অনলাইনে মাদক বিক্রিতে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাজ্য
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

অনলাইনে মাদক বিক্রিতে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাজ্য

ইউরোপের অন্যান্য দেশের তুলনায় যুক্তরাজ্যের মাদক ব্যবসায়ীরা অনলাইনে বেশি টাকা কামাচ্ছেন বলে সম্প্রতি একটি গবেষণায় তথ্য বেরিয়ে এসেছে। গত জানুয়ারি মাসে বিশ্বের মোট অনলাইন কেনাবেচার ১৬ শতাংশই হয়েছে মাদক ব্যবসায় জড়িত ব্রিটিশদের হাত দিয়ে। টাকার অঙ্কে সেই লেনদেনের পরিমাণ প্রায় ১৭ কোটি টাকা।

বিবিসি অনলাইনে বুধবার এ তথ্য জানানো হয়েছে। খবরে বলা হয়, ব্রিটিশ মাদক ব্যবসায়ীরা ইউরোপের অন্যান্য দেশকে টপকে যেতে পারলেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মাদক ব্যবসায়ীদের হারাতে পারেনি। বিশ্বেজুড়ে অনলাইনে মাদক কেনাবেচার ৩৬ শতাংশই তাদের দখলে। টাকার অঙ্কে তার পরিমাণ ৪০ কোটি টাকা।

ছবিটি প্রতীকী

ছবিটি প্রতীকী

অর্থাৎ বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত দুটি দেশে মাদকাশক্তির হার অনেক ভয়াবহ। নেদারল্যান্ড সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় গবেষণাটি পরিচালনা করেছে র‍্যান্ড ইউরোপ। তাদের গবেষণায় উঠে এসেছে মাদকদ্রব্য অনলাইনে বিক্রি থেকে আয় করা বিশ্বের সেরা দেশগুলোর তালিকা।

খবরে বলা হয়, মাদকদ্রব্য কেনাবেচার জন্য সাধারণ ওয়েব ব্রাউজার হলে চলে না। এর জন্য লাগে বিশেষ ব্রাউজার। যেমন টর ব্রাউজার। এসব ব্রাউজারে ব্যবহারকারীর তথ্য গোপন থাকে। তাই আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী এমনকি প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ গোয়েন্দারাও মাদক পণ্যের ক্রেতা বিক্রেতাদের কোনো কুলকিনারা পান না। ওই বিশেষ ব্রাউজার ব্যবহার করে অনলাইনের কালো জগতে যে কেউ ঢুকে যেতে পারে। যে জগতে মাদক, আগ্নেয়াস্ত্র কেনাবেচাসহ যেকোন বেআইনী কাজ করা যায়।

র‍্যান্ড ইউরোপ তার গবেষণায় দেখতে পায়, ২০১৩ সালের পর অনলাইনে মাদক বেচাকেনার পরিমাণ প্রায় ৩ গুণ বেড়ে গেছে। ২০১৩ সালেই মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই অনলাইনে মাদক বেচাকেনার প্রথম ওয়েবসাইট ‘সিল্ক রোড ২.০’ বন্ধ করে দেয়। কিন্তু তার পরক্ষণেই নতুন ওয়েবসাইট ‘সিল্ক রোড ৩.০’ চালু করে মাদক ব্যবসায়ীরা।

র‍্যান্ড প্রকাশিত জানুয়ারি মাসের বেচাকেনায় শীর্ষ দেশগুলো হলো- যুক্তরাষ্ট্র ৩৬%, যুক্তরাজ্য ১৬%, অস্ট্রেলিয়া ১০%, জার্মানি ৮% এবং নেদারল্যান্ডস ৮%.

তবে সংস্থাটি জানায়, অনলাইনের তথ্যে মোট মাদক ব্যবসার পুরো তথ্য উঠে আসে না। সংস্থাটির ধারণা, শুধু ইউরোপে প্রতিমাসে ১৩ হাজার কোটি টাকার মাদক কেনাবেচা হয় অনলাইনে।

দেখা গেছে, সবচেয়ে বেশি যে মাদকদ্রব্যটি অনলাইনে অর্ডার করা হয়েছে তা হল গাঁজা। প্রতি ৩ টির মধ্যে ১ টি অর্ডার ছিলো গাঁজার। অর্থাৎ পশ্চিমে গাঁজা প্রেমিকের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে।

র‍্যান্ড অনলাইনে অর্ডার করা জনপ্রিয় মাদক অর্ডার করার পরিসংখ্যানও তুলে ধরেছে। তাতে গাঁজার হার ৩৩%, বৈধ ঔষধপত্র ১৯%, উত্তেজক পণ্য ১৮%, ইয়াবা জাতীয় নেশাদ্রব্য ১২% এবং হেরোইন কোকেনজাতীয় মাদক ১১%।

গবেষকরা বলেন, মূলত বিনোদন এবং পার্টিতে ব্যবহারের উদ্দেশ্যে এই মাদক পণ্যগুলো বেশি কেনা হয়। অন্যদিকে অনলাইনের বাইরে ইউরোপের খুচরা বাজারে হেরোইন বিক্রি হয় ২৮ শতাংশ।

অর্থসূচক/রাশিদ

এই বিভাগের আরো সংবাদ