‘আগামী সপ্তাহের মধ্যে ইউনেস্কোকে জবাব, সরছে না রামপাল’
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘আগামী সপ্তাহের মধ্যে ইউনেস্কোকে জবাব, সরছে না রামপাল’

রামপাল কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্প নিয়ে জাতিসংঘের সংস্থা ইউনেস্কো উদ্বেগ জানিয়ে যে চিঠি দিয়েছে তার জবাব আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। এছাড়া কোনো সংস্থা বা প্রতিষ্ঠানের কথায় রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে সরকার সরছে না বলেও জানান তিনি।

রোববার রাজধানীর বিদ্যুৎ ভবনে জ্বালানি বিষয়ক এক কর্মশালায় শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

প্রস্তাবিত রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের নকশা। ছবি সংগৃহীত

প্রস্তাবিত রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের নকশা। ছবি সংগৃহীত

রামপালে নিম্নমানের যন্ত্রপাতি ব্যবহার করা হবে বলে ইউনেস্কোর যে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে তা  সঠিক নয় দাবি করে নসরুল হামিদ বলেন, এটা তারা তাদের মতামত প্রকাশ করেছে। কিন্তু আমরা পরিবেশগত দিকে বিবেচনা করে যেখানে উন্নত মানের যন্ত্রপাতি ব্যবহার করবো।

তিনি বলেন, রামপাল নিয়ে ইউনেস্কো কোনো বৈজ্ঞানিক ব্যাখা ছাড়াই মতামত দিয়েছে। তাই সংস্থাটি যে আশংকা প্রকাশ করেছে তার যুক্তিযক্ত জবাব আগামি সপ্তাহের মধ্যে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, দেশের বর্তমান চাহিদা অনুযায়ী বছরে ১৫০০০ মেগাওয়াট উৎপাদন করতে হবে। কিন্তু উৎপাদনে অতিরিক্ত ব্যয়ের ফলে তা সম্ভব হচ্ছে না। ফলে সাশ্রয়ে বিদুৎ উৎপাদন করতে হলে রামপালের মতো কয়লাভিত্তিক বিদুৎ উৎপাদনের দিকেই যেতে হবে। তাই রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে সরছে না সরকার।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ৫ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রামপালে কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তরের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

রামপালের কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বাতিলের দাবি জানিয়ে আসছে বিভিন্ন রাজনৈতিক এবং পরিবেশবাদী সংগঠন। প্রকল্প বাতিলের দাবিতে লংমার্চ কর্মসূচি পালন করেছে তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি।

উ্ল্লেখ, গতবছর ফ্রান্সের ৩ ব্যাংক প্রকল্পটিতে ন্যুনতম পরিবেশগত ও সামাজিক মানদণ্ডের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ উল্লেখ করে কোনো বিনিয়োগ সহায়তা না দেওয়ার কথা জানিয়েছিল।

তবে ক্ষতির আশঙ্কা নাকচ করে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, ক্ষতি যতটুকু সম্ভব কমিয়েই এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

অর্থসূচক/মাইদুল/

এই বিভাগের আরো সংবাদ