নিজস্ব কারখানায় রেফ্রিজারেটর উৎপাদন শুরু সিঙ্গারের
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

নিজস্ব কারখানায় রেফ্রিজারেটর উৎপাদন শুরু সিঙ্গারের

নিজস্ব কারখানায় রেফ্রিজারেটর উৎপাদন শুরু করেছে সিঙ্গার বাংলাদেশ লিমিটেডের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল অ্যাপ্লায়েন্সেস লিমিটেড। গতকাল মঙ্গলবার সাভারে অবস্থিত কারখানাটিতে উৎপাদন শুরু হয়।

রেফ্রিজারেটর কারখানাটি উদ্বোধন করেন সিঙ্গার এশিয়ার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও সিঙ্গার বাংলাদেশ লিমিটেডের চেয়ারম্যান গ্যাভিন ওয়াকার। এ সময় ইন্টারন্যাশনাল অ্যাপ্লায়েন্সেস লিমিটেডের অপর অংশীদার সাংহাই সনলু সাংলিং এন্টারপ্রাইজ গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান চ্যান কুয়ান মিয়াও এবং সিঙ্গার বাংলাদেশ লিমিটেডের পরিচালক ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Singer-Bangladesh

সাভারে ইন্টারন্যাশনাল অ্যাপলায়েন্সের কারখানায় রেফ্রিজারেটর উৎপাদন উদ্বোধন করছেন সিঙ্গার বাংলাদেশের চেয়ারম্যান গ্যাভিন ওয়াকার ও উর্ধতন কর্মকর্তারা

ইন্টারন্যাশনাল অ্যাপ্লায়েন্সেস লিমিটেড হলো সিঙ্গার বাংলাদেশ লিমিটেড এবং সাংহাই সনলু সাংলিং এন্টারপ্রাইজ গ্রুপের যৌথমালিকাধীন একটি কোম্পানি।এ কোম্পানির ৪০ শতাংশ শেয়ারের মালিক সিঙ্গার।

জানুয়ারি-জুন সময়ে সিঙ্গার বাংলাদেশের পণ্য বিক্রি বেড়েছে প্রায় ৪২ শতাংশ, আর ১৫৩ শতাংশ বেড়েছে নিট মুনাফা

ইন্টারন্যাশনাল অ্যাপ্লায়েন্সেস লিমিটেডের কারখানায় রেফ্রিজারেটর, ডিপ ফ্রিজসহ বিভিন্ন ধরনের গৃহস্থালী পণ্য (Home Appliance) উৎপাদন করা হবে।

উল্লেখ, এর আগে সিঙ্গার বিদেশ থেকে আমদানি করা রেফ্রিজারেটর তার বিশাল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সারাদেশে বিক্রি করতো। নিজস্ব কারখানায় উৎপাদনের ফলে ব্যয় বেশ কিছুটা কমে আসবে। তাতে মুনাফায় পড়বে ইতিবাচক প্রভাব।

এদিকে গতকাল চলতি হিসাববছরের প্রথমার্ধে (জানুয়ারি-জুন’১৬) সিঙ্গার বাংলাদেশের পণ্য বিক্রি বেড়েছে প্রায় ৪২ শতাংশ। এ সময়ে কোম্পানির নিট মুনাফা বেড়েছে প্রায় ১৫৩ শতাংশ।

অনুষ্ঠানে বলা হয়, পণ্যের গুণগত মান সিঙ্গারকে বিশ্বব্যাপী পরিচিতি দিয়েছে। এটি বাংলাদেশেও একটি বিশ্বস্ত নাম। সিঙ্গারের সাভারের কারখানায় উৎপাদিত রেফ্রিজারেটর ইতিমধ্যে প্রতিযোগিতামূলক মূল্যে বাজারজাতকরণ শুরু হয়েছে। সিঙ্গারের শোরুম ও ডিলারদের কাছে পণ্যটি পাওয়া যাচ্ছে।

সিঙ্গার গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে। এতে বলা হয়, উন্নত ব্যবসায়িক পরিবেশ ও ব্যবস্থাপনায় বিভিন্ন পদক্ষেপের ফলে বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিক শেষে সিঙ্গারের কর-পরবর্তী মুনাফা হয়েছে ২০ কোটি ২৯ লাখ টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ১৫৩ দশমিক ৩ শতাংশ বেশি।

আলোচিত সময়ের ব্যবসায়িক সাফল্যে সন্তুষ্ট সিঙ্গার বাংলাদেশের চেয়ারম্যান গ্যাভিন ওয়াকার। এক বার্তায় গ্যাভিন জানান, কোম্পানির অর্ধবার্ষিক ফলাফলে তিনি অত্যন্ত আনন্দিত।তিনি বলেন, পণ্য বিক্রি এবং মুনাফার প্রবৃদ্ধি উল্লেখযোগ্য অর্জন।

তিনি আশা প্রকাশ করেন, নিজস্ব কারখানায় উৎপাদন শুরুর ফলে আগামী দিনগুলো হবে আরও সম্ভাবনাময়।

এই বিভাগের আরো সংবাদ