধ পালন করে এই সরকারের প্রতি অনাস্থা জানাচ্ছে। সরকার যত দ্রুত সেটি বুঝবে ততোই ভালো। নইলে গণঅভ্যুত্থান তৈরি হবে রংপুর অঞ্চলে।