মোদিকে লেখা চিঠি অবশেষে ভারতীয় দূতাবাসে
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

মোদিকে লেখা চিঠি অবশেষে ভারতীয় দূতাবাসে

রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্প বাতিলের দাবিতে লেখা চিঠি নিয়ে দূতাবাসে যাওয়ার পথে পুলিশি বাধার মুখে পড়ে তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি। এতে মিছিলটি দূতাবাস পর্যন্ত যেতে না পারলেও ৩ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশনারের কাছে ওই চিঠি পৌঁছে দিয়েছে।

আজ সোমবার ওই চিঠি ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনারের মাধ্যমে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে পৌঁছানোর কথা ছিল। জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে বিজয়নগর, শান্তিনগর হয়ে গুলশানের দিকে যাওয়ার পথে মৌচাক মোড়ে পুলিশি বাধার মুখে পড়ে জাতীয় কমিটির মিছিল। এ সময় পুলিশের হামলায় জাতীয় কমিটির কমপক্ষে ১৫ জন নেতাকর্মী আহত হন। পুলিশের ‘বর্বরোচিত’ হামলার প্রতিবাদে আগামী ২০ অক্টোবর ঢাকাসহ সারাদেশে বিক্ষোভ করবে জাতীয় কমিটি।

rampal

ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনারের মাধ্যমে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে চিঠি দিতে দূতাবাস অভিমুখে মিছিল।

আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে কমিটির নেতা ও বিভিন্ন বাম সংগঠনের নেতাকর্মীরা সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন। এরপর পৌনে ১২টার দিকে মিছিল নিয়ে বিজয়নগর, শান্তিনগর হয়ে গুলশানের দিকে এগিয়ে যান তারা। কিন্তু মৌচাক মোড়ে পৌঁছালে বাধা দেয় পুলিশ। দুই পক্ষের মধ্যে ধ্বস্তাধ্বস্তির এক পর্যায়ে কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে পুলিশ। এসময় নেতাকর্মীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে পড়েন। আহত হন কমপক্ষে ১৫ জন। তাদের মধ্যে সজীব নামে ছাত্র ইউনিয়নের এক নেতাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় মালিবাগের একটি বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশের বাধাকে অগণতান্ত্রিক বলে মন্তব্য করে জাতীয় কমিটির সদস্যসচিব আনু মুহাম্মদ বলেন, চিঠি দিতে যাওয়া একটি স্বাভাবিক ঘটনা। এটি গণতান্ত্রিক অধিকার। অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে আমরা আমাদের দাবি তুলে ধরছি। পুলিশের এ বাধা বাড়াবাড়ি। রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্প বাতিলের দাবিতে এ কর্মসূচি চলবে।

জাতীয় কমিটির মহানগর নেতা খান আসাদুজ্জামান মাসুম দাবি করেন, মিছিলে জলকামান এবং কাঁদানে গ্যাসের শেল ও গুলি ছোড়েছে পুলিশ। এ হামলায় কমপক্ষে অর্ধশত নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

ঢাকা মহানগর পুলিশের পরিদর্শক জাহিদুল বলেন, মিছিলটিকে মালিবাগে থামতে বলা হয়। রাস্তা আটকে মিছিলে নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার পরও মালিবাগে পুলিশের অবরোধ অতিক্রমে চেষ্টা করায় কাঁদানে গ্যাস ছোড়া হয়।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ