রাজাকারের দোসরদেরও বিচার হবে: প্রধানমন্ত্রী
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

রাজাকারের দোসরদেরও বিচার হবে: প্রধানমন্ত্রী

বাংলার মাটিতে মুক্তিযুদ্ধবিরোধী কোনো ব্যক্তির ঠাঁই হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, যারা রাজারকারদের বিভিন্নভাবে সাহায্য করেছে তাদেরও বিচার করা হবে। তাদেরকে কোনোভাবেই ছাড় দেওয়া হবে না।

মঙ্গলবার রাজধানীর খামারবাড়িতে কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা- ছবি সংগৃহীত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা- ছবি সংগৃহীত

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার বাবা রাজাকারদের বিচার শুরু করেছিলেন। কিন্তু শেষ করার আগেই তাকে হত্যা করা হলো। তার সেই অসমাপ্ত কাজ আমাকেই সমাপ্ত করতে হবে। কারণ আমি তার মেয়ে।

শেখ হাসিনা বলেন,  একটা বিষয়ে আমি খুবই ব্যথিত হই সেটা হলো- যারা দেশের শত্রু, সেই রাজাকারদের পক্ষে কিভাবে কথা বলা যায়। তাদের পক্ষে কীভাবে আইনজীবীরা আইনি লড়াই করে। টাকাই কি সব?

প্রধানমন্ত্রী বলেন, রাজাকাররা যখন পাকিস্তানে পালিয়েছিল তখন জিয়াউর রহমান ক্ষমতায় এসে তাদেরকে ফিরিয়ে আনেন। শুধু নাগরিকত্ব দিয়েই ক্ষ্যান্ত হননি; তাদেরকে প্রধানমন্ত্রিত্বও দিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, ৭৫ হত্যাযজ্ঞ ঘটনার পর জিয়াউর রহমান নিজেকে রাষ্ট্রপতি ঘোষণা করে ক্ষমতায় আসেন। ক্ষমতায় বসে নির্বাচন নিয়ে নাড়াতে শুরু করেন। তখন থেকেই মূলত নির্বাচন নিয়ে খেলা শুরু হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার একটাই লক্ষ্য বাবার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করা। দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করা। বঙ্গবন্ধু যদি আর ৪টা বছর বেঁচে থাকতেন তাহলে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিকভাবে উন্নত দেশে পরিণত হতো।

শেখ হাসিনা বলেন, ৭৫ এর পর দীর্ঘ ৬ বছর বিদেশে থাকার পর যখন দেশে আসি তখন পরিবারের কাউকে আর পাইনি। তবে বাংলার মানুষের ভালোবাসায় আমি সব ভুলে গেছি। হাজার মানুষের মাঝে আমি আমার পরিবারকে খুঁজে পাই।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হারিয়ে বাংলার মানুষ তাদের অবিভাবককে হারিয়েছে। তার মৃত্যুর পর দীর্ঘ ২১টা বছর সুবিধা বঞ্চিত ছিল তারা। আ.লীগ ক্ষমতায় এসে তাদের দূর্দশা থেকে মুক্ত করে।

অর্থসূচক/মুন্নাফ

এই বিভাগের আরো সংবাদ