এবছর ৪ লাখ কৃষককে প্রণোদনা দেবে সরকার: মন্ত্রী
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

এবছর ৪ লাখ কৃষককে প্রণোদনা দেবে সরকার: মন্ত্রী

বন্যা কবলিত এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত কৃষককে প্রণোদনা দেবে সরকার। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ওইসব কৃষককে বিনা মূল্যে সার, বীজ ও ধানের চারা সরবরাহ করবে কৃষি মন্ত্রণালয়।

আজ বুধবার কৃষি মন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান।

মন্ত্রী জানান, ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের সহায়তা দিতে সরকার কৃষকদের পুর্নবাসন ও প্রণোদনার জন্য আলাদা  কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় সারা দেশে ৪ লাখ ১ হাজার ৩০০ জন কৃষকরে মাঝে বিনা মূল্যে সার, বীজ ও ধানের চারা সবরবাহ করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী। এজন্য ব্যয় হবে ৪১ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। সারা বছর ধরেই এই সহায়তা দেওয়া হবে। unnamed (3)

মন্ত্রী জানান, এবারের বন্যায় ওই ১৬ জেলার প্রায় সাড়ে ৭ লাখ হেক্টর জমির পানিতে তলিয়ে গেছে। এর মধ্যে ১ লাখ ৫৮ হাজার হেক্টর জমির ফসল পুরোপুরি নষ্ট হয়ে গেছে।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, যাদের ফসল পুরোপুরি নষ্ট হয়েছে ওইসব কৃষকদের জন্যই পুর্নবাসন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে সরকার।

মন্ত্রীর দেওয়া তথ্যমতে, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, লালমনিরহাট, নীলফামারী, রংপুর, বগুড়া, সুনামগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, জামালপুর, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর, রাজবাড়ী, মাদারীপুর, মানিকগঞ্জ, শরীয়তপুর ও মুন্সীগঞ্জ জেলায়  পুনর্বাসন কর্মসূচির আওতায় ১৭ হাজার ২ শত ১১ জন কৃষকদের মধ্যে ৫৩ লাখ ৭৪ হাজার টাকার ধারে চারা ও বীজ বিতরণ করা হবে।

মতিয়া চৌধুরী জানান, জুলাই-আগস্টের মাঝামাঝি সময়ে স্বল্প মেয়াদে পদ্মা, মেঘনা, যমুনা, ব্রক্ষ্রপুত্র, তিস্তা, সুরমা, কুশিয়ারা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে ১৬ টি জেলায় বন্যায় আমন বীজতলা, শাক-সবজি ও অন্যান্য ফসলসহ প্রায় ৭.৫০ লাখ হেক্টও ফসলি জমি পানিতে নিমজ্জিত হয় এবং ১.৫৮ লাখ জমির বিভিন্ন ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের সহায়তায় পুনর্বাসন কর্মসূচির আওতায় শীঘ্রই কৃষি পণ্য বিতরণ করা হবে।

মন্ত্রী জানান, পুনর্বাসন কর্মসূচির আওতায় প্রত্যেক কৃষককে লাল শাকের বীজ ২ শ’ গ্রাম, মূলা শাকের বীজ ২ শ’ গ্রাম, পালং শাকের ১ শ’ গ্রাম, বেগুনের বীজ ১০ গ্রাম, মিস্টি কুমড়ায় বীজ ৩০ গ্রাম প্রদান করা হবে।  এ কর্মসূচির আওতায় ১৭ হাজার ২ শ’ ১১ জন ১১ জন কৃষক সরাসরি উপকৃত হবেন।

কৃষিমন্ত্রী  আরও জানান, সারা দেশের ৬৪ জেলায় প্রণোদনায় আওতায় প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির জন্য ২০ কেজি গম বীজ, ২০ কেজি ডিএপি এবং ১০ কেজি এমওপি পাবেন।

ভুট্টার ক্ষেত্রে ১ বিঘা জমির জন্য ২ কেজি ভুট্টা বীজ, ২০ কেজি ডিএপি এবং ১০ কেজি এমওপি পাবেন। সরিষার ক্ষেত্রে ১ বিঘা জমির জন্য ১ কেজি সরিষা বীজ, ২০ কেজি ডিএপি এবং ১০ কেজি এমওপি পাবেন। মুগের ক্ষেত্রে ১ বিঘা জমির জন্য ৫ কেজি মুগ বীজ, ২০ কেজি ডিএপি এবং ১০ কেজি এমওপি পাবেন।

অর্থসূচক/আযম

এই বিভাগের আরো সংবাদ