আসছে শীতের সবজি, কমছে না দাম
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

আসছে শীতের সবজি, কমছে না দাম

শীত আসতে এখনও অনেক বাকি। তাই বলে থেমে থাকেনি শীতের সবজি। শীত আসার আগেই রাজধানীর কাঁচাবাজারগুলো আসছে শীতকালীন সবজিতে। তবে সাধারণ ক্রেতাদের নাগালের বাইরে দাম হাঁকাচ্ছেন বিক্রেতারা।

বিক্রেতাদের দাবি, শীতের সবজি এখনও পুরোপুরিভাবে আসা শুরু করেনি। পুরোপুরিভাবে আসলেই ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে থাকবে সবজির দাম।

সরেজমিনে রাজধানীর মুগদা, মাণ্ডাসহ বেশকিছু খুচরা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, নানা ধরনের শীতের সবজির পসরা সাজিয়ে বসেছেন বিক্রেতারা। শীতকালীন সবজির মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে ফুলকপি, বাঁধাকপি, মূলা, চিচিঙ্গা, লাউ, বরবটি এবং টমেটোসহ নানা ধরণের সবজি। এছাড়া লালশাক, পুঁইশাক, পালংশাক, মূলাশাক, লাউশাকসহ নানা ধরনের শাক পাওয়া যাচ্ছে বাজারে।

Bazar

রাজধানীর কারওয়ান বাজার থেকে ছবিটি তুলেছেন মহুবার রহমান

মুগদা কাঁচাবাজারের সবজি বিক্রেতা হানিফ গাজী অর্থসূচককে বলেন, শীতকালীন সবজি এখনও বাজারে খুব বেশি আসেনি। এখন যেগুলো পাওয়া যাচ্ছে, এগুলো প্রায় সারাবছর জুড়েই পাওয়া যায়। তবে শীতকালীন মূলা এবং সিমসহ কিছু সবজি আসতে শুরু করেছে। আগামী ২০ থেকে ২৫ দিনের মধ্যে বাজারে শীতের সবজির আমদানি বাড়বে। তখন দামও কমবে।

আজকের বাজারে ৮৫ থেকে ৯০ টাকায় টমেটো, ১০০ থেকে ১২০ টাকায় শিম, ৪৫ থেকে ৫০ টাকায় মূলা পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া প্রতিটি বাঁধাকপি ৩০ থেকে ৩৫ টাকা, ফুলকপি ৩০ থেকে ৩৫ টাকা, লাউ ৪০ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আঁটিভেদে শাকের দাম রাখা হচ্ছে ১০ থেকে ২০ টাকা।

অন্যান্য সবজির মধ্যে প্রতি কেজি ঢেড়স ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, পেপে ২০ টাকা, ঝিঙ্গা ৫০ টাকা, কাকরোল ৫০ টাকা, শশা ৪০ থেকে ৫০ টাকা, বেগুন ৫০ থেকে ৬০ টাকা, বরবটি ৫০ থেকে ৬০ টাকা, চিচিঙ্গা ৪০ থেকে ৪৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গত শুক্রবারের তুলনায় আজকের বাজারের প্রায় সব সবজির দাম বেড়েছে। তবে কাঁচা মরিচের দাম কিছুটা কমেছে। গত সপ্তাহে ২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া কাঁচা মরিচ আজকের বাজারে ১০০ থেকে ১২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

সবজির বাড়তি দাম প্রসঙ্গে সবজি বিক্রেতা আব্দুল আউয়াল বলেন, বৃষ্টির কারণে এখন সবজির আমদানি কম। তবে কয়েকদিনের মধ্যে বৃষ্টির মৌসুম শেষ হবে। একইসঙ্গে শীত মৌসুমের সবজিও আসবে। শাক-সবজির সরবরাহ বাড়লে দামও অনেক কমে যাবে।

শিম, মূলাসহ বেশকিছু শীতকালীন সবজি কিনে ঘরে ফেরার সময় মুগদা এলাকার বাসিন্দা সোহানুর রহমান অর্থসূচককে জানান, শীতকালীন সবজি বলতে এখন কিছু নেই। সবসময়ই সব সবজি পাওয়া যায়। এ কারণে শীতের সবজির সেই স্বাদ এখন আর নেই।

এদিকে, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মধ্যে প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ৩০ থেকে ৩৫ টাকা, ইন্ডিয়ান পেঁয়াজ ২০ থেকে ২৫ টাকা, দেশি রসুন ১৭৫ থেকে ১৮০ টাকা, ইন্ডিয়ান রসুন ১৯০ টাকা, আদা ১০০ থেকে ১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

মাছের বাজার ঘুরে দেখা গেছে, গত সপ্তাহের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে ইলিশের দাম। আজকের বাজারে বড় আকারের জোড়া ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার থেকে ১ হাজার ৮০০ টাকায়। এছাড়া মাঝারি আকারের ইলিশ ৬০০ থেকে ৮০০ টাকা এবং ছোট আকারের ইলিশ কেজি প্রতি ৪০০ থেকে ৪২০ দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া রুই মাছ ২৫০ টাকা, তেলাপিয়া মাছ ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা, শিং মাছ ৫০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

অন্যদিকে প্রতি কেজি গরুর মাংস ৪২০ টাকা, ব্রয়লার মুরগি ১২০ থেকে ১৩০ টাকা, পাকিস্তানি মুরগি প্রতিটি ২০০ থেকে ২৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

অর্থসূচক/মেহেদী/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ