ArthoSuchak
শুক্রবার, ৩রা এপ্রিল, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » অপরাধ ও আইন

কালীগঞ্জের ১৩ বখাটে কারাগারে

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করতে গিয়ে বাবার দুই পা হারানোর ঘটনার মামলায় আত্মসমর্পণের পর ১৩ বখাটেকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। তাদেরকে ঝিনাইদহ কারাগারে নেওয়া হয়েছে। এদের মধ‌্যে মামলার প্রধান আসামি যুবলীগ নেতা কামাল হোসেন এবং আজমও রয়েছেন।

উচ্চ আদালতের আদেশে আজ বুধবার ঝিনাইদহের আদালতে আত্মসমর্পণের পর জামিন আবেদন করেছিল তারা। সেই আবেদন নাকচ করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন ঝিনাইদহের জ‌্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম কাজী আশরাফুজ্জামান।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ অক্টোবর ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ থানার নলভাঙ্গা গ্রামে বখাটেরা শাহানূর বিশ্বাসকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। তিনি এখন রাজধানীর জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানে (পঙ্গু হাসপাতাল) চিকিৎসাধীন। পেশায় বর্গাচাষি শাহানূরের দুটি পা হাঁটুর ওপর থেকে কেটে ফেলতে হয়েছে।

পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করতে গিয়ে দুই পা হারিয়েছেন শাহানূর।

এ ঘটনায় কালীগঞ্জ উপজেলার কাস্টভাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য এবং ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি কামালকে প্রধান আসামি করে মোট ১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়। তাদের মধ‌্যে কামালের ভাই আজাদসহ তিন আসামিকে আগেই গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ। অন‌্য দুজন হলেন লিখন ও বোরহান। এদের মধ‌্যে লিখন আদালত থেকে জামিনও নিয়েছেন।

ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী বলেন, আদালতের নির্দেশে পুলিশের ব্যাপক ধরপাকড়ের কারণে বাধ‌্য হয়েছে আসামিরা আদালতে আত্মসমর্পণ করেছে।

শাহানুরের বড় মেয়ে যশোর সরকারি মহিলা কলেজের স্নাতক শ্রেণির ছাত্রী শারমিন আক্তার বলেন, ছোট বোন ও তাকে উত্ত‌্যক্তের প্রতিবাদ করায় ‘প্রভাবশালী’ মাহাবুব মেম্বারের ছেলে আজম ও তার সহযোগীরা তার বাবাকে মারধর করেছে।

তবে কালীগঞ্জ থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, মেয়েদের উত্ত‌্যক্ত করার কোনো ঘটনা নয়। গ্রাম্য শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের লোকজন তার উপর হামলা করে পা ভেঙে দিয়েছে। শাহানূরের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগে একটি এবং মারামারির অভিযোগে চারটি মামলা রয়েছে।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ