আমজাদকে আটকে দিল ব্রিটেন, শাহরুখ হেনস্থা হল যুক্তরাষ্ট্রে
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

আমজাদকে আটকে দিল ব্রিটেন, শাহরুখ হেনস্থা হল যুক্তরাষ্ট্রে

দুই জনকেই গোটা পৃথিবী এক ডাকে চেনে। এক জন এই শতাব্দীর অন্যতম সেরা সারোদ বাদক। অন্য জন বলিউডের মহাতারকা। উস্তাদ আমজাদ আলি খান এবং শাহরুখ খান। গতকাল কাততালীয় ভাবে দুই জনই ভিসা সংক্রান্ত বিষয়ে হেনস্তার শিকার হয়েছেন।

amjad-ali-khan

শতাব্দীর অন্যতম সেরা সারোদ বাদক উস্তাদ আমজাদ আলি খান

আমজাদ আলি খানকে ভিসা দেয়নি ব্রিটেন। আর শাখরুখকে বেশ কিছুক্ষণ আটক রাখে লস অ্যাঞ্জেলেসের বিমানবন্দর কতৃপক্ষ।

লন্ডনে অনুষ্ঠান করতে যাওয়ার জন্য ভিসার আবেদন করেছিলেন আমজাদ। কিন্তু গতকাল তার আবেদন নামঞ্জুর হয়ে ফিরে এসেছে। ভিসা না পাওয়ায় তার অনুষ্ঠানটিই বাতিল হয়ে গেছে। শিল্পীর দীর্ঘ সঙ্গীত জীবনে এমন ঘটনা এই প্রথম।

এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ আমজাদ টুইটারে লিখেছেন, সেপ্টেম্বরে রয়্যাল ফেস্টিভ্যাল হলে আমার বাজানোর কথা ছিল। কিন্তু আমার ব্রিটেনের ভিসা খারিজ হয়ে গেছে। শিল্পীরা, যারা প্রেম ও শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দেন, তাদের কাছে এটি খুবই দুঃখের। আমি স্তম্ভিত ও বিষণ্ণ।

ব্রিটেনে আমজাদের ভক্ত সংখ্যা প্রচুর। তিনি নিজেই টুইটে লিখেছেন যে, সত্তরের দশক থেকে তিনি প্রতি বছরই ব্রিটেনে অনুষ্ঠান করে আসছেন। ব্রিটেনের একাধিক সম্মানে ভূষিত হয়েছেন তিনি। তার পরেও এমন ঘটল কেন?

আমজাদের জীবনে এমনটা প্রথম। শাহরুখের কিন্তু তা নয়। যে দেশের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা স্বয়ং তাকে বিনোদনের দূত বলে মনে করেন, সেই দেশেই বারবার তাকে অভিবাসন দপ্তরের রক্তচক্ষুর সামনে পড়তে হয়। এর আগে ২০০৯ সালে নিউ জার্সির নেওয়ার্ক  বিমানবন্দরে এবং ২০১২ সালে নিউ ইয়র্কের জেএফকে বিমানবন্দরে শাহরুখের সঙ্গে একই ঘটনা ঘটে। আর গতকাল তাকে আটকানো হল লস অ্যাঞ্জেলেস বিমানবন্দরে।Shahrukh-Khan

শাহরুখ ফের বিরক্তি জানিয়ে টুইট করার পর তোলপাড় পড়ে যায়। আমেরিকার সহকারী বিদেশ সচিব নিশা দেশাই বিসওয়াল  লেখেন, ভোগান্তির জন্য দুঃখিত। মার্কিন কূটনীতিকদেরও এমন ঝামেলায় পড়তে হয়।

টুইট করে দুঃখ প্রকাশ করেন ভারতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত রিচার্ড বর্মাও। তিনি বলেন, এমন যাতে আর না ঘটে, সেটা আমরা দেখছি।

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ