নতুন আশাবাদের আলো বাজারে
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

নতুন আশাবাদের আলো বাজারে

অনেকদিন পর পুঁজিবাজারে গতিশীলতার কিছুটা আভাস দেখা দিয়েছে। গত কিছুদিন ধরেই লেনদেনে একটু উর্ধমুখী ধারা দেখা যাচ্ছিল। আজ বুধবার এই ধারা বেশ দৃশ্যমান হয়ে উঠে। আজ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত আট মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে। অন্যদিকে এই স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক ডিএসইএক্সও আট মাসের মধ্যে সবচেয়ে উপরে উঠে এসেছে।

বুধবারের লেনদেনে হাসি দেখা গেছে ব্রোকার, মার্চেন্ট ব্যাংকার ও বিনিয়োগকারীসহ পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সবার মধ্যে। বিশ্লেষকদের মতে, বাজারে গতি ফেরার মতো উপাদান বেশ কিছুদিন ধরেই বিরাজ করছে। এর মধ্যে মঙ্গলবার অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের বৈঠক এবং নেগেটিভ ইক্যুইটি সমস্যার সমাধানের সম্ভাবনার খবরে সবাই বেশ উজ্জীবিত হয়েছেন। বৃহস্পতিবারের বাজারে ছিল তারই প্রভাব।

এদিকে ডিএসইর সাবেক সভাপতি মোঃ রকিবুর রহমান, বিএমবিএর সভাপতি মোঃ ছায়েদুর রহমান এবং সহ-সভাপতি মোঃ মনিরুজ্জামান মনে করেন, বাজারের জন্য সামগ্রিক পরিবেশ এখন ইতিবাচক। এখান থেকে পেছনে যাওয়ার তেমন কোনো আশংকা নেই।

জানতে চাইলে ডিএসইর সাবেক সভাপতি ও বর্তমান পরিচালক মো. রকিবুর রহমান অর্থসূচককে বলেন, বাজার এখন ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। এটা আরও তরান্বিত হবে। বাজারে সাধারণ বিনিয়োগকারী তখনই আসে যখন দেখে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী সক্রিয় ভূমিকা রাখছে। তারা দেখে কারা বাজারে লেনদেন করছে। আমি মনে করি, পুঁজিবাজার এখান থেকে ধীরে ধীরে ভালো অবস্থানে যাবে।

বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) সভাপতি মোঃ ছায়েদুর রহমান বলেন, বাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়ার মতো কোনো কারণ এখন নেই; বরং এগিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাটাই বেশি উজ্জল। আমার বিশ্বাস, বাজার এখান থেকে এগিয়ে যাবে। বিনিয়োগকারীর আস্থা আরও বাড়বে। তাতে বাজার গতিশীল হবে।

আর আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান বলেন, সূচক ও লেনদেন বেশ বেড়েছে। যা বছরের শুরুর দিকে এমন ছিলো। এটা বাজারের জন্য ইতিবাচক। আজকের লেনদেন অনেক বিনিয়োগকারীকে আশাবাদী করেছে বলে মনে করেন তিনি।

গতকাল মঙ্গলবার বিএমবিএ অর্থমন্ত্রীর কাছে পুঁজিবাজারের বর্তমান অবস্থা তুলে ধরে। বাজারের বিভিন্ন বিষয়ে মন্ত্রীকে অবহিত করানো হয়। এসময় মার্জিন ঋণ সংক্রান্ত সমস্যার সমাধানে সরকারের কাছে স্বল্প সুদে ৬ হাজার কোটি টাকার একটি তহবিল চেওয়া হয়। যার একটা ইতিবাচক প্রভাব বাজারে পড়ে।

আজ ডিএসইতে ৬১৪ কোটি ১২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা গত ৮ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে গত ২০ জানুয়ারি ডিএসইতে ৬৬৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল।

লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩২২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৭২টির, কমেছে ৯১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৯টির শেয়ার দর।

এই বিভাগের আরো সংবাদ