‘যানজট কমাতে দরকার ব্যক্তিগত গাড়ির নিয়ন্ত্রণ’
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘যানজট কমাতে দরকার ব্যক্তিগত গাড়ির নিয়ন্ত্রণ’

যানজট ও দূষণমুক্ত নগরায়নের জন্য গণপরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়ন ও ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করা অপরিহার্য বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) প্রতিষ্ঠাতা ও পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের চেয়ারম্যান আবু নাসের খান।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ২২ সেপ্টেম্বর বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়ি মুক্ত দিবস বাস্তবায়ন উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ২২ সেপ্টেম্বর বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়ি মুক্ত দিবস বাস্তবায়ন উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ২২ সেপ্টেম্বর বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়ি মুক্ত দিবস বাস্তবায়ন উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

তিনি বলেন, যানজট ও দূষণমুক্ত নগরায়নের জন্য সকলকে স্বতস্ফুর্তভাবে কাজ করতে হবে। এ জন্য আমাদের কিছু প্রতিবন্ধকতাও রয়েছে। আমাদের দেশে এমন এক সময় ছিল যখন কোনও সংগঠন বিশ্ব গাড়ি মুক্ত দিবস পালন করতে সাহস পেতো না। কারণ যে সংগঠন তা পালন করবে সরকারিভাবে তাদেরকে বয়কট করা হতো।

আবু নাসের খান বলেন, সরকারের মধ্যে কিছূ ভূত-পেত রয়েছে; যাদের কারণে বিশ্ব গাড়ি মুক্ত দিবসের উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন করা কঠিন হয়ে পড়ে। আমাদের নিজেদেরকে প্রতিজ্ঞা করতে হবে যে- সঠিক নগরায়নের জন্যে অফিস এবং বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া আমরা ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার করবো না।

এছাড়া যানজট ও দূষণমুক্ত নগরায়নের লক্ষ্যে ঢাকাকে বিকেন্দ্রিকরণের জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান তিনি।

ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের (ডিটিসিএ) নির্বাহী পরিচালক এ কে এম মাইনুদ্দিন বলেন, আমরা বাজেট করি, খরচও করি; কিন্তু বাস্তবায়ন করি না। দ্রুতগতির যানবাহনের মাধ্যমে যোগাযোগ বৃদ্ধির জন্য আমরা কাজ করছি।

মেট্রোরেলসহ সব রেল যোগাযোগ ব্যবস্থাকে প্রাধান্য দিলে যানজট কমবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, সুযোগ তৈরি করে দিলে সবাই ভোগ করবে। সেক্ষেত্রে নিজেদেরকে আগে আইন মানতে হবে।

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্লানার্সের সহ-সম্পাদক ও পরিকল্পনাবিদ আদিল মোহাম্মাদ খান বলেন, আমাদের দেশে আইন তৈরি হয় কিন্তু বাস্তবায়ন খুবই কম লক্ষ্য করা যায়। অবৈধ গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য নীতিমালা রয়েছে। জরিমানার পরিমাণ বাড়ানোসহ সেটাকে আরও উন্নত করা দরকার।

ওয়ার্ক ফর বেটার বাংলাদেশের (ডাব্লিউবিবি) নির্বাহী পরিচালক সাইফুদ্দিন আহমেদ বলেন, যানজট ও দূষণমুক্ত নগরায়নের লক্ষ্যে বিকেন্দ্রিকরণের বিষয়টিকে গুরুত্ব দিতে হবে। ঢাকার বাইরের লোকগুলোকে ঢাকামুখী করা বন্ধ করতে হবে।

তিনি বলেন, প্রতিটি বিভাগের লোকগুলোকে বিভাগেই রাখতে হবে। তাদের সকল প্রয়োজনীয় কাজ যেন বিভাগেই সম্পন্ন হয় সে ব্যবস্থা করতে হবে।

সাইফুদ্দিন আহমেদ বলেন, ব্যক্তিগত গাড়ি মুক্ত দিবসের উদ্দেশ্য এই নয় যে গাড়ি নিষিদ্ধ করা হবে। আমাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে গণপরিবহনের উন্নতি সাধন করে তাকে কাজে লাগিয়ে কিভাবে ব্যক্তিগত কাজ সম্পন্ন করা যায় তা বাস্তবায়ন করা।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মোসলেহ উদ্দিন আহসান বলেন, নাগরায়নের চেয়ে অধিক গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে নাগরিক তৈরি করা।

ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের (ডিটিসিএ) অতিরিক্ত নির্বাহী পরিচালক জাকির হোসেন মজুমদারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বাপার জয়েন্ট সেক্রেটারি শাহজাহান মৃধা বেনু, সাসটেইন্যাবল আরবান ট্রান্সপোর্ট প্রকল্পের ম্যানেজার নূর-ই-আলম, ডিটিসিএ-র পিডি আনিসুর রহমান প্রমুখ।

অর্থসূচক/মুন্নাফ

এই বিভাগের আরো সংবাদ