বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড দলকে ৬ স্তরের নিরাপত্তা দেবে সিএমপি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » অপরাধ ও আইন

বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড দলকে ৬ স্তরের নিরাপত্তা দেবে সিএমপি

আসন্ন বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড ক্রিকেট সিরিজের চট্টগ্রাম পর্বের খেলায় ৬ স্তরের নিরাপত্তা দেবে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সিএমপি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন সিএমপি কমিশনার মো. ইকবাল বাহার।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামে বাংলাদেশ এবং ইংল্যান্ড দলের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের ভিআইপি পর্যায়ের নিরাপত্তা দেওয়া হবে। আমাদের এই নিশ্চয়তার কারণে ইংল্যান্ড দল বাংলাদেশে এসেছেন। তাই তাদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেওয়া হবে।

নিরাপত্তার স্তর প্রসঙ্গে সিএমপি কমিশনার বলেন, খেলোয়াড়দের যাওয়া-আসার সময় সামনে-পিছনে পুলিশ ও র‌্যাবের টহল গাড়ি দিয়ে এসকর্ট দেওয়া; বিমানবন্দর; রুট; হোটেল; জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়াম এবং এম.এ. আজিজ স্টেডিয়ামে নিরাপত্তা দেওয়া হবে।

তিনি জানান, নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে সোয়াত টিম, বোম্ব ডিসপোজাল টিম, কুইক রেসপন্স টিম, স্ট্রাইকিং রিজার্ভ, ডিবি, র‌্যাব, ফায়ার সার্ভিস, সাদা পোশাকে পুলিশ ফোর্স এবং সিআইডি ফরেনসিক টিম। তবে সোয়াত টিমকে মাঠে মোতায়েন করা হবে না। সোয়াত টিম দামপাড়া পুলিশ লাইনে স্ট্যান্ডবাই থাকবেন তারা। যখন প্রয়োজন হবে তখন তাদের মাঠে নেওয়া হবে।

ইকবাল বাহার বলেন, জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের ১৬টি প্রবেশপথের মধ্যে ৮টি প্রবেশপথ দর্শকদের জন্য খোলা থাকবে। তবে দর্শকের চাপ বেশি থাকলে দ্বিতীয় ধাপে আরও চারটি এবং শেষ ধাপে অপর চারটি প্রবেশপথও দর্শকদের জন্য খুলে দেওয়া হবে।

তিনি জানান, মাঠের বাইরে থেকে কোনো খাবার-পানীয় নিয়ে স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে পারবেন না। এছাড়া মোবাইল ফোন ছাড়া অন্য কোন ইলেকট্রনিক ডিভাইসও সঙ্গে নেওয়া যাবে না।

আগামী ১০ অক্টোবর ওয়ানডে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড দলের খেলোয়াড়রা চট্টগ্রামে পৌঁছাবেন। ১২ অক্টোবর বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড দলের মধ্যে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওডিআই অনুষ্ঠিত হবে। এরপর ১৩ অক্টোবর কয়েকজন খেলোয়াড় বিদায় নেবেন। আবার ওই দিনেই চট্টগ্রামে যাবেন টেস্ট স্কোয়াডে থাকা খেলয়াড়রা। ২০ অক্টোবর থেকে ২৪ অক্টোবর চট্টগ্রামের জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্টে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড। আগামী ২৫ অক্টোবর চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন দুই দলের খেলোয়াড়রা।

সংবাদ সম্মেলনে সিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও ‍অভিযান) দেবদাস ভট্টাচার্য, অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) মাসুদ-উল-হাসান উপস্থিত ছিলেন।

অর্থসূচক/দেবব্রত/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ