রিশার খুনিকে গ্রেপ্তারে পুলিশের আশ্বাসের পর আন্দোলন স্থগিত
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

রিশার খুনিকে গ্রেপ্তারে পুলিশের আশ্বাসের পর আন্দোলন স্থগিত

রাজধানীর উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী সুরাইয়া আক্তার রিশার (১৪) সন্দেহভাজন খুনি ওবায়দুলকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পর রাজপথে আন্দোলন বন্ধ করেছেন ওই স্কুলে শিক্ষার্থীরা।

আজ সোমবার দুপুর ১২টার দিকে স্কুলের শিক্ষার্থীরা কাকরাইল মোড় অবরোধ করে রিশার হত্যাকারীকে গ্রেপ্তারের দাবিতে আন্দোলন শুরু করে। ওই সড়ক অবরোধের কারণে আশপাশের সড়কগুলোতে ব্যাপক যানজট সৃষ্টি হয়। হত্যাকারীকে গ্রেপ্তারে পুলিশ প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পর বেলা সোয়া ২টার দিকে আন্দোলন স্থগিত করে শিক্ষার্থীরা। আগামীকাল বুধবার দুপুর ১২টার মধ্যে খুনিকে গ্রেপ্তার করা না হলে আবারও আন্দোলন শুরু হবে বলে জানিয়েছে তারা।

Kakrail Risha Murder

রাজধানীর উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী সুরাইয়া আক্তার রিশা হত্যাকারীর বিচার দাবিতে কাকরাইলে সড়ক অবরোধ। ছবি: মহুবার রহমান

প্রসঙ্গত, গত বুধবার দুপুরে স্কুলের সামনে ফুটওভার ব্রিজের উপরে রিশার পেট ও হাতে ছুরি মেরে পালিয়ে যায় এক বখাটে যুবক। এরপর চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

রিশার মা তানিয়া বেগমের বরাত দিয়ে রমনা থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, কয়েক মাস আগে ইস্টার্ন মল্লিকার বৈশাখী টেইলার্সে জামা বানাতে দিয়েছিলেন তিনি। যোগাযোগের জন‌্য সেখানে নিজের ফোন নম্বর দিয়েছিলেন। এরপর থেকে ওবায়েদ নামে ওই দোকানের এক কর্মচারী ফোন করে রিশাকে বিরক্ত করছিল। এ কারণে রিশার মা ওই মোবাইল সিমটি বন্ধ করে দেন।

ওবায়েদই রিশাকে ছুরি মেরেছে বলে ধারণা করছেন তার মা তানিয়া বেগম।

উপ-কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার জানান, গত বুধবার ছুরি দিয়ে রিশাকে আঘাতের পর ওবায়েদকে আসামি করে রমনা থানায় একটি মামলা করেছিলেন রিশার মা। এরপর ওই টেইলার্সে পুলিশ জানতে পারে, দুই মাস আগে চাকরি ছেড়ে দিয়েছে ওবায়েদ।

পুলিশ বৈশাখী টেইলার্সের চার কর্মচারীকে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলেও ওবায়েদকে এখনও আটক করা যায়নি বলে জানিয়েছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

পুলিশ জানায়, রিশা গত বৃহস্পতিবার রাতে হাসপাতালে জবানবন্দিতে বলেছে, বখাটে ওবায়দুল তাকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করেছে। হামলার আগের দিনও সে তার পিছু নিয়েছিল।

আজ সোমবার সকালে স্কুলের মিলনায়তনে রিশার মৃত্যুতে শোকসভা হয়। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা বক্তব্য দেন। হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করার ও শাস্তি দেওয়ার দাবি জানান তারা। শোকসভায় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, হত্যাকারীর ফাঁসির দাবি করছি।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ