‘বন্দুকযুদ্ধে’ শোলাকিয়ায় হামলাকারীর মৃত্যু
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

‘বন্দুকযুদ্ধে’ শোলাকিয়ায় হামলাকারীর মৃত্যু

ঈদুল ফিতরের দিন শোলাকিয়ায় ঈদ জামাতের পাশে পুলিশের উপর হামলাকারী শফিউল ইসলাম র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে ময়মনসিংহের নান্দাইলে ওই ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে।

নান্দাইল থানার ওসি মো. আতাউর রহমান জানান, বন্দুকযুদ্ধে গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর আহতাবস্থায় ওই দুইজনকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর তাদের মৃত্যু হয়।

শোলাকিয়ায় হামলার পরের ছবি

শোলাকিয়ায় হামলার পরের ছবি

ঈদের সকালে কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় ঈদগাহের পাশে পুলিশের তল্লাশি চৌকিতে হামলার ঘটনা ঘটে। ওই হামলায় দুই পুলিশ সদস্য নিহত হয়। সেখানে পুলিশের সঙ্গে জঙ্গিদের গোলাগুলিতে এক হামলাকারী ও স্থানীয় এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়। ওই সময় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দিনাজপুরের মাদ্রাসা ছাত্র শফিউল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। র‍্যাব হেফাজতে চিকিৎসাধীন থাকাকালে জানা যায়, বিভিন্ন সময়ে শরীফুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম, আবু মোকাদ্দেল, সোহান নাম ধারণ করেছিল সে।

র‌্যাবের বরাত দিয়ে ওসি আতাউর রহমান বলেন, চিকিৎসা শেষে গতকাল শফিউলকে ছেড়ে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এরপর কিশোরগঞ্জ পুলিশের কাছে তাকে নিয়ে যায় র‌্যাব। র‌্যাবের গাড়ি রাত সোয়া ১১টার দিকে নান্দাইলের ডাঙ্গি গ্রামে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে পৌঁছালে তাদের লক্ষ্য করে বোমা হামলা ও গুলিবর্ষণ হয়। এসময় র‌্যাব-১৪ এর সদস্যদের সঙ্গে হামলাকারীদের গোলাগুলিতে শফিউলসহ দুজন গুলিবিদ্ধ হন। এছাড়া র‍্যাবের তিন সদস্যও আহত হয়েছেন।

তিনি আরও জানান, বন্দুকযুদ্ধের এক পর্যায়ে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এরপর ঘটনাস্থল থেকে দুটি মটরসাইকেল, আগ্নেয়াস্ত্র, বোমা ও বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়েছে। আগ্নেয়াস্ত্রের মধ্যে রয়েছে, তিনটি পিস্তল, চারটি চাপাতি, একটা কাটার, একটি হাতুড়ি। এছাড়া একটি ব্যাগও উদ্ধার করা হয়েছে।

শফিউলের (২২) বাড়ি দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাটে। দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার বিজুল দারুল হুদা কামিল মাদ্রাসার ছাত্র ছিল সে। পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জের গৌড়ীয় মঠের অধ্যক্ষ যজ্ঞেশ্বর রায় হত্যাকাণ্ডে গত ২৮ জুন পুলিশের দেওয়া অভিযোগপত্রে জেএমবি সদস্য হিসেবে শফিউলের নাম রয়েছে। এছাড়াও শোলাকিয়া হামলার ঘটনায় অস্ত্র ও বিস্ফোরক আইনে করা মামলার আসামির তালিকায়ও শফিউলের নাম আছে।

শফিউলকে গ্রেপ্তারের পর র‌্যাব জানিয়েছিল, আলিম পরীক্ষা শেষ না করেই ‘ওস্তাদের নির্দেশে অ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে’ কিশোরগঞ্জে এসেছিল সে।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে ময়মনসিংহের ত্রিশালে পুলিশের প্রিজন ভ্যানে হামলা চালিয়ে এক পুলিশ কনস্টেবলকে হত্যা করে জেএমবি নেতা সালাউদ্দিন সালেহীন সানি; রাকিবুল হাসান হাফেজ মাহমুদ ও জাহিদুল ইসলাম ওরফে বোমারু মিজানকে ছিনিয়ে নেয় জঙ্গিরা। পরে রাকিবুল পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়।

অর্থসূচক/বিএন/এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ