তিতাসের বিতরণ চার্জ বাড়ানোর প্রয়োজন নেই: মূল্যায়ন কমিটি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

তিতাসের বিতরণ চার্জ বাড়ানোর প্রয়োজন নেই: মূল্যায়ন কমিটি

তিতাসের বিতরণ চার্জ বাড়ানোর প্রয়োজন নেই বলে মনে করছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি। কমিটি মনে করে, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে রাজস্ব চাহিদা মেটাতে তিতাস গ্যাসের বিতরণ চার্জ পড়বে ঘনমিটার প্রতি দশমিক ০২১৮ টাকা। এখন কোম্পানির বিতরণ চার্জ রয়েছে ঘনমিটার প্রতি দশমিক ২৩১৫ টাকা।

সোমবার বিকেলে টিসিবি অডিটরিয়াম মিলনায়তনে কমিশনের কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়।

তবে বিইআরসি অনেক সময় কারিগরি কমিটির সুপারিশ বিবেচনায় নেয় না। কমিটির সুপারিশের বাইরেও সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে কমিশন।তাই শেষ পর্যন্ত তিতাসের বিতরণ চার্জ বাড়লেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

titas-gas

প্রতিবেদনে বলা হয়, জিটিসিএলের ট্যান্সমিশন চার্জ ঘনমিটার প্রতি দশমিক ২৯৫৬ টাকা বিবেচনায় তিতাস গ্যাসের কস্ট প্লাস ভিত্তিতে পরিচালনার জন্য ২০১৬-১৭ অর্থবছরে রাজস্ব চাহিদা ৭১৭ কোটি ৭০ লাখ ৫০ হাজার টাকা। একই সময়ে মোট চলতি পরিচালন রাজস্ব নিরূপণ করা হয়েছে ১ হাজার ৭৭ কোটি ৩৪ লাখ টাকা। সেই হিসাবে চলতি পরিচালন রাজস্ব বেশি থাকে ৩৫৯ কোটি ৬৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

নিরূপিত রাজস্ব চাহিদা অনুযায়ী তিতাস গ্যাসের বর্তমান বিতরণ চার্জ বৃদ্ধির প্রয়োজন নেই। কারণ বর্তমান মূল্য হারে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে উদ্বৃত্ত রাজস্ব থাকবে ৩৫৯ কোটি ৬৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

বলা হয়েছে, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে কস্ট-প্লাস ভিত্তিতে পরিচালনার জন্য তিতাস গ্যাসের রাজস্ব চাহিদা ঘনমিটারপ্রতি দশমিক ৪১৮৫ টাকা। এর বিপরীতে তিতাস গ্যাসের বিদ্যমান আয় ঘনমিটারপ্রতি দশমিক ৬২৮৩ টাকা। এর মধ্যে ঘনমিটারপ্রতি দশমিক ২৩১৫ টাকা অর্জিত হবে বিতরণ চার্জ হতে। বাকি দশমিক ৩৯৬৮ টাকা অর্জিত হবে অন্যান্য আয় (পরিচালন আয়, বিবিধ আয়, সুদ আয়, গ্যাস বিতরণ চার্জ হতে)।

বিইআরসি অনেক সময় কারিগরি কমিটির সুপারিশ বিবেচনায় নেয় না। কমিটির সুপারিশের বাইরেও সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে কমিশন।তাই শেষ পর্যন্ত তিতাসের বিতরণ চার্জ বাড়লেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

তবে এই প্রতিবেদনের বিপরীতে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ হতাশা প্রকাশ করে বলেন, আমরা লিখিতভাবে এই প্রতিবেদনের জবাব দেবো।

এই রিপোর্ট প্রকাশের পর প্রশ্নকারীদের পক্ষ থেকে গ্যাসের দর না বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন যুক্তি তুলে ধরা হয়।

গণশুনানিতে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিতাস কর্তৃপক্ষ বলেন, গ্যাসের এই চার্জ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত সরকারের।

উল্লেখ, গত বছরের ২৭ আগস্ট বিইআরসি অনেকটা একতরফাভাবে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি বা অন্য কারো সঙ্গে আলোচনা না করে তালিকাভুক্ত কোম্পানি তিতাস গ্যাসের গ্যাস বিতরণ চার্জ ব্যাপকভাবে কমিয়ে দেয়। এতে কোম্পানিটির আয়ে ধস নামে। বিনিয়োগকারীরা মারাত্মক ক্ষতির মুখে পড়ে।

এমন বাস্তবতায় গত এপ্রিল মাসে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ বিইআরসির কাছে গ্যাসের বিতরণ চার্জ বাড়ানোর আবেদন জানায়। কোম্পানিটি প্রতি ঘন মিটার গ্যাসের বিতরণ চার্জ দশমিক ০২৩১৫ টাকা থেকে বাড়িয়ে এক দশমিক ০৩৮৮ টাকা করার প্রস্তাব দেয়।

অর্থসূচক/মাহমুদ/শাহীন

এই বিভাগের আরো সংবাদ