স্প্রেড নির্দেশনা মানছে না ২০ ব্যাংক
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

স্প্রেড নির্দেশনা মানছে না ২০ ব্যাংক

bank-1

ছবি সংগৃহীত

আমানত ও ঋণের সুদ হারের ব্যবধান- স্প্রেডের নির্ধারিত সীমা লঙ্ঘন করেছে ২০ ব্যাংক। এই সীমা লঙ্ঘনে সবার উপরে রয়েছে ব্র্যাক, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ও ডাচ-বাংলা ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়মে কোনো ব্যাংকের এই ব্যবধান ৫ শতাংশের বেশি হতে পারবে না। অথচ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সর্বশেষ আগস্ট মাসের প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০ ব্যাংকের স্প্রেড নির্দেশিত সীমার বাইরে।

এর মধ্যে সবার উপর রয়েছে ব্র্যাক, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ও ডাচ বাংলা ব্যাংক। ব্র্যাক ব্যাংকের স্প্রেড ৯ দশমিক ৪৭ শতাংশ, ডাচ-বাংলা ব্যাংকের ৭ দশমিক ২৫ শতাংশ ও স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ডের ৮ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বেসরকারি তফসিলি বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর মধ্যে এবি ব্যাংকের ৫ দশমিক ০৩, আইএফআইসির ৫ দশমিক ৮৪, পূবালী ব্যাংকের ৫ দশমিক ০১, উত্তরা ব্যাংকের ৫ দশমিক ৭৪, ইস্টার্ন ব্যাংকের ৫ দশমিক ৩৮, ওয়ান ব্যাংকের ৫ দশমিক ৮৮, ট্রাস্ট ব্যাংকের ৫ দশমিক ৩৬, এনআরবি কমার্সিয়ালের ৫ দশমিক ০৮ শতাংশ স্প্রেড রয়েছে।

এছাড়া সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংকের (এসবিএসি) ৫ দশমিক ১৮, মেঘনা ব্যাংকের ৫ দশমিক ২২, মিডল্যান্ডের ৫ দশমিক ২২, ইউনিয়ন ব্যাংকের ৫ দশমিক ৯৩, এনআরবি ব্যাংকের ৫ দশমিক ৯১ শতাংশ স্প্রেড রয়েছে।

বিদেশি ব্যাংকের মধ্যে স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার ৫ দশমিক ৯৭, সিটি ব্যাংক এনএ’র ৬ দশমিক ৩২, এইচএসবিসির ৬ দশমিক ০৬, উরি ব্যাংকের ৫ দশমিক ৬৪ , কমার্সিয়াল ব্যাংক অব সিলনের স্প্রেড রয়েছে ৫ দশমিক ১২ শতাংশ।

তবে রাষ্ট্রয়াত্ত্ব ও বিশেষায়িত বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর স্প্রেড নির্ধারিত সীমার মধ্যে রয়েছে।

এই বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক শুভঙ্কর সাহা বলেন, স্প্রেড নির্ধারিত সীমার মধ্যে নামিয়ে আনতে আমরা বরাবরই তাগাদা দিয়ে আসছি। কারণ স্প্রেড যত কম হবে তা বিনিয়োগকারীদের জন্য তত ভালো। যেসব ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা অনুযায়ী স্প্রেডের সীমা মানছেন না তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অর্থসূচক/আমজাদ/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ