'চাঁদাবাজি না কমলে মাংসের দামও কমবে না'
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘চাঁদাবাজি না কমলে মাংসের দামও কমবে না’

বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির ব্যানারে চলা ধর্মঘট স্থগিত করা করা হয়েছে। বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলন করে ধর্মঘট প্রত্যাহারের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবে সংগঠনটি। তবে চাঁদাবাজি না কমলে মাংসের দাম কমাতে কোনো ভূমিকা তারা রাখতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির মহাসচিব রবিউল আলম।

তবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে মাংস ব্যবসায়ী সমিতির দাবির সঙ্গে একমত পোষণ করা হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, ব্যবসায়ীরা যে নিরাপত্তা ঝুঁকির কথা বলেছেন সে বিষয়ে শিগগিরই পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

রাজধানীর একটি মাংসের দোকান- ছবি সংগৃহীত

রাজধানীর একটি মাংসের দোকান- ছবি সংগৃহীত

আজ রোববার সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি তার এই বক্তব্য সংবাদমাধ্যমের কাছে তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, ভারতে যেখানে ১৬০ টাকায় গরুর মাংস এবং ২৫০ টাকায় খাসির মাংস পাওয়া যায়, সেখানে বাংলাদেশে ৫০০ ও ৮০০ টাকায় মাংস বিক্রি করেও পুঁজি বাঁচানো যাচ্ছে না।

তিনি অভিযোগ করেন, ব্যবসায়ীরা গাবতলীতে যেতে পারছেন না। স্থানীয় সন্ত্রাসী কালা মইজা বাহিনী বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। সে যে কোনো সময় তারা ব্যবসায়ীদের ওপর হামলা করতে পারে।

এই অবস্থায় যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা রোধে তিনি সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন বলে জানান রবিউল আলম।

রবিউল আলম বলেন, ক্রেতাদের গলা কেটে টাকা আদায় করতে আমাদের ইচ্ছে করে না। কিন্তু হুণ্ডি ব্যবসায়ী, চাঁদাবাজ ও ইজারাদারদের কারণে আমাদের তা করতে হচ্ছে।

তিনি বলেন, আপনারা জানেন ইতোমধ্যেই ধর্মঘট স্থগিত করা হয়েছে। আজ বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করে ধর্মঘট প্রত্যাহারের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে।

এসময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সফিউল হক বলেন, আমরা মাংস ব্যবসায়ী সমিতির দাবির সঙ্গে একমত। তারা বলছেন, কম টাকায় মাংস খাওয়াবেন। আমরাও চাই সাধারণ মানুষ কম টাকায় মাংস কিনতে পারেন। ব্যবসায়ীরা যে নিরাপত্তা ঝুঁকির কথা বলেছেন সে বিষয়ে আমরা পদক্ষেপ নেবো।

বৈঠকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি ছাড়াও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন।

অর্থসূচক/আজম/এসএম

এই বিভাগের আরো সংবাদ