কর্ণফুলীতে নৌকাডুবি; নিহত ১, নিখোঁজ ১৪
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » চট্টগ্র্রাম

কর্ণফুলীতে নৌকাডুবি; নিহত ১, নিখোঁজ ১৪

কর্ণফুলী নদীতে বার্জের ধাক্কায় অর্ধ শতাধিক যাত্রী নিয়ে একটি নৌকা ডুবে যাওয়ায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ৩৯ যাত্রীকে উদ্ধার করা হলেও অন্তত ১৪ জনের মতো নিখোঁজ রয়েছে বলে জানা গেছে। নিহতের নাম রীনা দাশ (৪৫)।

গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে নদীর ১১ নম্বর ঘাটে একটি ইঞ্জিনচালিত নৌকাকে বালিবাহী একটি বার্জ ধাক্কা দিলে নৌকাটি ডুবে যায় বলে জানিয়েছে প্রত্যক্ষদর্শীরা।

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে কোস্টগার্ড, বাংলাদেশ নৌবাহিনী এবং চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে উদ্ধার অভিযানে নামে। ঘটনার পর নৌকার মাঝিসহ ৩৯ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় রীনা দাশকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আনা হলে তিনি সেখানে মারা যান।

কোস্টগার্ড, নৌবাহিনী এবং বন্দর সূত্র জানিয়েছে,গতকাল সন্ধ্যা ৭টার দিকে কর্ণফুলী নদীর ১১ নম্বর ঘাট থেকে ৫০ জনের মতো যাত্রী নিয়ে একটি নৌকা নদীর ওপারে আনোয়ারার মাতব্বর ঘাটের দিকে যাচ্ছিল। নৌকাটি যাত্রা করার কিছুক্ষণের মধ্যেই কূলের কাছে একটি বালিবাহী বার্জ সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে নৌকাটি ফেটে যায়। নৌকাটি ডুবে যেতে থাকলে যাত্রীদের কেউ কেউ সাঁতরে তীরে উঠে যায়।

নৌবাহিনীর ডুবুরী দল উল্টে ডুবে যাওয়া নৌকাটি উদ্ধার করেন। উদ্ধার অভিযানে যোগ দেয় বন্দর কর্তৃপক্ষের এম্বুলেন্সশিপ এবং কান্ডারী-৮ উদ্ধার জাহাজ।

পতেঙ্গা থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক জ্যাকসন বড়ুয়া বলেন, ৫০ জনের মত যাত্রী নিয়ে ইঞ্জিনচালিত নৌকাটি কর্ণফুলীর দক্ষিণপাড়ে যাচ্ছিল। ঘাটের দেড়শ থেকে ২শ গজ দূরে যেতেই নৌকাটি ডুবে যায়।

তিনি আরও জানান, যাত্রীদের মধ্যে প্রায়ই পোশাক শ্রমিক। তারা কাজ শেষে কর্মস্থল থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে ফিরছিলেন। কোস্টগার্ড, নৌবাহিনী এবং বন্দর কর্তৃপক্ষের উদ্ধারকারী দল অন্তত ৩৯ জনকে জীবিত উদ্ধার করেছে। আরো ১৪ জনের মতো নিখোঁজ থাকতে পারে।

প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত উদ্ধারকাজ চলছিলো।

অর্থসূচক/সুমন/কাঙাল মিঠুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ