‘৭-৮টি দোকান পুরোপুরি পুড়ে গেছে, উদ্ধার ১৯’
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘৭-৮টি দোকান পুরোপুরি পুড়ে গেছে, উদ্ধার ১৯’

রাজধানীর  কারওয়ান বাজারের পান্থপথে বসুন্ধরা সিটিতে আগুন লেগে ভিতরে ৭ থেকে ৮টি দোকান একেবারেই পুড়ে গেছে। এ ঘটনায় সবশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মোট ১৯ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

বসুন্ধরা গ্রুপের হেড অব মার্কেটিং এম এম জসিম উদ্দীন জানিয়েছেন, লেভেল-৬ থাকা এই দোকানগুলোতে জুতা ও মোবাইল পণ্য ছিল।  তবে কি পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা এখনই বলা যাচ্ছে না।

আগুন নেভানোর চেষ্টা করছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ছবি মহুবার রহমান।

আগুন নেভানোর চেষ্টা করছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ছবি মহুবার রহমান।

তিনি বলেন, আগুন পুরোপুরি নিভে যাবার পর ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বলা যাবে।

জসিম উদ্দীন বলেন, তাদের (ফায়ার সার্ভিস কর্মী) কাছে শুনেছি, উপরে লেভেল-৮- এ থাকা সব পানির লাইন খুলে দেওয়া হয়েছে। এই পানি লেভেল-৬ এ এসে দ্রুত আগুন নেভাতে সাহায্য করছে।

ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক মিজানুর রহমান জানান, আগুনের ধোয়া এখনো আগের মতোই বের হতে দেখা যাচ্ছে। বাতাসের গতিবেগের কারণে আগুন নেভানোর চেষ্টা মাঝে মাঝে ব্যর্থ হচ্ছে।

এ ঘটনায় মোট ১৯ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩ জন নারী। একজনকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

এর আগে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক (অপারেশন) মেজর এ কে এম শাকিল জানান, শপিংমলের ৬ তলায় জেনিস ফুটওয়্যার থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। ওই দোকান থেকে ধোয়ার কুণ্ডলি বের হচ্ছে। দোকানের লেদার পণ্য পুড়ে যাওয়ার ফলে এ ধোয়া তৈরি হয়েছে।

আগুন নেভানোর চেষ্টা করছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ছবি মহুবার রহমান।

“আগুন সি ব্লকেই ছিল, অন্য কোনো ব্লকে পৌঁছাতে পারেনি। এখন কাঁচ ভেঙ্গে ধোঁয়া বের করে দেওয়া হচ্ছে।”

ঘটনাস্থল থেকে বেলা ৪টার দিকে অর্থসূচকের নিজস্ব প্রতিবেদক মুন্নাফ রশিদ জানান, আজ সকাল ১১টার দিকে শপিং মলে আগুন লাগে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। দীর্ঘ সাড়ে ৪ ঘণ্টায়ও আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। শপিংমল থেকে এখনো ধোয়ার কুণ্ডলি বের হতে দেখা যাচ্ছে।

তেজগাঁও জোনের পুলিশ কর্মকর্তা বিপ্লব কুমার সরকার জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট বাড়ানো হয়েছে। এখন কাজ করছে ২৯টি ইউনিট; যাতে রয়েছে ১২৯ জন সদস্য।

“যে ধোয়া দেখা যাচ্ছে তা শপিং মলের ভিতরে পুড়ে যাওয়া রেক্সিন ও জুতা বানানোর কিছু উপকরণ থেকে বের হচ্ছে। তবে আগুনের আর বিস্তার হচ্ছে না। যেখান থেকে সূত্রপাত, সেখানে আগুন নেভানো হয়েছে।”

অর্থসূচক/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ