ত্রাণবাহী জাহাজ সোনাদিয়া দ্বীপে নোঙর করেছে
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ত্রাণবাহী জাহাজ সোনাদিয়া দ্বীপে নোঙর করেছে

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের অসহায় রোহিঙ্গাদের খাবার ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় ত্রাণবাহী মালয়েশিয়ার জাহাজটি কিছুক্ষণ আগে কক্সবাজারের সোনাদিয়া দ্বীপের কাছে ভিড়েছে।

বিবিসি বাংলার এক প্রতিবদেনে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক আলী হোসেনের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, নট্যিক্যাল আলিয়া নামের ত্রাণবাহী জাহাজটি কিছুক্ষণ আগে সোনাদিয়া দ্বীপের কাছে নোঙর করেছে।

মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ নিয়ে যাওয়ার পর ইয়াঙ্গুনে জাহাজটি প্রতিবাদের মুখে পড়ে। ছবি: বিবিসি বাংলা

মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ নিয়ে যাওয়ার পর ইয়াঙ্গুনে জাহাজটি প্রতিবাদের মুখে পড়ে।

তিনি জানান, এখন এই ত্রাণ নামানো ও বিলি বণ্টনের ব্যবস্থা করতে জোগাড় চলছে।

এদিকে আজ দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে ত্রাণের সুষ্ঠু বণ্টন নিশ্চিত করতে গণমাধ্যমসহ সবার কাছে সহযোগিতা চেয়েছে মন্ত্রিসভা।

জাহাজটিতে এখন মোট ১৬০০ টন ত্রাণ সামগ্রী রয়েছে। যা ১ মার্চ থেকে রোহিঙ্গা শরণার্থীদেরকে দেওয়ার কাজ শুরু হবে।

গত ৩ ফেব্রুয়ারি মালয়েশিয়া থেকে রওনা হয়ে গত ৯ ফেব্রুয়ারি ইয়াঙ্গুনে ভেড়ে। সেখানে ৫০০ টন ত্রাণ নামিয়ে দেওয়া হয় বলে আজ মালয়েশিয়ার অনলাইন পত্রিকা স্টার অনলাইনের খবরে বলা হয়।

ওই খবরে বলা হয়, আজ স্থানীয় সময় সকাল পর্যন্ত বাংলাদেশের বন্দর ব্যবহারের অনুমতি দেয়নি কর্তৃপক্ষ।

অনলাইনটির খবরে বলা হয়েছে, প্রথমে বাংলাদেশের টেকনাফ বন্দর ব্যবহারের অনুমতি পাওয়া গেলেও জাহাজটি বড় হওয়ায় তা সেখানে নেওয়া হয়নি। এর প্রেক্ষিতেই পরবর্তীতে চট্টগ্রাম বন্দরে জাহাজটি নোঙর করার অনুমতি চাওয়া হয়।

ত্রাণকাজে নিয়োজিত সংগঠনটির প্রধান আব্দুল আজিজ এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নজিব রাজাকের সঙ্গে কথা বলেছেন। পরে নজিব রাজাক বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

প্রসঙ্গত, মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নজিব রাজাক এই ত্রাণ বোঝাই জাহাজ পাঠিয়ে জানিয়েছেন। তিনি আশ্বাস দিয়েছেন, রোহিঙ্গাদের দুর্দশাকে মালয়েশিয়া সরকার আমলে নেবে এবং রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য কাজেরও ব্যবস্থা করবে।

মালয়েশিয়ার মুসলিম সংগঠনগুলোর পাশাপাশি দেশীয় এবং বিদেশি ত্রাণ সংগঠনগুলো রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণবাহী জাহাজের আয়োজন করেছে।

টি

এই বিভাগের আরো সংবাদ