আদালতে খালেদা জিয়া
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

আদালতে খালেদা জিয়া

নাইকো দুর্নীতি মামলাসহ ১২টি মামলায় হাজিরা দিতে আজ বুধবার ঢাকার জজ  আদালতে পৌছেছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। আজ সকাল সোয়া ১০টার দিকে রাজধানী ঢাকার গুলশানের বাসভবন থেকে আদালতের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে পৌণে ১২টায় আদালতে পৌছান।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া জানান, বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টার মধ্যে আদালতে হাজির হবেন খালেদা জিয়া। নাইকো দুর্নীতি, বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি ও দারুসসালাম থানার ৯টি নাশকতার মামলায় হাজিরা দিতে আজ এক ঘণ্টা আদালতে থাকবেন তিনি।

Khaleda Zia

১২ মামলায় হাজিরা দিতে আজ বুধবার দুপুরের দিকে আদালতে যান বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। ছবি: মহুবার রহমান

তিনি আরও জানান, বিএনপি চেয়ারপার্সনের বিরুদ্ধে করা নাশকতার মামলাগুলোর অভিযোগপত্র সম্প্রতি আদালতে দাখিল করা হয়েছে। একইসঙ্গে খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি দেখিয়ে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদন করা হয়েছে।

আজ বুধবার খালেদা জিয়ার আদালতে হাজিরার দিন ধার্য থাকায় পুরান ঢাকার আদালত এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। আজ সকাল থেকে আদালত পাড়া এবং এর আশাপাশের এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও র‍্যাব সদস্য অবস্থান করছে।

নাইকো মামলার নথির তথ্য মতে, কানাডার কোম্পানি নাইকোর সঙ্গে অস্বচ্ছ চুক্তির মাধ্যমে রাষ্ট্রের বিপুল পরিমাণ আর্থিক ক্ষতিসাধন ও দুর্নীতির অভিযোগে ২০০৭ সালের ৯ ডিসেম্বর তেজগাঁও থানায় খালেদা জিয়াসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম।

২০০৮ সালের ৫ মে নাইকো মামলায় খালেদা জিয়াসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের সহকারী পরিচালক এস.এম. সাহেদুর রহমান। এতে প্রায় ১৩ হাজার ৭৭৭ কোটি টাকার রাষ্ট্রীয় ক্ষতির অভিযোগ আনা হয়।

মামলার নথি থেকে জানা গেছে, বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতির অভিযোগে ২০০৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর শাহবাগ থানায় দুদকের সহকারী পরিচালক মো. সামছুল আলম একটি মামলা করেন। ওই বছরের ৫ অক্টোবর খালেদা জিয়াসহ ১৬ আসামির বিরুদ্ধে ঢাকার সিএমএম আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের উপপরিচালক মো. আবুল কাসেম।

অভিযোগপত্রে বড়পুকুরিয়া কয়লাখনির উৎপাদন, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণ চুক্তি করায় সরকারের প্রায় ১৫৮ কোটি ৭১ লাখ টাকার ক্ষতি করার অভিযোগ আনা হয়।

অন্যদিকে, নাশকতার মামলাগুলোর মধ্যে গত ১১ মে দারুসসালাম থানার ৪(৩)১৫ এবং ৮(২)১৫ নম্বরের দুই মামলায় খালেদা জিয়াসহ বিএনপির ৫১ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। গত ২৬ মে দারুসসালাম থানার ৬(২)১৫ নম্বর মামলায় খালেদা জিয়াসহ ২৬ জনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।

গত ২৯ মে খালেদা জিয়াসহ ৫১ আসামির বিরুদ্ধে একই থানার আরও দুটি মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। সর্বশেষ ৬ জুন দারুসসালাম থানায় ২৯(২)১৫, ৫(২)১৫, ৩১(২)১৫ ও ৬২(১)১৫ নম্বরের আরও চারটি মামলায় খালেদা জিয়াসহ ১০৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।

এর আগে গত ৫ এপ্রিল যাত্রাবাড়ী থানার নাশকতার মামলাসহ পাঁচটি মামলায় আত্মসমর্পণের পর নিম্ন আদালত থেকে জামিন পান খালেদা জিয়া।

অর্থসূচক/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ