হ্যাকিংয়ের তথ্য পাচার হয় রাশিয়ায়!
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

হ্যাকিংয়ের তথ্য পাচার হয় রাশিয়ায়!

নিজেদের মধ্যে পুষে রাখা অনিষ্টকারী কোড (ম্যালিশাস কোড) এর কারণে প্রায় ৬ হাজার অনলাইন শপ হ্যাকিংয়ের শিকার হয় বলে এক গবেষণায় প্রকাশিত হয়েছে।  এই কোডের মাধ্যমে হ্যাকাররা গ্রাহকের ক্রেডিট কার্ডের নাম্বার চুরিসহ ব্যক্তিগত অনেক তথ্য হাতিয়ে নেয়। এইসব তথ্যের বেশিরভাগই পাচার হয় রাশিয়ায়। এক গবেষণায় এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে।

ডাচ অনলাইন কেনাবেচার প্রতিষ্ঠান বাইট এনএল এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান ওয়িলিয়াম ডি গ্রুট এর পরিচালনায় একটি গবেষণায় দেখে গেছে ৫৯২৫টি অনলাইন শপ এ ধরণের ক্ষতির শিকার হয়েছে।

হ্যাকিংয়ের শিকার শপগুলোর মধ্যে বিভিন্ন সরকারি-আধা সরকারি সাইট, গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ও ফ্যাশনেবল কাপড় তৈরির সাইট গুলো তালিকার শীর্ষে রয়েছে।

hacking

প্রতীকি ছবি

 

সাইবার চোরেরা বিভিন্ন কৌশলে এই ধরণের ম্যালওয়ারগুলো কম্পিউটারে ঢুকিয়ে দেয়। এইগুলো গ্রাহকদের ক্রেডিট কার্ড, ব্যক্তিগত ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চুরি করে।  পরে এই সব তথ্য কালোবাজারে চড়া মূল্যে বিক্রি করে থাকে।  সাধারণত প্রতি কার্ডের তথ্য ৩০ ডলার মূল্যে বিক্রি হয়। তবে ব্যক্তি ভেদে এর মূল্যে কিছু হেরফের হয়ে থাকে।

গবেষণায় দেখা গেছে অনেকগুলো সংঘবদ্ধ সাইবার অপরাধী এই এই কাজের সাথে জড়িত। তারা প্রায় নয় ধরণের ভিন্ন ভিন্ন ম্যালওয়ার কোড ব্যবহার করে থাকে।

‘ভোক্তাদেরকে লেন-দেনের সময় ওই ওয়েবসাইট সম্পর্কে ভালোভাবে খোঁজখবর নেয়ার জন্য অনুরোধ করছি। তাছাড়া বিশ্বস্ত ও নিরাপদ প্রতিষ্ঠানের কার্ড ব্যবহারের পাশাপাশি কোনো প্রকার প্রলোভনে যেনো তারা আগ্রহ না দেখায় সে বিষয়ে সজাগ থাকার পরামর্শ দিয়েছেন ওয়িলিয়াম।

নিত্য নতুন তৈরি হওয়া ম্যালওয়ারগুলোর সাথে পাল্লা দিতে সাইটগুলোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা হালনাগাদ রাখতে বেশ অর্থ খরচ করতে হয়। ফলে অনেক প্রতিষ্ঠানই নিরাপত্তা ব্যবস্থা হালনাগাদ করাকে এড়িয়ে চলে বলে গবেষণা পত্রে উঠে এসেছে।

কাঙাল মিঠুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ