‘দিনে ২ বার গরুর মাংস খেতেন বোল্ট’
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘দিনে ২ বার গরুর মাংস খেতেন বোল্ট’

জামাইকার একটি দরিদ্র ঘরে জন্ম নিয়েছিলেন উসাইন বোল্ট। কিন্তু তারপরও দমেননি তিনি। জীবনে হার না মানার গল্পে জয়ী হয়ে অলিম্পিকে বেধে ফেলেছেন তিন তিরিককে নয়ের ছন্দ। এ ছন্দ বাঁধতে তার ওস্তাদ তাকে দিনে দুইবার গরুর মাংস খেতে উপদেশ দিয়েছিলেন।

আজ সোমবার এক টুইটবার্তায় উসাইন বোল্ড সম্পর্কে এমন তথ্য জানিয়েছেন ভারতের বিজেপি সাংসদ ও দলিত নেতা উদিত রাজ।

উসাইন বোল্ট

উসাইন বোল্ট

তিনি বলেন, উসাইন বোল্ট ছিলেন দরিদ্র পরিবারের সন্তান। তার প্রশিক্ষক তাকে দিনে দুই বার গো-মাংস খাওয়ার পরামর্শ দেন। আজ সেই উসাইনই অলিম্পিকে ৯টি স্বর্ণের পদক জিতে নিয়েছেন।

বিজেপি সরকারের কাছে গো-মাংস একটি সংবেদনশীল ইস্যু। বিভিন্ন রাজ্যে এটি পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এমনকি এ ধরনের ঘটনায় সংঘর্ষ, গ্রেপ্তার, হত্যার খবরও সম্প্রতি দেখা গেছে।

অন্তত সে মুহূর্তে বিজেপি কোনো নেতার মুখে এমন কথা মানায় না। ফলে রীতিমতো এ নিয়ে ঝড় উঠার কথা। কিন্তু আরেক টুইটে ঝড় উঠার আগেই তা দমিয়ে দিয়েছেন রাজ।

তিনি বলেন, উসাইন বোল্টের গো-মাংস খাওয়াকে আমি বিজ্ঞাপিত করছি না। এ নিয়ে সমালোচনারও দরকার নেই। আমি মূলত তার প্রশিক্ষকের কথা মনে করিয়ে দিতে চেয়েছি। বলতে চেয়েছি- নাচতে না জানলে উঠোনের দোষ। এ কথাটি ভুলে যান। বরং পরিবেশকে ভুলে গিয়ে সফলতা অর্জন করুন। উসাইন বোল্ট গরিব ঘরে জন্ম নিয়েই সেটা দেখিয়ে দিয়েছেন। ব্যর্থতাকে জয় করেছেন।

ভারতের এ সাংসদ বলেন, আমাদের খেলোয়াড়দের তো আর সে অভাব নেই। তাদেরকে সব সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। আমরা চাই- আমাদের প্রত্যেক খেলোয়াড় উসাইন বোল্ট হোক। তাদের হাত দিয়ে ভারতে স্বর্ণের মেডেল ভরে যাক।

অর্থসূচক/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ