কীভাবে বুঝবেন চাকরিদাতা আপনাকে পছন্দ করছেন?
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

কীভাবে বুঝবেন চাকরিদাতা আপনাকে পছন্দ করছেন?

ইন্টারভিউ বোর্ডের সামনে আপনি যখন প্রশ্নবাণে জর্জরিত তখন নিজেকে সামেলাতেই ব্যস্ত থাকবেন এটা স্বাভাবিক। তবে একটু খেয়াল করলেই বুঝতে পারবেন নিয়োগদাতা আপনাকে কতটুকু পছন্দ করছেন। প্রথমত, চাকরিপ্রার্থীর সিভি বা রিজুমি দেখেই ইন্টারভিউ বোর্ডের সদস্যরা প্রার্থী সম্পর্কে একটা পূর্বধারণা করে ফেলেন। অনেক ক্ষেত্রে ওই পূর্বধারণার বশেই প্রশ্ন করতে শুরু করেন। তাই প্রশ্ন ও দেহভঙ্গি দেখে আপনি সহজেই বুঝতে পারবেন আপনাকে তারা পছন্দ করছেন কি করছেন না।

interviewবিজনেস ইনসাইডার নিয়োগদাতাদের এমন কিছু লক্ষণের কথা জানিয়েছে যা থেকে সহজেই অনুমান করা যায় আপনি চাকরিটি পেতে যাচ্ছেন কি না। আসুন দেখে নিই সেই লক্ষণগুলো।

লম্বা ইন্টারভিউ

নিয়োগদাতারা কখনই প্রার্থীকে পছন্দ হয়েছে তা বুঝতে দেন না। তবে বোর্ডের সদস্যরা যদি অন্যদের তুলনায় অনেক বেশি সময় নেন তাহলে তা হতে পারে চাকরি পাওয়ার একটি ভাল লক্ষণ। কারণ তারা তাদের গুরুত্বপূর্ণ সময় ব্যয় করছেন। আসলে, আপনাকে যদি নাই নেওয়া হবে তাহলে মূল্যবান সময় তারা নষ্ট করবেন কেন?

কঠিন কঠিন প্রশ্ন করা

আপনাকে কঠিন প্রশ্ন করা হচ্ছে তার মানে আপনি সহজ বিষয়গুলো পারবেন তা ধরেই নেওয়া হয়। তাই নিয়োগদাতা আপনাকে কঠিন প্রশ্ন করতে পারেন। যদি দেখেন নিয়োগদাতা একটি প্রশ্ন থেকে সংশ্লিষ্ট আরেকটি প্রশ্নের দিকে যাচ্ছেন তাহলে তা ভাল লক্ষণ। তবে অনেক চাকরিপ্রার্থীই কঠিন ও লম্বা প্রশ্ন করাকে মানসিক অত্যাচার বলে মনে করে।

তারা আপনার উত্তর ভালো করে শুনছেন না

নিয়োগদাতা যদি আপনার সম্পর্কে আরও বেশি জানতে চায় তাহলে তারা আপনার উত্তর শোনার চেয়ে আরও প্রশ্ন করার জন্য মনে মনে প্রস্তুতি নিতে থাকেন। ফলে ঘন ঘন প্রশ্ন করতে থাকেন এবং উত্তর ভালো করে শোনেন না।

ঝগড়াটে মনোভাব দেখানো

হয়ত নিয়োগদাতা প্রথমে হাসিমুখে কথা বলছিলেন কিন্তু হঠাৎই রাগতস্বরে প্রশ্ন করতে পারেন। আসলে তিনি বুঝতে চাইছেন আপনি ভিন্ন পরিস্থিতিতেও কতটা স্বাভাবিক থাকতে পারেন। নিয়োগদাতা আক্রমণাত্মক প্রশ্ন বা মন্তব্য করে আসলে আপনার মানসিক দৃঢ়তার পরিমাপ করতে চাইছেন।

হাইপোথিটিক্যাল প্রশ্ন

কঠিন ও জটিল প্রশ্ন থেকে হঠাৎ খুবই সাধারণ এবং হাইপোথিটিক্যাল প্রশ্ন করতে পারেন নিয়োগদাতা। আসলে তারা আপনার উপস্থিত বুদ্ধি এবং মানসিক দক্ষতা যাচাই করতে চাইছেন। এটাও একটা ভাল লক্ষণ।

গোলমেলে প্রশ্ন

চাকরির সাথে মেলেনা এবং আপনার পড়াশোনার সাথেও সংশ্লিষ্ট নয় এমন গোলমেলে প্রশ্ন করতে পারে ভাইভা বোর্ড। এসব প্রশ্ন করে তারা আপনার প্রতিক্রিয়া দেখতে চান। প্রশ্নগুলো হয় খুব হালকা গোছের।

আপনাকে বসিয়ে রাখা

যদি ইন্টারভিউ বোর্ড বা নিয়োগদাতা আপনাকে অকারণে বসিয়ে রাখে তাহলেও তা ভাল লক্ষণ। হয়ত প্রশ্ন বা কথোপকথনের মাঝখানে কোন ফোনকল আসল। আপনাকে যদি তাদের পছন্দ হয় তাহলে আপনাকে বসিয়ে রেখেই ফোনালাপ সেরে ফেলবেন। যদি তারা আপনাকে পছন্দ করেই ফেলে তাহলে ইন্টারভিউ চলাকালীন যেকোন জরুরি কাজ সেরে তারপর আপনার সাথে আবার আলোচনায় ফিরবে।

অর্থসূচক/রাশিদ 

এই বিভাগের আরো সংবাদ