খুলনায় উন্নয়ন মেলা উপলক্ষে সেমিনার
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

খুলনায় উন্নয়ন মেলা উপলক্ষে সেমিনার

খুলনায় উন্নয়ন মেলা উপলক্ষে ‘শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগ-ডিজিটাল বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ বুধবার দুপুরে সার্কিট হাউজ সম্মেলন কক্ষে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের সহায়তায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার নিজামুল হক মোল্ল্যা। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এতে সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো: গিয়াস উদ্দিন। ।

ডিজিটালাইজেশনে সরকারের বহুমূখী উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে সেমিনারে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন রুপসা উপজেলা প্রশাসনের সহকারী প্রোগামার মো: আবুজর রহমান।

সেমিনারে জানানো হয়, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী এজেন্ডা ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের নজির এখন প্রতিটি সেক্টরে। ৯ জানুয়ারি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর মেলা উদ্বোধনের বিষয়টি ছিল তথ্যপ্রযুক্তি উন্নয়নের অন্যতম দৃষ্টান্ত। সকল পর্যায়ে সকল ক্ষেত্রে ডিজিটাল পদ্ধতি প্রয়োগে  জনগণের সম্পৃক্ততা বিশ্বের কাছে বিস্ময় স্বরূপ।এদেশে ১ কোটি ২০ লাখ মোবাইল ব্যবহারকারী রয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিনিয়ত সদস্য বাড়ছে। দেশের ৫৮টি মন্ত্রনালয় ২২৭টি ডিপার্টমেন্ট ৬৪ জেলা ৪৮৭টি উপজেলা এবং ১৮ হাজার ১৩০টি সরকারি অফিসে অপটিকাল ফাইবারের কানেকশন রয়েছে। ই-এগ্রিকালচার, ই-অফিস ম্যানেজমেন্ট আর আইসিটি নির্ভর ব্যবসা-বাণিজ্য রাতারাতি পাল্টে দিয়েছে মাত্র কয়েক বছর আগের গতানুগতিক জীবন যাপনের ধারা। সারা দেশে ৮০০টি পয়েন্টে ভিডিও কনফারেন্স সিস্টেম চালু করা হয়েছে ।

খুলনায় ‘শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগ-ডিজিটাল বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান।

খুলনায় ‘শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগ-ডিজিটাল বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান।

নারীর ক্ষমতায়নে রয়েছে সরকারের অসংখ্য উদ্যোগ। সব নারীরা এমনকি ঘরে অবস্থানরত নারীরাও যাতে উপার্জনে সক্ষম হতে পারে তাই আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে আত্মকর্মসংস্থান। মোবাইল ভ্যানের মাধ্যমে ১ লক্ষ ৬৬ হাজার নারীকে আগামী ৩ বছরে আইসিটি বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেবে সরকার। সরকারি কর্মকর্তাদের ২৫ হাজার ট্যাবলেট পিসি প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৫ হাজার ৫৪৪টি কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার পাওয়ার পয়েন্টে পুলিশ বিভাগের বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরেন। ডিজিটাল পদ্ধতিতে অপরাধী গ্রেফতার, পাসপোর্টের আবেদনপত্র ভেরিফিকেশন, নাগরিকদের কাছ থেকে তথ্য প্রদান, সিডিআর এর মাধ্যমে মোবাইল ট্র্যাকিং ইত্যাদি বিস্তারিত বর্ণনা করেন। বিডি পুলিশ হেল্প লাইন অ্যাপস ব্যবহার করে যে কোন নাগরিক যে কোন সময় তথ্য দিতে পারবেন। এতে সব পুলিশের অফিশিয়াল নম্বর পাওয়া যাবে। বর্তমানে পুলিশ বিভাগের ডিজিটাল পদ্ধতির নানাবিধ প্রয়োগ জনসেবাকে সহজ করতে ব্যাপক ভূমিকা রেখে চলেছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

শিউলী/কাঙাল মিঠুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ