বৃষ্টির আশায় ৩ হাজার ছাগল বলি
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

বৃষ্টির আশায় ৩ হাজার ছাগল বলি

চৈত্র-বৈশেখের প্রচণ্ড খরায় যখন মাঠ ফেটে চৌচির, পুকুর ডোবায় পানি খেতে গিয়ে গবাদি পশু যখন একরাশ কাদা মাখা পানিতে মুখ ডুবিয়ে নাক টানতো তখন একটু বৃষ্টির জন্য আমাদের গ্রাম বাংলায় রঙ বেরঙ এর পোশাক পড়ে ‘আল্লাহ মেঘ দে, পানি ছায়া দেরে তুই’  বলে নেচে গেয়ে বৃষ্টির প্রার্থনা করতো। কিংবা তীব্র দাবদাহে অতীষ্ট হয়ে বৃষ্টির জন্য মহা ধুমধামে ব্যাঙের বিয়ে দিতো। কোথাও  দেখা যেতো ভিন্ন কোনো ঘটনা। এবার তামিলনাড়ুতে বৃষ্টির জন্য দেবতার উদ্দেশ্যে ৩ হাজার ছাগল উৎসর্গ করা হয়েছে। তামিলনাড়ুর এড়োদে জেলার গোবিচেট্টিপালায়াম তালুক এর ছিন্নাকোসাম গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। এ উপলক্ষ্যে গত শুক্রবার পুথানাচি আমমান এবং পেট্রেস্বামী মন্দিরে বিশেষ উৎসবের আয়োজন করা হয়।goat

দুই বছরে একবার এ উৎসব হয়। এ উৎসবের অংশ হিসাবে বিশেষ পূজার পাশাপাশি প্রায় ৫০ হাজার পূজারীকে প্রসাদ বিতরণ করা হয়।

এস কালিনান নামের একজন উপাসক বলেন, গত চারবছর ধরে বৃষ্টি হচ্ছে না। আমরা আমাদের জমিতে চাষাবাদ করতে পারছি না। এই সঙ্কটকালে আমরা দেবতাকে সাহায্য করতে আহবান জানিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, বৃষ্টি প্রার্থনা করে এই পূজা অনেক দিন ধরেই আমাদের মধ্যে চলে আসছে। তাছাড়া এই মাসটা হলো এই পূজার সবচেয়ে উৎকৃষ্টতম সময়। আমাদের হতাশাগ্রস্ত কৃষকেরা যথাযোগ্য মর্যাদা ও সম্মান দিয়ে এই পূজা সম্পন্ন করার উদ্যোগ নিয়েছে।

এম মারিয়াপ্পন নামের স্থানীয় একজন জানান, আমরা বিশেষ পূজায় প্রসাদ ও  ছাগ শিশু উৎসর্গের মাধ্যমে বৃষ্টির দেবতাকে তুষ্ট করতে চাই।

বৃহস্পতিবার রাত থেকেই গোবিচেট্টিপালায়াম, কুনাথপুর, সেনগাপালি, পেরুনদুরাই, আড়াচাল্লুর, ভেট্টিয়ামপালাইয়াম থেকে লোক এসেছে। উৎসব উপলক্ষ্যে পুরো মন্দির এলাকা ফেস্টুন, তিনকোনা নিশান দিয়ে সাজানো হয়েছিলো।

শুক্রবার সকাল থেকেই প্রায় ১ হাজার নারী পুরুষ স্বেচ্ছাসেবক হিসাবে ৫০ হাজার মানুষের প্রসাদ রান্না করতে শুরু করেন।

শত শত পূজারীর মন্ত্রোচ্চারণ পরে প্রায় ৩ হাজার ছাগশিশু উৎসর্গ করা হয়। সবার মাঝে প্রসাদ বিতরণের মাধ্যমে পূজা উৎসব সমাপ্ত হয়।

কেএম

এই বিভাগের আরো সংবাদ