শাহজালালে আমদানি নিষিদ্ধ অত্যাধুনিক ড্রোন জব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » অপরাধ ও আইন

শাহজালালে আমদানি নিষিদ্ধ অত্যাধুনিক ড্রোন জব্দ

রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ১৪ কেজি ওজনের আমদানি নিষিদ্ধ অত্যাধুনিক একটি ড্রোন জব্দ করেছে শুল্ক ও গোয়েন্দা বিভাগ।

শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর ও তদন্ত বিভাগের মহাপরিচালক ড. মঈনুল ইসলাম খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, আজ বুধবার শাহজালাল বিমানবন্দরে শারজাহ থেকে আসা এক যাত্রীর কাছ থেকে আমদানি নিষিদ্ধ জিজেআই ফ্যান্টম৪ মডেলের একটি অত্যাধুনিক ড্রোন জব্দ করা হয়েছে। এর সঙ্গে উন্নতমানের ক্যামেরা ও সেন্সর পাওয়া যায়। ভিডিও শুটিং এর পাশাপাশি স্পাইয়ের কাজেও ব্যবহার করা যায়। এর অপব্যবহারের কোনো ঝুঁকি আছে কি না- তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, মো. জাহিদুল ইসলাম নামে ব্যক্তির ব্যাগ থেকে ড্রোনটি জব্দ করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০টায় শারজাহ থেকে এয়ার এরাবিয়া এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে শাহজালাল বিমানবন্দরে আসেন তিনি। তার গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের ভুরকাপাড়ায়।

কাস্টমস সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই যাত্রীকে নজরদারিতে রেখেছিল শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। কাস্টমস হলের গ্রিন চ্যানেল অতিক্রম করার সময় তাকে থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এসময় তিনি ড্রোন বহন করার কথা অস্বীকার করলে তার লাগেজ তল্লাশি করে এসব মালামাল উদ্ধার করা হয়।

ড. মঈনুল ইসলাম খান জানান, ড্রোনের অংশ খুলে আলাদা প্যাকেট করে আনা সরঞ্জামাদির ওজন প্রায় ১৪ কেজি। এতে উন্নতমানের ক্যামেরা বসানোর অপশন ও সেন্সর রয়েছে। রিমোট কন্ট্রোলের সাহায্যে এটি পরিচালনা করা হয়। এর লিটারেচার পর্যালোচনায় দেখা যায়, এসব ড্রোন প্রায় ১ কেজি ওজনের ভার বহনে সক্ষম। প্রতি ঘণ্টায় ৪৫ কিলোমিটার বেগে চলতে পারে।

আটক ড্রোনটি এয়ারপোর্ট কাস্টমসে জমা দেওয়া হবে এবং এ ব্যাপারে শুল্ক আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানান মঈনুল হক।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক জাহিদুল ইসলাম জানান, দুবাই থেকে তার এক বন্ধু ঢাকায় কোনো এক ব্যাক্তির কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য এসব সরঞ্জাম দিয়েছেন।

অর্থসূচক/মাইদুল/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ