'বৃদ্ধাশ্রম নয়; বাড়িতেই কাজে লাগাতে হবে প্রবীণদের'
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » জাতীয়

‘বৃদ্ধাশ্রম নয়; বাড়িতেই কাজে লাগাতে হবে প্রবীণদের’

অবসরের পর অনেক পরিবারের প্রবীণদেরকে পুনরবাসন কেন্দ্রে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। পুনরবাসনে না পাঠিয়ে, ঘরে রেখেই তাদেরকে কাজে লাগানোর আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক।

আজ শনিবার বেসরকারি ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সেমিনার কক্ষে ‘বাংলাদেশ অভিজ্ঞ অবসরপ্রাপ্ত পেশাজীবীদের সংগঠন প্রতিষ্ঠার উপায়’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান তিনি।daffodil

রিয়াজুল হক বলেন, পরিবারে প্রবীণদের নিয়ে একসঙ্গে বাস করার জন্য সরকারের আইনের প্রতি সবাইকে শ্রদ্ধাশীল হওয়া উচিৎ। অবশ্যই এ আইনকে সবার গুরুত্ব দেওয়া দরকার। এছাড়া প্রবীণদের জন্য জাতীয় নীতিমালাও রয়েছে। এসোসিয়েশন করলেই হবে না; প্রবীণদেরকে পুনর্বাসন কেন্দ্রে না পাঠিয়ে বাড়িতে বসে কীভাবে তাদেরকে কাজে লাগানো যায়- সে চিন্তা করতে হবে।

তিনি বলেন, আগামী ১০ বছরে দেশের ২০ শতাংশ লোক বৃদ্ধ হয়ে যাবে। বৃদ্ধদের এই বড় অংশকে কাজে লাগাতে বিশেষ কর্মীবাহিনী এবং সামাজিক বাহিনী গঠন করতে হবে। প্রবীণদের কাজে লাগানোর জন্যে এসব বাহিনীর সমন্বয়ে কর্মপরিকল্পনা করতে হবে।

মানবাধীকার কমিশনের বিভিন্ন কর্মপরিকল্পনার মধ্যে প্রবীণদের নিয়ে কাজ করার পরিকল্পনা মানবাধিকার কমিশনের রয়েছে বলে জানান রিয়াজুল হক।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, আমাদের দেশে শিক্ষিতের হার বৃদ্ধি পাচ্ছে। সুতরাং এই শিক্ষিত লোকদের কাজে লাগিয়ে সনাতন পদ্ধতি থেকে বের হয়ে প্রবীণদেরকে কাজে লাগানোর উপযুক্ত সময় এখন।

এতে সভাপতিত্ব করেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির চেয়ারম্যান মো. সবুর খান। উপাচার্য ড. ইউসুফ এম. ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন গিভেন্সি গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান খতিব আব্দুল জাহিদ মুকুল, ঢাবির অধ্যাপক ড.এস.এম. আতিকুর রহমান, অগ্রণী ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান খন্দকার বজলুল হক প্রমুখ।

অর্থসূচক/মুন্নাফ/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ