ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫৩ 'নিখোঁজ' শিক্ষার্থীর তালিকা প্রকাশ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » জাতীয়

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫৩ ‘নিখোঁজ’ শিক্ষার্থীর তালিকা প্রকাশ

জঙ্গি হামলা ও তৎপরতা রোধে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে যারা ১০ দিনের বেশি সময় ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রমে অনুপস্থিত এমন ৫৩ শিক্ষার্থীর একটি তালিকা প্রকাশ করেছে কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার ঈদুল আজহার ছুটির মধ্যে এই তালিকা প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার কার্যালয়।iu-gate

এরই মধ্যে ৫৩ শিক্ষার্থীর ঠিকানায় কারণ দর্শানোর (শোকজ) নোটিশ পাঠিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তাদের আগামী ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এর জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এর আগে সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করার ঘোষণা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার এ তালিকা প্রকাশ করা হয়।

ফোকলোর স্টাডিজের ছয়জন, ব্যবস্থাপনা বিভাগের ১১ জন, ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিংয়ের ১৩ জন, মার্কেটিংয়ের পাঁচজন এবং ফলিত রসায়ন ও রাসায়নিক প্রযুক্তির ১৮ জন দীর্ঘদিন অনুপস্থিত রয়েছেন বলে তালিকায় উল্লেখ করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যারলয় কর্তৃপক্ষ বলছে, কয়েকটি বিভাগ তথ্য দিতে পারেনি। ছুটির পর তারা তথ্য দিলে তালিকা হালনাগাদ করা হবে।

অর্থনীতি, ইংরেজি, বাংলা, লোক প্রশাসন, আইন ও মুসলিম বিধান, আল ফিকাহ, হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি, কম্পিউটার বিজ্ঞান অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এবং বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতিরা ছুটিতে বা দেশের বাইরে থাকায় তারা তথ্য দিতে পারেননি বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মাহবুবুর রহমান বলেন, গত ২৮ অগাষ্ট অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের মতবিনিময় সভার পর এ তালিকা তৈরি করা হয়।

তিনি বলেন, তালিকার ৫৩ জন দীর্ঘদিন ধরে অনুপস্থিত। আগামী ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে তাদের কর্তৃপক্ষের কাছে অনুপস্থিতির কারণ ব্যাখা করতে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

গত ১ জুলাই রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারি ও কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলার পর পরই আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সারা দেশে নিখোঁজদের তালিকা তৈরির কাজে হাত দেয়। জঙ্গি হামলার পর বিশ্ববিদ্যাদলয়ের ছাত্রদের বাড়ি পালিয়ে জঙ্গিবাদে জড়ানোর প্রবণতা আলোচনায় আসে; সরকার ও অভিভাবক মহলে তৈরি হয় উদ্বেগ।

এই প্রেক্ষাপটে কোনো তরুণ বাড়ি পালিয়ে জঙ্গি দলে ভিড়েছে কি না- তা জানতে পরিবারের কাছে তথ্য চেয়েছে সরকার। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকেও বলা হয়েছে, কোনো শিক্ষার্থী টানা ১০ দিন অনুপস্থিত থাকলেই সে তথ্য সরকারকে জানাতে হবে।

অর্থসূচক/মুন্নাফ

এই বিভাগের আরো সংবাদ